WTC Final : দুর্দান্ত ম্যাচ হবে, তর সইছে না ডেভিড গাওয়ারের

হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে ভারত- নিউজিল্যান্ডের নিশ্চিত গাওয়ার

দুই দলই যোগ্যতা দেখিয়ে ফাইনালে উঠেছে। উভয়েই যথেষ্ট শাক্তিশালী। সাউদাম্পটনের মাঠে দুর্দান্ত একটা টেস্ট দেখার আশা করছি বললেন গাওয়ার

  • Share this:

    #লন্ডন: স্টাইলিশ ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিকেট বিশ্বে পরিচিতি ছিল তাঁর। ইংল্যান্ডের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান ডেভিড গাওয়ার। ক্রিকেটের আদি সংস্করণ থেকে আধুনিক ক্রিকেটের রদবদল দেখেছেন চোখের ওপর দিয়ে। বরাবর স্পষ্ট কথা বলতে ভালোবাসেন। ভারত বনাম নিউজিল্যান্ড লড়াই শুরু হওয়ার আগে নিজের মতামত ব্যক্ত করলেন তিনি। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে যোগ্য দুই দলই মুখোমুখি হয়েছে বলে মনে করছেন ডেভিড গাওয়ার। ইংল্যন্ডের প্রাক্তন অধিনায়কের মতে, ‘দুই দলই যোগ্যতা দেখিয়ে ফাইনালে উঠেছে। উভয়েই যথেষ্ট শাক্তিশালী। সাউদাম্পটনের মাঠে দুর্দান্ত একটা টেস্ট দেখার আশা করছি। ওখানে ব্যাটসম্যান, পেসার ও স্পিনার সবার জন্যই সাহায্য মজুত থাকবে বলে মনে হচ্ছে।’

    ১১৭টি টেস্ট ও ১১৪টি ওয়ান ডে খেলা গাওয়ার আরও বলেছেন, ‘আমার ধারণা, এমন পিচ তৈরি করা হবে, যা দুই দলকেই সাহায্য করবে। যে কোনও পরিস্থিতিতে দুই দলের সমান সুবিধা পাওয়া উচিত। ভারত সম্প্রতি ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজ জিতেছে মূলত স্পিনারদের দাপটে। আবার ভিন্ন কন্ডিশনে খেলার মতো দারুণ সব জোরে বোলারও ওদের হাতে রয়েছে। তিন-চারজন ভাল পেসার রয়েছে ভারতের। উইকেট থেকে সামান্য সাহায্য পেলে ওরা বিধ্বংসী হয়ে উঠতে পারে।’

    পাশাপাশি ১৮ জুন থেকে অনুষ্ঠেয় টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালকে দুই সেরা ব্যাটসম্যানের লড়াই হিসেবেও দেখছেন গাওয়ার। তাঁর মতে, ‘এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা দুই ব্যাটসম্যান হল বিরাট কোহলি ও কেন উইলিয়ামসন। ওরা ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে। দুই দুর্দান্ত প্রতিদ্বন্দ্বী। তাই ওদের ব্যক্তিগত দ্বৈরথও এই ম্যাচে বাড়তি আকর্ষণ যোগ করেব। সব মিলিয়ে একটা উপভোগ্য টেস্ট হতে চলেছে সাউদাম্পটনে।’ নিউজিল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক গ্লেন টার্নার আবার বলেছেন, ফাইনালে বল সুইং করলে সমস্যায় পড়বেন বিরাট কোহলি। তাঁর মতে, ‘কোহলির রিফ্লেক্স কমে গিয়েছে কিনা, তা নিয়ে চর্চায় যেতে রাজি নই। তবে পিচ ও সার্বিক কন্ডিশন যদি সিম ও সুইং বোলিংয়ের সহায়ক থাকে, তবে বাকিদের মতো সমস্যা হবে ওরও। গত নিউজিল্যান্ড সফরে তার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে।’

     তবে টার্নার যাই বলুন না কেন, আসল কথা হচ্ছে ভারতীয় দল এই ম্যাচটার গুরুত্ব জানে। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ খেলতে নামছে টিম ইন্ডিয়া। তাই এতদূর এসে কিছুতেই হাতছাড়া করতে চাইবে না বিশ্বের এক নম্বর টেস্ট দল। জিতেই মাঠ ছাড়া লক্ষ্য বিরাট কোহলি, রবি শাস্ত্রীদের। নিউজিল্যান্ড যথেষ্ট বেগ দেওয়ার ক্ষমতা রাখে। কিন্তু কাউন্টার প্ল্যান করেই মাঠে নামবে ভারত।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: