• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • ঘরোয়া ক্রিকেট আয়োজন নিয়ে অনিশ্চয়তায় ভুগছে বিসিসিআই! টুর্নামেন্ট আয়োজনে প্রস্তুত সিএবি

ঘরোয়া ক্রিকেট আয়োজন নিয়ে অনিশ্চয়তায় ভুগছে বিসিসিআই! টুর্নামেন্ট আয়োজনে প্রস্তুত সিএবি

ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করার ব্যাপারে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না বোর্ড।

ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করার ব্যাপারে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না বোর্ড।

ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করার ব্যাপারে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না বোর্ড।

  • Share this:

#কলকাতা: শেষের পথে ২০২০। বছরের শেষ মাস ডিসেম্বর শুরু হয়ে গেছে। করোনা পরিস্থিতিতে জেরবার এই বছর। কঠিন পরিস্থিতি সামলে আস্তে আস্তে নতুন বছরের শুরু থেকেই স্বাভাবিক হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন প্রত্যেকেই। তবে এই পরিস্থিতিতে এখনই কোনও নতুন আসা দেখাতে পাচ্ছে না ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট শুরু হয়ে গেল বোর্ড পরিচালিত ঘরোয়া ক্রিকেট কবে থেকে শুরু হবে তা নিয়ে কোনও সদুত্তর নেই কর্তাদের মুখে। প্রাথমিকভাবে ঠিক হয়েছিল নতুন বছরের জানুয়ারি মাস থেকে শুরু হবে টুর্নামেন্ট। সৈয়দ মোস্তাক আলী টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট দিয়ে ঘরোয়া মরশুমে শুরু হওয়ার কথা। তবে এখনও এই নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি বিসিসিআই। কয়েকদিন আগে বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ইঙ্গিত দিয়ে বলেছিলেন, "নতুন বছরের শুরু থেকে ঘরোয়া টুর্নামেন্ট শুরু হবে।" কিন্তু কী ভাবে? কোন কোন প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হবে তার কোনও সঠিক দিশা দিতে পারেননি সৌরভ। আসলে করোনা পরিস্থিতি এখনও উদ্বেগজনক ভারতে। মাঝেমধ্যেই স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত একাধিক নিয়ম পরিবর্তন হচ্ছে। তাই ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করার ব্যাপারে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না বোর্ড। এই অবস্থায় গত শনিবার দেশের ৩৮টি রাজ্য ক্রিকেট সংস্থার কাছে বোর্ডের পক্ষ থেকে একটি ইমেল পাঠানো হয়। সেই চিঠিতে ঘরোয়া ক্রিকেট নিয়ে প্রত্যেক সংস্থার মনোভাব স্পষ্ট করার কথা বলা হয়েছে।

মঙ্গলবারের মধ্যে প্রত্যেককে উত্তর দিতে বলা হয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ২০টির বেশি রাজ্য ক্রিকেট সংস্থা বোর্ডের কাছে তাদের মনোভাব স্পষ্ট করে চিঠি দিয়েছে। তবে অনেকেই এখনও জবাব দেয়নি। নিজের মনোভাব স্পষ্ট করে বোর্ডকে চিঠি পাঠিয়ে দিয়েছে সিএবি। প্রেসিডেন্ট অভিষেক ডালমিয়া জানান, "ক্রিকেটের প্রচার এবং প্রসারের জন্য সবসময় তৈরি আমরা। নিউ নর্মালে জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরি করে কী করে টুর্নামেন্ট করতে হবে সেটা আমরা জানি। ফলে বোর্ড মনে করলে কলকাতায় ঘরোয়া ক্রিকেটের ম্যাচ দিতেই পারে।" তবে সিএবির মত পরিকাঠামো অনেক রাজ্য সংস্থার কাছে নেই। তাই সমস্ত সংস্থার মনোভাব বুঝে তারপর সিদ্ধান্ত নেবে বোর্ড। তবে প্রাথমিক যে সমস্যা তৈরি হয়েছে তা হল কোনও টুর্নামেন্ট দিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট মরশুম শুরু হবে। টি-টোয়েন্টি ও রঞ্জি ট্রফি হওয়ার কথা। তবে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরি করে কী করে টুর্নামেন্ট করা সম্ভব তা নিয়ে এখনও ধোঁয়াশাতে বিসিসিআই। এমনকি বিজয় হাজারে ট্রফি দেওধর ট্রফি, দলীপ ট্রফি আদৌ আয়োজন করা সম্ভব হবে কিনা তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। তবে একটা জিনিস স্পষ্ট ঘরোয়া ক্রিকেট মরশুম শুরু হলেও তা খুব সংক্ষিপ্ত আকারে হবে। অর্থাৎ বেশ কিছু টুর্নামেন্ট বাতিল হবে।

বোর্ড সূত্রে খবর, বেশিরভাগ রাজ্য সংস্থাই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট আয়োজন করার ব্যাপারে মত প্রকাশ করেছেন। মূলত দুটি কারণ মাথায় রেখে এই মতপ্রকাশ। প্রথমত ২০২১ থেকে আইপিএলে দলের সংখ্যা বাড়বে। সে ক্ষেত্রে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট থেকে নতুন তারকা উঠে আসবে। দ্বিতীয়ত আগামী বছর ভারতের মাটিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজিত হবে। সে ক্ষেত্রে ক্রিকেটাররাও প্রস্তুতি একটা সুযোগ পাবে। বিশ্বকাপের জন্য নতুন তারকা পাওয়াও সম্ভব। তবে এসবের মাঝে ঐতিহ্যশালী রঞ্জি ট্রফির ভবিষ্যত নিয়ে ধোঁয়াশা থেকেই যাচ্ছে।

ঈরণ রায় বর্মন

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: