corona virus btn
corona virus btn
Loading

ক্রিকেটারের নালিশ, ড্রেসিংরুম থেকে বেরিয়ে গেলেন জাতীয় নির্বাচক ! গ্রহণের ছায়া ইডেনেও​

ক্রিকেটারের নালিশ, ড্রেসিংরুম থেকে বেরিয়ে গেলেন জাতীয় নির্বাচক ! গ্রহণের ছায়া ইডেনেও​
Photo Courtesy: AP

ঘটনাটি ঘটে বুধবার দুপুরে ইডেনে বাংলা বনাম অন্ধ্রপ্রদেশ ম্যাচে৷ সূত্রের খবর, ম্যাচের দ্বিতীয় দিন মন্দ আলোয় খেলা বন্ধ থাকার সময় দেবাং নাকি বঙ্গ ড্রেসিংরুমে ঢুকে পড়েন দেবাং গান্ধি ৷

  • Share this:

Eeron Roy Barman

#কলকাতা: ক্রিকেটারের নালিশ, ড্রেসিংরুম থেকে বেরিয়ে গেলেন জাতীয় নির্বাচক৷ ঠিকই পড়ছেন৷ মনোজ তিওয়ারির অভিযোগে বাংলার ড্রেসিংরুম থেকে বের হতে বাধ্য হলেন ভারতীয় নির্বাচক দেবাং গান্ধি ৷ ঘটনাটি ঘটে বুধবার দুপুরে ইডেনে বাংলা বনাম অন্ধ্রপ্রদেশ ম্যাচে ৷ সূত্রের খবর, ম্যাচের দ্বিতীয়দিন মন্দ আলোয় খেলা বন্ধ থাকার সময় দেবাং নাকি বঙ্গ ড্রেসিংরুমে ঢুকে পড়েন দেবাং৷ জাতীয় নির্বাচককে দেখতে পেয়েই ম্যাচে দুর্নীতি দমন শাখার দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিকে অভিযোগ জানান মনোজ৷ প্রাক্তন অধিনায়কের অভিযোগ পেয়ে সৌমেন কর্মকার দেবাংকে দ্রুত ড্রেসিংরুম ছাড়তে বলেন৷ সময় নষ্ট না করে দেবাংও ড্রেসিংরুম তাড়াতাড়ি বেরিয়ে যান৷

কিন্তু কেন এমন হল? ক্রিকেটারের অভিযোগ বিরাট, রোহিতদের নির্বাচককে ড্রেসিংরুম ছাড়তে বাধ্য হলেন ৷ নিয়ম অনুযায়ী বোর্ডের ম্যাচ চলাকালীন সংশ্লিষ্ট দলের ক্রিকেটার, কোচ, টিম ম্যানেজমেন্টের লোক ছাড়া আর কেউই ড্রেসিংরুমে ঢুকতে পারবেন না৷ বিসিসিআই এর কড়া নির্দেশ রয়েছে এই বিষয়৷ প্রত্যেক ম্যাচে একজন করে দুর্নীতি দমন শাখার লোক নিয়োগ করা হয়৷ দেবাংয়ের ঘটনা জানাজানি হতেও খোঁজ পড়ে হঠাৎ কেন দেবাং ড্রেসিংরুমে ঢুকলেন? জানা যায়, দেবাং নিজের শারীরিক সমস্যা নিয়ে বাংলার ফিজিও-র কাছে যান৷ সেই সময় ম্যাচ বন্ধ ছিল৷ এই নিয়ে মনোজ জানান, ‘‘আমি বোর্ডের নিয়ম অনুযায়ী কাজ করেছি ৷ দেবাং সাজঘরে শুশ্রুষা করাছিলেন৷ ক্রিকেটার বা দলের সাপোর্ট স্টাফরাই ড্রেসিংরুমে ঢুকতে পারেন ৷ তাই দুর্নীতি দমন শাখার আধিকারিকের কাছে বিষয়টি বলেছিলাম ৷’’

বিষয়টি নিয়ে জলঘোলা শুরু হতেই সিএবি হস্তক্ষেপ করে তড়িঘড়ি৷ বিবৃতি দিয়ে জানান, ম্যাচ বন্ধ থাকার সময় দেবাং ড্রেসিংরুমে যান৷ মেডিক্যাল কারণে কিছুক্ষণের জন্য ছিলেন৷ ACU ও ম্যাচ রেফারির অনুমতি নিয়েই ড্রেসিংরুমে যান৷ ফিজিও-র সঙ্গে কথা বলার পর সিএবির মেডিক্যাল ঘরে গিয়ে শুশ্রুষা করিয়ে নেন৷ পরে ঘনিষ্টমহলে দেবাং গান্ধিও নাকি বলেন তিনি সমস্ত প্রোটোকল মেনেই কাজ করেছেন৷ পিঠে একটা সমস্যা রয়েছে সেটা নিয়েই ফিজিও-র দারস্থ হন৷ এমনকি বাংলার কোচ অরুণলালের সঙ্গে কথা বলেই বাংলার ফিজিওর কাছে যান৷ এরপর বিতর্ক বেশি এগোয়নি৷ তবে ময়দানের ক্রিকেটমহলে অন্য গুঞ্জন৷ দীর্ঘদিন ধরেই মনোজ-দেবাং ঠাণ্ডা লড়াই চলছে৷ পারফর্ম করেও জাতীয় পর্যায় বারবার ব্রাত্য থাকতে হয়েছে মনোজকে৷ তাঁকে নির্বাচন না করার পিছনে নাকি নির্বাচনী বৈঠকে দেবাংয়ের নিরাবতাকেই দায়ী করেন৷ তাই সেই ঠাণ্ডা লড়াইয়ের ফল বুধবারের ঘটনা৷ অন্যদিকে সূর্যগ্রহনের প্রভাব পড়ল ইডেনের রণ্জি ম্যাচেও৷ দিনভর মেঘলা আকাশে বারবার বন্ধ হয় বাংলা-অন্ধ্রপ্রদেশ ম্যাচ৷ 289 রানে রমনরা অলআউট হওয়ার পর আর খেলা শুরু সম্ভব হয়নি৷

First published: December 26, 2019, 11:10 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर