• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • Ind vs Eng: চিপকে সিংহদের পুঁতে দিল টিম ইন্ডিয়া, জয় ৩১৭রানে, ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বড় জয়

Ind vs Eng: চিপকে সিংহদের পুঁতে দিল টিম ইন্ডিয়া, জয় ৩১৭রানে, ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বড় জয়

Photo Courtesy- BCCI/Twitter

Photo Courtesy- BCCI/Twitter

ফলে আহমেদাবাদে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ডে নাইট টেস্ট খেলার আগে সিরিজ দাঁড়াল ১-১৷

  • Share this:
    ভারত - ৩২৯, ২৮৬ ইংল্যান্ড- ১৩৪, ১৬৪

    #চেন্নাই:  

    প্রথম টেস্টে হারের মধুর প্রতিশোধ নিল ভারতীয় দল৷ দ্বিতীয় টেস্ট পকেটে পুরে ফেলল মাত্র সাড়ে তিনদিন৷ ব্রিটিশ সিংহদের নখ , দাঁত বার করার কোনও সুযোগই দিল না কোহলি অ্যান্ড কোং৷ ব্যাট ও বল হাতে কামাল পারফরম্যান্স রবিচন্দ্রন অশ্বিন৷ শতরান, দুটি ইনিংস মিলিয়ে 8 উইকেট ৷ সোনার পারফরম্যান্স ভারতের স্পিনিং অলরাউন্ডারের৷ পাশাপাশি কোহলি ব্রিগেড এই টেস্টে পুরো দল হিসেবে একেবারে সঠিক পারফরম্যান্স করাতেই এই ফলাফল৷ দ্বিতীয় ইনিংসে পাঁচ উইকেট পেলেন অকসর প্যাটেল৷ দীর্ঘদিন বাদে এই সিরিজে দলে সুযোগ পেয়েই নিজেকে উজাড় করে দিলেন তরুণ এই বোলার৷ ইংল্যান্ড অলআউট ১৬৪ রানে৷

    ফলে আহমেদাবাদে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ডে নাইট টেস্ট খেলার আগে সিরিজ দাঁড়াল ১-১৷

    মধ্যাহ্নভোজের বিরতির পর নেমেই প্যাভিলিয়নে ফিরলেন ইংলিশ অধিনায়ক জো রুট৷ তাঁর মাটি কামড়ে পড়ে থেকে লড়াইয়ের চেষ্টায় জল ঢেলে দিলেন অকসর প্যাটেল৷ দারুণ ক্যাচ অজিঙ্ক রাহানের৷ ইংল্যান্ড অধিনায়ক প্যাভিলিয়নে ফিরে যাওয়ায় জয় আর ও কাছে মনে করছে ভারতীয় থিঙ্ক ট্যাঙ্ক৷

    তৃতীয় দিনে যেখানে শেষ করেছিল ভারতীয় ক্রিকেট দল , চতুর্থ দিন সকালে চিপকে সেখান থেকেই শুরু করল বিরাট এন্ড কোং৷ ৩ উইকেটে ৫৩ রান থেকে শুরু করে মঙ্গলবার সকালে লাঞ্চের আগেই ইংল্যান্ডের স্কোর ১১৬ খুইয়ে বসে রয়েছে সাতটি উইকেট৷

    এই অবস্থায় ফের বল হাতে কামাল দউই ভারতীয় স্পিনারের৷ রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও অকসর প্যাটেলের৷ দুজনেই মধ্যাহ্ন ভোজের বিরতি অবধি তিনটি করে উইকেট নিয়েছেন৷ আর একটি উইকেট এবং ম্যাচের প্রথম উইকেটে পেয়েছেন কুলদীপ যাদব৷ তাঁর শিকার বেন ফোকস৷ একা কুম্ভ রক্ষা করে ধাঁচে উইকেটের একদিক আগলে রেখেছেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক জো রুট৷ তিনি ৩৩ করেছেন৷ আগের দিনের লরেন্সকে প্যাকআপ করেন অশ্বিন৷ ক্যাচ নেন ঋষভ পন্থ৷ তিনি করেছিলেন ২৬৷ এরপর শুধুই আয়ারাম -গয়ারামের চক্কর৷ কোনও ব্যাটসম্যানই ২ অঙ্কের রানে পৌঁছতে পারেননি৷

    নিঃশ্বাস যেন আটকে গেছে টিম ইংল্যান্ডের৷ জয়ের বিশাল ৪৮২ রান তাড়া করতে নেমে তৃতীয় দিনের শেষে ইংল্যান্ডের রান ৩ উইকেটে ৫৩ রান৷ ক্রিজে রয়েছেন জো রুট এবং ডন লরেন্স৷

    ইংল্যান্ডের ১৭ রানে প্রথম উইকেট হিসেবে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান ওপেনার সিবলে৷ অকসর প্যাটেল প্রথম উইকেট তুলে নেন৷ এরপর বল হাতে আঘাত হানেন অশ্বিন৷ দুরন্ত একশো রানের পর ফের বল হাতে নেমে বিপক্ষকে কেঁদে ছাড়াচ্ছেন তিনি৷ নাইট ওয়াচম্যানের আইডিয়াও ফ্লপ ইংল্যান্ডের ৷ নেমেই ফিরে যান লিচ৷

    ১০৬ রানে রবিচন্দ্রন অশ্বিন যখন আউট হলেন ততক্ষণে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের রান ২৮৬৷ জিততে গেলে ইংল্যান্ডকে করতে হবে বিশাল ৪৮২ রান৷  ভারতের লিড ৪৮১ রানের৷ অশ্বিনের অসামাণ্য ইনিংস ,বিরাটের দায়িত্বশীল ৬২৷ প্রথম ইনিংসে ১৯৫ রানের লিড৷ আর দ্বিতীয় ইনিংসে  রান সব মিলিয়ে একেবারে চিপকে চাপে ইংল্যান্ড৷ জয়ের জন্য রুটবাহিনীর প্রয়োজন  রান৷ বিরাটের সঙ্গে অশ্বিন যে খেলা শুরু করেছিলেন সেখান থেকে শিল্পের স্তরে খেলে দলকে একেবারে রানের চুড়োয় পৌঁছে দিলেন৷ কে বলবে যে সোমবারের শুরুটা হয়েছিল যখন তখন প্রথম এক ঘণ্টায় ৫ উইকেটে দলের স্কোর ছিল ৮৬৷  প্রথিতযশারা ফিরেছেন ৷ বিরাট লড়াই করতে শুরু করেন অশ্বিনের সঙ্গে৷ অশ্বিনের শতরান এদিন এসেছে মাত্র ১৩৯ বলে৷ তাঁর ইনিংস সাজানো ১৪ টি চার ও একটি ছয় দিয়ে৷

    অধিনায়ক বিরাট কোহলি অর্ধ শতরান করার কয়েক ওভারের মধ্যেই ফের এল অর্ধশতরান৷ বল হাতে একাই ব্রিটিশ সিংহের অর্ধেক দুর্গ ধ্বসিয়ে দেওয়ার পর ব্যাট হাতে  অর্ধশতরান৷ কোহলির সঙ্গে জুটিতে লুটি করে একেবারে ভারতকে চালকের আসনে বসিয়ে দিলেন অশ্বিন৷

    এদিন মাত্র ৬৪ বলে অর্ধশতরান করেন অশ্বিন৷ তাঁর ইনিংস সাজানো সাতটি চার দিয়ে৷

    তৃতীয় দিনের শুরুতে ভারতের পরপর কয়েকটা উইকেট তুলে নিয়ে প্রাথমিক একটা চাপ তৈরি করেছিল ইংলিশ বোলাররা৷ কিন্তু সেটাকে চাপের প্রেশার কুকারে পরিণত করতে ব্যর্থ তারা৷ উল্টে অধিনায়ক বিরাট কোহলি যেভাবে দায়িত্বশীল ইনিংস খেলে ইংল্যান্ডকে চাপের পাহাড়ের নিচে দাবিয়ে দিলেন তা নিঃসন্দেহে কুর্নিশযোগ্য৷

    এদিন বিরাট ১০৭ বলে অর্ধশতরান করেন, তাঁর ইনিংসে রয়েছে ৭ টি চার৷ বিরাট ৬২ রান করে আউট হয়ে যান৷ মইন আলি ও জ্যাক লিচ ৪ টি করেই উইকেট নিয়েছেন তিনি৷

    দ্বিতীয় দিনের শেষে ক্রিজে ছিলেন রোহিত শর্মা ও চেতেশ্বর পূজারা৷ কিন্তু রোহিত ২৭ ও পূজারা ব্যক্তিগত ৭ রানে আউট হন৷ কোহলি এরপর নিজের সঙ্গে খেলার জন্য দুরন্ত ফর্মে থাকা ঋষভ পন্থকে ব্যাটিং অর্ডারে ওপরে আনলেও সেই বাজি স্থায়ী হয়নি৷ উল্টে তিনিও ৮ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন৷

    অজিঙ্ক রাহানের সঙ্গে বিরাটের জুটিটা যখন জমবে জমবে মনে হচ্ছিল তখন মইন আলির শিকার জিঙ্কসও৷ তবে রবিচন্দ্রন অশ্বিন নিজের পরিচিত চেন্নাই পিচে একেবারে চিপকে গেলেন৷ অধিনায়ক বিরাটের সঙ্গে সহযোগিতায় তিনি এগিয়ে নিয়ে গেলেন দলের স্কোর হুইল৷

    দ্বিতীয় ইনিংস ভারতীয়দের উইকেটগুলি নেন লিচ ও মইন আলি৷

    এদিকে এর আগে দ্বিতীয় দিনের শেষে ভারতের স্কোর ১ উইকেটে ৫৪ রান৷ প্রথম ইনিংসে ১৯৫ রানে এগিয়ে থাকার সুবাদে এই মুহূর্তে লিড  ২৪৯৷ ইংল্যান্ডকে প্রথম ইনিংসে আটকে রাখার পর ভারতীয় ওপেনারদের একজন অবশ্য প্যাভিলিয়নে ফিরে গেছেন৷ তিনি শুভমান গিল৷ তিনি প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসেও ফ্লপ৷ দিনের শেষে ব্যাটিং ক্রিজে রয়েছেন রোহিত শর্মা ও চেতেশ্বর পূজারা৷ রোহিতের রান ২৫ ও পূজারা -র রান ৭৷

    ফলো অন করানোর সম্ভবনা হতে পারে এই বিপত্তিটা কোনওরকমে ঠেলে সরিয়ে দিলেও ইংল্যান্ড বেশিক্ষণ লড়াই করতে পারল না৷  চা বিরতিতে ৮ উইকেটে ১০৬-র ১৩৪ তে শেষ ব্রিটিশ সিংহদের জারিজুরি৷ চেন্নাইতে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট গেল অশ্বিনের ঝোলায়৷ এদিকে ইশান্ত , অকসর প্যাটেল ২ টি করে এবং মহম্মদ সিরাজ একটি উইকেট নেন৷ অশ্বিন মাত্র ৪৫ রান দিয়ে ৫ টি উইকেট নেন৷

    নবম উইকেটে ঋষভ পন্থের দুরন্ত ক্যাচের প্রশংসায় পঞ্চমুখ সকলেই৷

    চেন্নাইয়ের প্রথম টেস্টে হারের পর ভারতীয় দল কী ‘খেলা হবে’ মন্ত্রে দীক্ষা নিয়েছে৷ বিতর্ক অবশ্য বাইশ গজে না আনাই ভালো ৷ কারণ ভারতীয় দল প্রথম টেস্টের ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে দ্বিতীয় টেস্টে জবরদস্ত পারফরম্যান্স৷

    Published by:Debalina Datta
    First published: