খেলা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

নিথর মেসি লুটিয়ে মাটিতে, নেইমারের গলায় আইএস জঙ্গির ছুরি!

নিথর মেসি লুটিয়ে মাটিতে, নেইমারের গলায় আইএস জঙ্গির ছুরি!

নিথর মেসি লুটিয়ে মাটিতে, নেইমারের গলায় আইএস জঙ্গির ছুরি!

  • Share this:

 #নয়াদিল্লি: আন্তর্জাতিক গোয়েন্দা সংস্থাগুলি দাবি করে আসছিল, সারা বিশ্বের নজরে পড়ার জন্য রাশিয়া বিশ্বকাপের মঞ্চকেই বেছে নেবে আইএস। আইএস-এরও দাবি, রাশিয়া বিশ্বকাপে তারা হামলা চালাবেই। প্রচারের জন্য নিষিদ্ধ এই জঙ্গি গোষ্ঠী তৈরি করেছে একের পর এক পোস্টার। আতঙ্ক ছড়াতে ফের নয়া হুমকি পোস্টার প্রকাশ্যে আনল আইএস ৷ এবারও সেই পোষ্টারে হুমকির নিশানায় মেসি, সঙ্গে নেইমার ৷

। আইএস সমর্থিত ওয়াফা মিডিয়া ফাউন্ডেশনের পোস্টারে দেখা যাচ্ছে মেসির মুন্ডচ্ছেদ করেছে জঙ্গিরা ৷ মেসির নিথর দেহ লুটিয়ে পড়ে রয়েছে মাটিতে ৷ অন্যদিকে নতজানু নেইমার প্রাণদানের কাতর আর্তি জানাচ্ছে তাঁর ঘাড়ের কাছে কোপ বসানোর জন্য তৈরি ৷ পোস্টারের নীচে আইএস-এর বার্তা, যতক্ষণ না মুসলিং রাষ্ট্রে বাস করছ, ততক্ষণ কোনও নিরাপত্তা নেই ৷

Image: SITE Intel Group/Twitter Image: SITE Intel Group/Twitter

রাশিয়ায় ফুটবল বিশ্বকাপ নিয়ে তোড়জোড় যত বাড়ছে, ততই বাড়ছে আইএস-এর হুমকি ৷ সেলেব্রিটি ফুটবলারদের নিশানায় রেখে একের পর এক কুৎসিত হুমকি ভরা পোস্টার প্রকাশ করে তাঁরা আতঙ্ক ছড়িয়ে দিতে চাইছে সারা বিশ্বে ৷

সিরিয়ায় রাশিয়ার এয়ার স্ট্রাইকের পর থেকেই আক্রমণ শানানো হচ্ছিল। এবছর এপ্রিলেই রাশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর সেন্ট পিটার্সবার্গে ব্রিফকেস বোমা বিস্ফোরণ ঘটায় ইসলামিক জঙ্গি সংগঠন। যাতে ১৪ জন মারা যায়। এরপর থেকে রাশিয়া গোয়েন্দা বিভাগ আরও সক্রিয়। তবে আইএস ও একের পর এক হুমকি দিতে থাকে। বেছে নেওয়া হয় ফুটবল বিশ্বকাপের মঞ্চকে। কারণ, বিশ্বকাপ চলার সময়ে সারা পৃথিবীর মিডিয়ার নজর থাকবে রাশিয়ার দিকে। সেখানে কিছু ঘটালে দ্রুত তার প্রতিক্রিয়া তৈরি হবে। পাশাপাশি নিরাপত্তার ব্যর্থতায় রাশিয়ারও মুখ পুড়বে। আগামী বছরের ১৪ জুন থেকে পনেরই জুলাই রাশিয়ায় বিশ্বকাপ। ১১টি শহরে খেলা হবে। ফাইনাল মস্কোর লাজনিকি স্টেডিয়ামে।

ইতিমধ্যেই সারা বিশ্বের গোয়েন্দা সংস্থা বারবার ঘুরে গিয়েছেন রাশিয়া। দেখে গিয়েছেন নিরাপত্তা ব্যবস্থা। আর অন্যদিকে জঙ্গিরা প্রকাশ করেছে একের পর এক হুমকি পোস্টার। সপ্তাহখানেক আগে আইএস সমর্থিত সংগঠন ওয়াফা মিডিয়া ফাউন্ডেশনের প্রথম পোস্টার। যেখানে স্টেডিয়ামের সামনে এক আইএস জঙ্গির ছবি এবং বিশ্বকাপের লোগো। তারপরে আরও একটি পোস্টার। যেখানে স্টেডিয়ামের ছবি। আইএস জঙ্গির ছবি। আইএস-এর কালো পতাকার ছবি। সঙ্গে মুজাহিদিনের আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ার শপথ। আর ওয়াফা মিডিয়া ফাউন্ডেশনের নতুন পোস্টার বেশ শোরগোল ফেলে দিয়েছে। এবার পোস্টারে যা লেখা, তার মানে আইএস-এর ডিকশনারিতে ব্যর্থতা বলে কোনও শব্দ নেই।

সবথেকে শোরগোল ফেলে আইএস-এর সাম্প্রতিক পোস্টার ৷ আইএস সমর্থিত ওয়াফা মিডিয়া ফাউন্ডেশনের পোস্টারে দেখা যায় লিওনেল মেসির ছবি। গরাদের মধ্যে মেসির মুখ। বাঁ চোখ দিয়ে ঝরছে রক্ত। এবার সেই তালিকায় যোগ হল নেইমারের ছবিও ৷

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রিয় মানুষের বিকৃত ছবি দেখলে আতঙ্ক বেশি করে চেপে ধরে। সেই আতঙ্ককেই কাজে লাগিয়ে কাজ হাসিল করতে চাইছে আইএস ৷

সবাইকে আশ্বস্ত করে রাশিয়া জানিয়েছে, তাঁরা বিশ্বকাপের অনুষ্ঠানকে সুরক্ষিত রাখতে প্রাণপণ চেষ্টা করছে ৷ এই নিষিদ্ধ জঙ্গি গোষ্ঠী কোনও ক্ষতি করতে পারবে না ৷ আইএস-এর এই কুৎসিত হুমকি পোস্টারের পর রাশিয়া সুরক্ষা ব্যবস্থা আরও নিশ্চিদ্র করতে সচেষ্ট ৷

First published: October 30, 2017, 9:42 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर