• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • আবির্ভাবেই নায়ক, ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের জন্য সব ম্যাচেই গোল করতে চান ব্রাইট

আবির্ভাবেই নায়ক, ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের জন্য সব ম্যাচেই গোল করতে চান ব্রাইট

Photo source/twitter handle

Photo source/twitter handle

প্রথম ম্যাচে গোল পেয়েছেন, দলও প্রথম জয় পেয়েছে। ব্রাইট কী তাহলে সৌভাগ্য বয়ে এনেছেন লাল হলুদের জন্য?

  • Share this:

    #গোয়া: নতুন বছরে নতুন রূপে দেখা গিয়েছে এস সি ইস্টবেঙ্গলকে। ওড়িশাকে হারিয়ে টুর্নামেন্টের প্রথম জয় তুলে নিয়েছে লাল-হলুদ ব্রিগেড। এতদিন ধরে টানা ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে, নতুন আলোর রেখা দেখা দিচ্ছে। একটা জয় যে খুব দরকার ছিল। তবে শুধু জয় নয়, খেলার মধ্যে যে মরিয়াভাব লক্ষ্য করা গিয়েছে সেটাই এতদিন ছিল না দলটায়। প্রত্যেকটা ফুটবলার নিজেদের উজাড় করে দিয়েছে। পিলকিংটন, মাগোমা গোল পেয়েছেন। তবে সবচেয়ে নজর কেড়েছেন বাইশ বছরের নাইজেরীয় ফুটবলার ব্রাইট এনোবাখার। প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেই গোল পেয়ে গেলেন। বল ধরা, ছাড়া, মুভমেন্ট বুঝিয়ে দিল গোল পেতে আর সমস্যা হবে না ইস্টবেঙ্গলের। প্রথম ম্যাচে গোল পেয়েছেন, দলও প্রথম জয় পেয়েছে। ব্রাইট কী তাহলে সৌভাগ্য বয়ে এনেছেন লাল হলুদের জন্য?

    ম্যাচ শেষে জানালেন,"ভারতে প্রথম ম্যাচেই গোল করতে পেরে ভাল লাগছে। অন্যরকম অনুভুতি। দীর্ঘদিন নিভৃতবাসে থাকতে হয়েছিল। প্রথম ম্যাচে নেমেই ভাল পারফর্ম করা সহজ নয়। তবে কোচ ভরসা রেখেছিলেন। তার দাম দিতে পেরেছি। আমার এখন একটাই লক্ষ্য। যখনই সুযোগ পাব,ভাল খেলা এবং গোল করা। সর্মথকরা আমার থেকে গোলের আশা করতেই পারেন"। ভারতীয় ফুটবলারদের মধ্যে ধারাবাহিক ভাল খেলছেন মহম্মদ রফিক। ডানদিক থেকে প্রচুর পরিশ্রম করছেন তিনি। কোচ রবি ফাওলার দারুণ পছন্দ করেন তাঁকে। সেই রফিক বলছিলেন,"আমরা প্রত্যেক ম্যাচে নিজেদের সেরাটা দিচ্ছিলাম। কিন্তু কিছুতেই জয় আসছিল না। হয়তো ভাগ্য সহায় ছিল না। কিন্তু জানতাম জয় পাওয়া থেকে বেশি দূরে নেই। নতুন বছরের প্রথম জয় এসেছে, দারুণ ব্যাপার। এবার একটাই কাজ, প্রতি ম্যাচে শুধু ভাল খেলা নয়, জিতে মাঠ ছাড়া। আশা করছি আমাদের ভাল সময় শুরু হল"।

    কোচ রবি ফাওলার তাঁকে নাম দিয়েছেন রাফা। নামটা উপভোগ করছেন তিনি। পাশাপাশি সিনিয়র ফুটবলার হিসেবে নিজের দায়িত্বটা পালন করে যেতে চান। লাল হলুদ জার্সিতে দীর্ঘদিন পর ফিরে এসে রাজু গায়কোয়াড় ভরসা দিয়েছেন। লেফটব্যাক বিকাশ জাইরু ছোটখাটো চেহারার হলেও, লড়াই করছেন। দুই বিদেশি ডিফেন্ডার ফক্স এবং স্কট আগের থেকে অনেক বেশি সাবলীল। কিন্তু এরপর কম সময়ে বেশ কয়েকটি ম্যাচ খেলতে হবে লাল হলুদকে। বিশ্রামের সময় খুব বেশি নেই। ব্রিটিশ কোচ জানেন হাতে সময় কম। তাই যতটা সম্ভব তাড়াতাড়ি আগের ম্যাচ ভুলে গিয়ে নতুন ম্যাচের গেমপ্ল্যান সাজাতে চান তিনি। নিজে লিভারপুলে যখন খেলতেন সবসময় লড়াকু এবং পজিটিভ মানসিকতা রাখতেন। ইস্টবেঙ্গল জার্সিতে তাঁর সব ফুটবলার একইরকম মানসিকতা রাখুক সেটাই চান রবি ফাওলার।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: