• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • জল্পনার অবসান! বাংলা ক্রিকেট দলের কোচ থাকছেন অরুণলালই

জল্পনার অবসান! বাংলা ক্রিকেট দলের কোচ থাকছেন অরুণলালই

বোর্ডের ‘এসওপি’ মেনেই ভবিষ্যত পরিস্থিতির ওপর নজর সিএবির৷

বোর্ডের ‘এসওপি’ মেনেই ভবিষ্যত পরিস্থিতির ওপর নজর সিএবির৷

বোর্ডের ‘এসওপি’ মেনেই ভবিষ্যত পরিস্থিতির ওপর নজর সিএবির৷

  • Share this:

#কলকাতা: জল্পনার অবসান। বাংলা ক্রিকেট দলের কোচ পরিবর্তন হচ্ছে না। আপাতত অরুণলাল থাকছেন অভিমুন্য, মনোজদের দায়িত্বে। বোর্ডের পাঠানো স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসেডিওর মেনেই এরকম সিদ্ধান্ত সিএবির। কোভিড পরিস্থিতে বিসিসিআইয়ের সমস্ত রকম স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন বঙ্গ ক্রিকেটের কর্তারা। তবে রবিবার রাত থেকে সোমবার দিনভর অরুণলালের কোচ থাকা নিয়ে জল্পনা জারি ছিল। বোর্ডের পাঠানো এসওপি(SOP) অনুযায়ী নির্দেশ দেওয়া হয় ৬০  বছরের বেশি কোনও ব্যক্তি ক্রিকেট দলের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারবেন না। বিশেষ করে যাঁদের ডায়াবেটিস, ফুসফুসে সমস্যা এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তাঁরা কোনও শিবিরের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারবেন না।  কারণ তাঁদের করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। কোচ, সাপোর্ট স্টাফ, আম্পায়ার, গ্রাউন্ড স্টাফদের জন্যও এই নিয়ম প্রযোজ্য। তাই সরকারি নির্দেশ ছাড়া কোনও শিবিরের সঙ্গে এই সমস্ত ব্যক্তি যুক্ত থাকতে পারবেন না।’’

এই নির্দেশিকার পরেই জল্পনা শুরু হয় বাংলার ক্রিকেটমহলে। বাংলা সিনিয়র দলের কোচ অরুণলালের বয়স ৬৫ বছর। এমনকি লালজি ক্যান্সারের মতো ব্যাধি থেকে সুস্থ হয়েছেন। ফলে তাঁর প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তাই বাংলার কোচের পদে তাঁর থাকা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়। এমনকি ইডেনের পিচ কিউরেটর সুজন মুখোপাধ্যায় ৬০ পেরিয়ে গেছেন। বছর খানেক আগে তাঁর স্টেন বসেছে। ফলে নির্দেশ অনুযায়ী তিনি পিচ কিউরেটর হিসেবে কাজ চালিয়ে যেতে পারবেন কি না প্রশ্ন তৈরি হয়। অরুণলাল অথবা সুজনকে কি আদৌ আর মাঠে দেখা যাবে? একই প্রশ্ন উঠেছে প্রণব রায় এবং প্রণব নন্দীর ক্ষেত্রে। বাংলার অনূর্ধ্ব ১৬ এবং অনূর্ধ্ব ১৯ দলের দায়িত্বে রয়েছেন এই দুই প্রাক্তন ক্রিকেটার। দুই ক্রিকেটারের বয়স ৬০  বছর পেরিয়ে গেছে।

 তবে সিএবি প্রেসিডেন্ট অভিষেক ডালমিয়া এই জল্পনায় যবনিকা টেনে দেন। নিউজ18 বাংলাকে অভিষেক জানান, "সিএবি সমস্ত সরকারি এবং বোর্ডের নির্দেশিকা মেনে চলবে। নির্দেশ অনুযায়ী অনুশীলনে ৬০ বছরের কোনও ব্যক্তি থাকতে পারবেন না। আমরা সেটাই মেনে চলবো। আগামী কয়েক মাস কোনও টুর্নামেন্ট নেই। দল এখনই মাঠে অনুশীলনে নামছে না। ফিজিক্যাল ট্রেনিং এবং জিম করবেন ক্রিকেটাররা। অনলাইনে ক্লাস চলবে। তাই অরুণলালদের নিয়ে যে জল্পনা তা এই মুহূর্তে ঠিক নয়। আপাতত লালজি সহ ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তিরা বাংলা দলের কোচ থাকছেন। বাড়ি থেকেই প্রত্যেকে কাজ চালিয়ে যাবেন অনলাইনে। কয়েক মাস পরে যদি পরিস্থিতির উন্নতি হয় তাহলে নির্দেশিকা পরিবর্তিত হবে। তাই এখনই কোচ বদলের সিদ্ধান্ত নিচ্ছি না আমরা।"

এদিকে অরুণলালও এই নির্দেশিকা নিয়ে বেশি ভাবতে নারাজ। উল্টে ৬০ বছরের এই নিয়ম নিয়ে প্রশ্ন তোলেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার। ফোনে অরুণলাল বলেন, "সিএবি বিষয়টা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। তবে ৬০  বছরটা কি করে মাপকাঠি হলো সেটা বুঝতেে পারছি না। ৫৯ বছরে ফিট এবং ৬০ বছরে আনফিট? আমার কোচিং করতে কোনও সমস্যা নেই।"

ERON ROY BURMAN

Published by:Debalina Datta
First published: