Home /News /sports /

গব্বর, ঈশান এবং পৃথ্বীর দাপটে প্রথম একদিনের ম্যাচে সহজে লঙ্কা জয় ভারতের

গব্বর, ঈশান এবং পৃথ্বীর দাপটে প্রথম একদিনের ম্যাচে সহজে লঙ্কা জয় ভারতের

গব্বর, ঈশান দাপটে জেতালেন ভারতকে

গব্বর, ঈশান দাপটে জেতালেন ভারতকে

রান তাড়া করতে নেমে পৃথ্বী শ দুরন্ত শুরু করেন। লঙ্কান বোলারদের যথেচ্ছ পিটিয়ে ২৪ বলে ৪৩ করে আউট হয়ে যান। ইনিংস সাজানো ছিল ৯ টি বাউন্ডারি দিয়ে

  • Share this:
    শ্রীলঙ্কা - ২৬২/৯ ভারত - ২৬৩/৩ (৩৮.৪ ওভার) ভারত জয়ী ৭ উইকেটে

    #কলম্বো: দুর্বল শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে জেতার জন্য ভারতের কার্যত ' বি দল ' যে যথেষ্ট শক্তিশালী তা নিয়ে সন্দেহ ছিল না। কত তাড়াতাড়ি জেতে, প্রশ্ন ছিল সেটাই। টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করলেও ২৬২ রানেই আটকে যায় লঙ্কার ইনিংস। কিছুটা ফার্নান্ডো, ভানুকা, অধিনায়ক শানাকা এবং শেষদিকে করুনারত্নের লড়াকু ৪৩ রানের সুবাদে মোটামুটি সম্মানজনক রান তোলে শ্রীলঙ্কা। ভারতের হয়ে দুটি করে উইকেট পান ভুবনেশ্বর, কুলদীপ এবং দীপক চাহার।

    কিন্তু এই রান যে শক্তিশালী ভারতীয় ব্যাটিং লাইনআপকে আটকানোর পক্ষে যথেষ্ট ছিল না, সেটা বোঝা গিয়েছিল প্রথম ইনিংসের ঠিক পরেই। একদিনের ক্রিকেটে জাতীয় দলের হয়ে এদিনই অভিষেক হল সূর্যকুমার এবং ঈশান কিষণের। রান তাড়া করতে নেমে পৃথ্বী শ দুরন্ত শুরু করেন। লঙ্কান বোলারদের যথেচ্ছ পিটিয়ে ২৪ বলে ৪৩ করে আউট হয়ে যান। ইনিংস সাজানো ছিল ৯ টি বাউন্ডারি দিয়ে। কিন্তু সেই ভুল শট নির্বাচন করে উইকেট ছুড়ে দিয়ে এলেন। ম্যাচের সেরা তিনি।

    তিন নম্বরে এলেন বার্থডে বয় ঈশান। প্রথম বলটাই ছক্কা মেরে পাঠিয়ে দিলেন বাউন্ডারির বাইরে। ৪২ বলে ৫৯ করে ফিরে যাওয়ার আগে মারলেন ৮ টি বাউন্ডারি এবং দুটি ওভার বাউন্ডারি। ভয়ডরহীন ব্যাটিং করে দেখালেন। সন্দকানের বলে উইকেট রক্ষকের হাতে ধরা পড়লেন। কিন্তু ধৈর্য ধরে উইকেটে পড়েছিলেন শিখর ধাওয়ান। সঙ্গে ছিলেন মনিশ পান্ডে। যোগ্য অধিনায়কের মত শেষপর্যন্ত থেকে দলকে জিতিয়ে ফেরাই লক্ষ্য ছিল গববরের। ম্যাচের পরিস্থিতি বুঝে ইনিংস সাজালেন।

    মণীশ ২৬ করে মারতে গিয়ে ধরা পড়লেন শর্ট মিড উইকেটে। জীবনে প্রথমবার জাতীয় দলের জার্সিতে দলকে নেতৃত্ব দিতে নেমেছিলেন শিখর ধাওয়ান। সেই পরীক্ষায় সম্মানে উত্তীর্ণ তিনি। ম্যাচ শেষে জানালেন, "দলের সব তরুণ ক্রিকেটারের সঙ্গে আমার কথা হয়েছিল। ওদের দক্ষতা নেটে দেখে নিয়েছিলাম। গত এক মাস ধরে একসঙ্গে থাকায় দলের মধ্যে একতা তৈরি হয়েছে। তাই রবিবারের ম্যাচের আগে আলাদা করে ওদের কিছু বলার দরকার পড়েনি। কিন্তু আমরা ম্যাচ এবং বিপক্ষ দলকে হালকা করে নিইনি। নিঃসন্দেহে পরের দুটো ওয়ানডে জেতাই আসল লক্ষ্য"।

    শ্রীলঙ্কা দলটার ফিল্ডিং অত্যন্ত নিম্নমানের। এই দল ভারতের 'বি দলের ' কাছেও হোয়াইটওয়াশ হবে, এটা বোঝার জন্য বিশেষজ্ঞ হওয়ার দরকার পড়ে না। সূর্য কুমার যাদব যেটুকু সময় ছিলেন তাঁর বিশেষ কিছু করার ছিল না। কারণ তার আগেই এই ম্যাচের ভাগ্য নির্ণয় হয়ে গিয়েছিল। তাও কয়েকটা দেখার মত বাউন্ডারি মারলেন তিনি। তবুও টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এই মুম্বই ব্যাটসম্যান যে প্রবলভাবে নির্বাচকদের ভাবনার মধ্যে আছেন সেটা নিশ্চিত।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    Tags: Ishan kishan, Shikhar Dhawan

    পরবর্তী খবর