বিরাট, রোহিতদের করোনা ঠেকাতে অভিনব উদ্যোগ বিসিসিআইয়ের

বোর্ডের নতুন সিদ্ধান্তে বাড়িতেই তিনবার করোনা পরীক্ষা হবে ক্রিকেটারদের

ইংল্যান্ড যাওয়ার আগে কোনওরকম ফাঁক রাখতে চাইছে না বিসিসিআই। ২ জুন ইংল্যান্ডের বিমানে ওঠার আগে করোনা সংক্রমণ থেকে ক্রিকেটারদের দূরে রাখার সবরকম ব্যবস্থা করার চেষ্টা করছে ভারতীয় বোর্ড

  • Share this:

    #মুম্বই: ইংল্যান্ড সফরের আগে প্রচণ্ড সাবধানে এগোতে চাইছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। যদিও বোর্ড আগেই পরিষ্কার করে দিয়েছিল ইংল্যান্ডের বিমানে ওঠার আগে কোনও ক্রিকেটার কোভিড পজিটিভ হলে তাঁকে ছাড়াই রওনা দেবে দল, কিন্তু পাশাপাশি এটাও সত্যি খুব গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার আক্রান্ত হলে তাঁকে ছেড়ে যাওয়াটা সহজ হবে না। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ এবং ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ খুবই গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে টিম ইন্ডিয়ার কাছে। ইংল্যান্ডের মাটিতে ভাল পারফর্ম করা যতটা বড় চ্যালেঞ্জ, তার থেকে কোনও অংশে কম নয় দেশের মাটিতে ক্রিকেটারদের করোনা আক্রান্ত না হতে দেওয়া। তাই প্রায় বজ্র আঁটুনি করতে চাইছে বোর্ড।

    ইংল্যান্ড যাওয়ার আগে কোনওরকম ফাঁক রাখতে চাইছে না বিসিসিআই। ২ জুন ইংল্যান্ডের বিমানে ওঠার আগে করোনা সংক্রমণ থেকে ক্রিকেটারদের দূরে রাখার সবরকম ব্যবস্থা করার চেষ্টা করছে ভারতীয় বোর্ড। একাধিক ক্রিকেটার করোনা আক্রান্ত হওয়ায় আইপিএল স্থগিত করে দিতে হয়েছে । ইংল্যান্ডের বিমান ধরার আগে তেমন কিছু ঘটতে দিতে রাজি নয় বোর্ড। সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বোর্ডের এক কর্তা বলেন, “বাড়িতেই ৩ বার আরটিপিসিআর পরীক্ষা করা হবে ক্রিকেটারদের। ১৯ মে-র মধ্যে সব ক্রিকেটারকে মুম্বইয়ে আসতে হবে। ১৪ দিনের জন্য নিভৃতবাসে যেতে হবে সবাইকে।”

    ইংল্যান্ড সফরে ভারতীয় দলের সঙ্গে যুক্ত প্রায় সকলেই টিকার প্রথম ডোজ নিয়ে নিয়েছেন। ইংল্যান্ডে গিয়ে দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার কথা তাঁদের। সেই কর্তা বলেন, “কেন্দ্রীয় সরকার ১৮ বছরের উপরে সকলের জন্য টিকার অনুমতি দিয়েছে। ক্রিকেটাররা সকলেই প্রথম ডোজ নিয়েছে। ইংল্যান্ডের সরকারের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে দ্বিতীয় ডোজের জন্য।” ইতিমধ্যেই অধিনায়ক বিরাট কোহলি থেকে শুরু করে রাহানে, পন্থ, গিল, উমেশ যাদব এবং আরও কয়েকজন ভ্যাকসিন নিয়ে নিয়েছেন। বাকিরা একে একে নেবেন।

    বাড়িতে করোনা পরীক্ষা করে নেওয়ার পেছনে কারণ, যদি কেউ পজিটিভ হন, তাহলে সেই অনুযায়ী তাঁর চিকিৎসা করা যাবে। সময় থাকবে সুস্থ হয়ে ওঠার। এমনিতে বাড়িতেও নির্দিষ্ট গাইডলাইন মেনে রয়েছেন ক্রিকেটাররা। প্রত্যেকেই জানেন এই সময়টা সাবধানে থাকতে হবে। পজিটিভ হলে নিজের তো বটেই, দলের ক্ষেত্রেও বিরাট ক্ষতি হয়ে যাবে। ফিট থাকার জন্য নিয়মিত বাড়িতে শরীরচর্চা করছেন প্রত্যেকে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: