খেলা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

প্রশ্নের মুখে ধরমশালায় ভারত-পাক ম্যাচ

প্রশ্নের মুখে ধরমশালায় ভারত-পাক ম্যাচ

প্রশ্নের মুখে ধরমশালায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। এই ম্যাচে নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব নয়। কেন্দ্রীয় সরকারকে দেওয়া বীরভদ্র সিংয়ের এই চিঠির পর পরিস্থিতি আরও জটিল হয়েছে। বোর্ড সচিব অনুরাগ ঠাকুরের পালটা দাবি, ওই মাঠেই ম্যাচ হবে।

  • Share this:

 #দিল্লি: প্রশ্নের মুখে ধরমশালায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। এই ম্যাচে নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব নয়। কেন্দ্রীয় সরকারকে দেওয়া বীরভদ্র সিংয়ের এই চিঠির পর পরিস্থিতি আরও জটিল হয়েছে। বোর্ড সচিব অনুরাগ ঠাকুরের দাবি, ওই মাঠেই ম্যাচ হবে।

মঞ্চ প্রস্তুত ছিল। কিন্তু একটা চিঠি আপাতত ধরমশালায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে ভারত-পাক ম্যাচের উপর প্রশ্নচিহ্ন ঝুলিয়ে দিল। সোমবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে এক চিঠিতে হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী বীরভদ্র সিং জানিয়েছেন, এই ম্যাচে নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব নয়। মীরপুর পরবর্তী সময়ে এই ম্যাচ ঘিরে এখন থেকেই পারদ চড়ছে। অনলাইনে টিকিট বুকিংয়ের পরিসংখ্যান বলছে প্রথম দু’দিনে প্রায় দেড় লাখ মানুষ নাম নথিভুক্ত করেছেন। এই পরিস্থিতিতে ওয়াকিবহাল মহলের দাবি, ভারত-পাক ম্যাচ ঘিরে কোনও ঝঁকি নিতে চাইল না রাজ্যের কংগ্রেস সরকার। যদিও মঙ্গলবার সিমলায় বীরভদ্র সিং জানিয়েছেন, পাঠানকোট পরবর্তী সময়ে এই ম্যাচ কোনও ভাবে হিমাচলে সম্ভব নয়।

হিমাচল সরকারের এই মনোভাবে ক্ষুব্ধ ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। নিরাপত্তার অজুহাতে তাঁর শহরে ভারত-পাক ম্যাচ প্রশ্নের মুখে হওয়ায় চটেছেন বোর্ড সচিব অনুরাগ ঠাকুর। তাঁর মতে, ‘এক বছর আগে বিশ্বকাপের ম্যাচ ঠিক হয়ে গিয়েছে। ছ’মাস আগে ম্যাচের দিন ঠিক হয়ে গিয়েছে। দর্শকরা টিকিট বুকিং করতে শুরু করে দিয়েছেন। শেষ বেলায় রাজ্য সরকারের ভূমিকা দুঃখজনক'।

সদ্য সমাপ্ত স্যাগের উদাহরণ টেনে অনুরাগের প্রশ্ন, অসমের কংগ্রেস সরকার যদি পাক দলকে যদি নিরাপত্তা দিতে পারে, তা-হলে কেন হিমাচলের কংগ্রেস সরকার পারবে না ? ওয়াকিবহাল মহলের মতে, ধরমশালায় ম্যাচ নিয়ে লড়াইটা শুধু কংগ্রেস-বিজেপির মধ্যে নয়। এর মধ্যে রয়েছে রাজ্য বিজেপি’র আর একটি গোষ্ঠীর ইন্ধন। ইতিমধ্যেই ম্যাচ বাতিলের দাবি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং বিজেপি নেতা শান্তাকুমার।

First published: March 1, 2016, 4:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर