আলেজান্দ্রোর জায়গায় ইস্টবেঙ্গলের কোচের দৌড়ে ডাকাবুকো চেনা নাম

আলেজান্দ্রোর জায়গায় ইস্টবেঙ্গলের কোচের দৌড়ে ডাকাবুকো চেনা নাম
বৈঠকে কোয়েস- ইস্টবেঙ্গল কর্তারা

আলেজান্দ্রোর ইস্তফা জমা পড়তেই কোয়েস কর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ। কোচ হতে চেয়ে দরবার ডাকাবুকো চাচার

  • Share this:

#কলকাতা: তারিফ করার মতোই নেটওয়ার্ক বটে! চমকে ওঠার মতোই কানেকশন তাঁর! আলেজান্দ্রোর অপ্রত্যাশিত পদত্যাগের ধাক্কা তখনও কাটিয়ে উঠতে পারেননি কোয়েস-ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। উনিশের ডার্বির দু-দিন আগে অর্থাৎ ১৭ জানুয়ারি শারীরিক অসুস্থার কারণ দেখিয়ে কোয়েস সিইও অজিত আইজ্যাককে মেল করে অব্যাহতি চেয়েছিলেন স্প্যানিয়ার্ড। সে যাত্রায় ডার্বির ধুঁয়ো দেখিয়ে আটকানো গিয়েছিল আলেজান্দ্রোকে। মঙ্গলবার বিকেলে কোয়েসের দফতরে বসে তখনও আলেজান্দ্রোর পদত্যাগের কারণ নিয়ে কাটাছেঁড়া করছেন দেবব্রত সরকার, সুব্রত নাগ, সৈকত গঙ্গোপাধ্যায়, সঞ্জিত সেনরা। এরইমধ্যে হোয়াটসঅ্যাপ কলে ফোন বেজে উঠল এক কোয়েস কর্তার। অচেনা নম্বর তুলতেই ফোনের ওপার থেকে অন্যভস্থ উচ্চারণে ভেসে এল গলা। নিজের পরিচয় দিয়ে সামান্য এক-দুই কথার পরেই প্রসঙ্গে ঢুকলেন ভারতীয় ফুটবলের সেই পরিচিত ডাকাবুকো নাম। সরাসরি ইচ্ছে প্রকাশ করে বললেন,‘‘ মোহনবাগানে কোচিং করিয়েছি। আগেও আপনাদের সঙ্গে অনেকবার কথা হয়েছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর হয়ে ওঠা হয়নি। ইস্টবেঙ্গলের কোচ হতে পারলে ভাল লাগবে। আমি ফ্রি আছি। আপনারা ডাকলে সাতদিনের মধ্যে কলকাতা পৌঁছে যাব।’’

দূর দেশের রাবাত শহরে বসে যে ময়দানের খবর যে তাঁর নখের গোড়ায়, কে জানত! আলেজান্দ্রোর পদত্যাগের খবর ছড়ানো মাত্রই ইস্টবেঙ্গলের কোচের দৌড়ে নেমে পড়েন মরোক্কান। আর নিশ্চয় নাম বুঝতে অসুবিধে নেই! ভারতীয় ক্লাব ফুটবলের পরিচিত নাম করিম বেঞ্চারিফা। চার্চিল কোচ হিসেবে ভারতীয় ফুটবলে হাতেখড়ি করিমের। ইস্টবেঙ্গলের পড়শি ক্লাব মোহনবাগানে কোচিং করিয়েছেন দুই দফায়। সালগাঁওকরের মতো গোয়ান ক্লাবকে আই লিগ জিতিয়েছেন। ফেড কাপ জিতিয়েছেন। তাই করিমের কোচিং যোগ্যতা নিয়ে সন্দেহ নেই। ভারতীয় ফুটবলের মূলস্রোতে ফিরতে উৎসাহি করিম নিজেও।

নজরে করিম নজরে করিম

মরক্কোর রাবাত শহরে বসে কলকাতায় ফোন করে ইস্টবেঙ্গলকে কোচিং করানোর ইচ্ছে প্রকাশ করায় চমকে যান ইস্টবেঙ্গল-কোয়েস কর্তারাও। করিমের সঙ্গে কথাবার্তা বলার পর নিজেদের মধ্যে আলোচনার জন্য সময় চেয়ে নেন দেবব্রত সরকার, সুব্রত নাগরা। পরিস্থিতি যা, তাতে আলেজান্দ্রোর ছেড়ে যাওয়া হটসিটে বসার দৌড়ে এগিয়ে করিম বেঞ্চারিফাই। ২৫ জানুয়ারি চেন্নাই সিটির বিরুদ্ধে ডাগ-আউটে বসবেন বাস্তব রায়। সব কিছু ঠিকঠাক চললে পয়লা ফেব্রুয়ারি কল্যাণীতে ইন্ডিয়ান অ্যারোজের বিরুদ্ধে ম্যাচের আগেই শহরে পৌঁছে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রাক্তন বাগান কোচের। তবে গন্তব্য এবার গঙ্গাপাড়ের সবুজ-মেরুন নয়। লেসলি ক্লডিয়াস সরণীর লাল-হলুদ ডেরা।

PARADIP GHOSH

First published: January 21, 2020, 10:50 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर