• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • CRICKET IND VS ENG INDIA POST 346 FOR 7 TILL LUNCH IN DAY 2 DD

Ind vs Eng: দ্বিশতরানের স্বপ্ন অধরাই রাহুলের, পন্থ-জাদেজার ব্যাটে তিনশো পার

Ind vs Eng: India post 346/7 till lunch in day 2

ভরসা দিল পন্থ ও জাদেজার ব্যাট৷

  • Share this:

    ভারত -৩৪৬/৭

    #লন্ডন:  কে এল রাহুলের ঝকঝকে ব্যাট স্বপ্ন দেখাচ্ছিল ইংল্যান্ডের মাটিতে এই ব্যাটসম্যানের প্রথম দ্বিশতরানের৷ কিন্তু সেই স্বপ্ন অধরাই থেকে গেল৷ এদিন প্রথমদিনের ১২৭ -র আর মাত্র ২ রান যোগ করেই শেষ হয়ে যায় কেএল রাহুলের ব্যাটিং জাদু৷ ক্রিজে ছিলেন আরেক অভিজ্ঞ ক্রিকেটার অজিঙ্ক রাহানে৷ তিনি ব্যাট করছিলেন ১ রানে৷ এদিন তিনি ওই এক রানেই প্যাভিলিয়নে ফিরে যান৷ তিনি অ্যান্ডারসনের শিকার৷ অন্যদিকে কেএল রাহুলের উইকেট নেন রবিনসন৷ প্রথমেই দুটো বড় উইকেট তুলে নিয়ে বড় ধাক্কা দিয়েছে ইংল্যান্ড এমন যখন মনে হচ্ছিল তখন উইকেটে স্বচ্ছন্দ স্বাভাবিক ছন্দে ব্যাটিং করতে শুরু করেন তরুণ ঋষভ পন্থ এবং অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজা৷

    ৪ উইকেটে ২৭৮, ৫ উইকেটে ২৮২ -র পর পন্থ ও জাদেজা জুটি দলের রান অনেকটা বাড়িয়ে নিয়ে যান৷ পন্থ ৫৮ বলে ৩৭ এবং ৮৬ বলে ৩১ করেন জাদেজা৷ মূলত এঁদের ব্যাটিংয়ের সুবাদেই লাঞ্চের বিরতিতে ৭ উইকেটে ৩৪৬ রান করেছে ভারত৷

    এর আগে লর্ডসে প্রথমদিনে টস জিতে বল করার সিদ্ধান্ত নিয়ে তিনি যে ভুল করেছেন, তাতে সন্দেহ থাকার কথা নয় ইংলিশ অধিনায়ক জো রুটের। রোহিত এবং রাহুল ওপেনিং পার্টনারশিপ তুলল ১২৬ রান। যতক্ষণ রোহিত ছিলেন, নিজেকে গুটিয়ে রেখেছিলেন রাহুল। কিন্তু মুম্বইকর ফিরে যাওয়ার পর নিজের আসল দক্ষতার পরিচয় দিলেন কর্নাটকের ব্যাটসম্যান। অসাধারণ ব্যাটিং।

    নিখুঁত ফুটওয়ার্ক, দুরন্ত কভার ড্রাইভ, কভারের ওপর দিয়ে ছক্কা। রাহুল এদিন একাই একশো। দীর্ঘদিন বাইরে বসে থাকতে থাকতে হতাশ হয়ে পড়েছিলেন। কিন্তু নটিংহ্যাম টেস্টে ৮৪ করেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ফর্মে ফেরার। আর ক্রিকেটের মক্কায় শতরান করে নিজের জায়গা অনেকটা শক্ত করলেন।

    নটিংহ্যাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে যেভাবে ব্যাট করা শুরু করেছিলেন তিনি, দেখে মনে হয়েছিল বড় রান করবেন। কিন্তু রবিনসনের বলে পুল করতে গিয়ে ৩৬ করে আউট হয়েছিলেন রোহিত শর্মা। পরের সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছিলেন সুযোগ হলে ওই রকম বল পেলে আবার মারবেন। কারণ পুল তাঁর প্রিয় শট। অতীতে ওই শটে প্রচুর রান পেয়েছেন। তাই আউট হলেও ঝুঁকি নিতে পিছপা হবেন না। বৃহস্পতিবার থেকে লর্ডস টেস্টে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই আত্মবিশ্বাসী ছিলেন হিটম্যান।

    বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ধৈর্য দেখালেন প্রথমদিকে। উইকেটে সেট হলেন। তারপর নিজের স্বাভাবিক শট খেলতে দেখা গেল তাঁকে। লেট খেললেন, অ্যান্ডারসন, উড, মইন আলিদের বিরুদ্ধে সঠিক রণনীতি নিয়ে এগোতে লাগলেন। উডের বলে পুল করে মারা ছক্কা দিনের সেরা শট। উল্টোদিকে কে এল রাহুল একদিক ধরে রইলেন। ম্যাচের পরিস্থিতি অনুযায়ী এটাই ছিল সঠিক প্ল্যান।

     প্রশংসা করতে হবে দুই ভারতীয় ওপেনারের। বৃষ্টির কারণে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই মধ্যাহ্নভোজ বিরতি নিতে হয়। তবে এদিন রোহিত শর্মার ব্যাটিংয়ের সবচেয়ে বড় প্লাস পয়েন্ট মাত্র একবার ছাড়া সেভাবে সুযোগ দেননি বিপক্ষকে। মনে হচ্ছিল নিশ্চিত শতরানের দিকে এগোচ্ছেন। কিন্তু নিজের দ্বিতীয় স্পেলে অ্যান্ডারসন একটা দুর্দান্ত ডেলিভারিতে ফিরিয়ে দিলেন রোহিতকে। ব্যাক অফ লেন্থ স্পটে পড়ে বলটা অনেকটা ভেতরে ঢুকে এল। নাড়িয়ে দিল উইকেট। দুর্দান্ত বলটার জবাব ছিল না ভারতীয় ওপেনারের কাছে। ৮৩ করে ফিরে গেলেন হিটম্যান।

    চেতেশ্বর পুজারা এদিনও ব্যর্থ। অ্যান্ডারসনের বলে ফিরে গেলেন ৯ রান করে। অধিনায়ক বিরাট কোহলি যতক্ষণ ছিলেন, রান তোলার চেষ্টা করলেন। তবে রবিনসনের বলে স্লিপে রুটের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেলেন ৪২ করে। নামলেন রাহানে। দিনের বাকি সময়টা রাহুল এবং রাহানের উইকেট না হারিয়ে ফিরে আসা টার্গেট ছিল। সেটাই করলেন তাঁরা। দেখে মনে হচ্ছে ভারত একটা ইনিংস ব্যাট করে অন্তত ৪৫০ রান তুলতে চাইবে।

    Published by:Debalina Datta
    First published: