• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • BENGAL UMPIRES HOPEFUL AFTER BCCI ANNOUNCED GRADE SYSTEM FOR BOARD UMPIRES

বিসিসিআই গ্রেড সিস্টেম চালু করায় আশায় বাংলার আম্পায়াররাও

Representational Image

রঞ্জি বা আইপিএলের দৌড়ে এলিট লিস্টে বরাবরই পিছনের সারিতে থাকেন বাংলার আম্পায়াররা। তবে নয়া গ্রেড সিস্টেমে সেই বঞ্চনা কাটবে বলেই আশাবাদী বঙ্গজ আম্পায়ররা।

  • Share this:

    #কলকাতা: কোহলিরা প্রচার পান। মোটা পারিশ্রমিকও। কিন্তু ওঁরা থেকে যান অন্তরালে। অবশেষে অবস্থা পাল্টাচ্ছে আম্পায়ারদের। ঘরোয়া ক্রিকেটের সূচিতে রেকর্ড সংখ্যক ম্যাচ বাড়তেই নিঃশব্দ বিপ্লব। বাড়ছে আম্পায়ারদের ম্যাচ ফি। চালু হচ্ছে বিরাট-ধোনিদের মতই নয়া গ্রেডেশন।

    কোহলিদের গ্রেডেশনে বিপ্লব এসেছে। এক লাফে বেড়েছে চুক্তির অঙ্ক, ম্যাচ-ফি। অবশেষে আম্পায়ারদের দিকেও দৃষ্টি দিল বোর্ড। এবার আম্পায়ারদের জন্যও গ্রেড সিস্টেম আনছে বিসিসিআই। ম্যাচ ফি বেড়ে এখন থেকে প্রথম শ্রেণির খেলায় আম্পায়ারদের পারিশ্রমিক দৈনিক ৪০ হাজার টাকা। আগের থেকে দ্বিগুণ। তবে এবার থেকে ইচ্ছেমত ম্যাচ প্রত্যাখ্যান করতে পারবেন না আম্পায়াররা। ৩টির বেশি ম্যাচ প্রত্যাখ্যান করলে সেই মরশুমে আর ম্যাচ পাবেন না সংশ্লিস্ট আম্পায়ার। আগে শুধুমাত্র ম্যাচ রেফারিরাই আম্পায়ারদের নম্বর দিতেন। এখন আম্পায়াররাও সেই সুযোগ পাবেন।

    গতবার বোর্ডের প্যানেলে ছিলেন ৯৭ জন আম্পায়ার। এবার ঘরোয়া ক্রিকেটের নতুন ফর্ম্যাটে বছরভর থাকছে ২২১৭টি ম্যাচ। কিন্তু এত ম্যাচ পরিচালনা করতে আম্পায়ার কোথায় ? তাই প্যানেলে নতুন আম্পায়ার টানতে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। গত সপ্তাহেই আম্পায়ারদের বিশেষ কর্মশালার আয়োজন করেছিল বোর্ড। যেখানে ছিলেন বাংলার কয়েকজন আম্পায়ার।

    রঞ্জি বা আইপিএলের দৌড়ে এলিট লিস্টে বরাবরই পিছনের সারিতে থাকেন বাংলার আম্পায়াররা। তবে নয়া গ্রেড সিস্টেমে সেই বঞ্চনা কাটবে বলেই আশাবাদী বঙ্গজ আম্পায়ররা।

    রিপোর্টার: ঈরণ রায় বর্মন

    First published: