Home /News /sports /
Shakib Al Hasan: মানসিকভাবে সুস্থ নন সাকিব, পদ্মাপারের অলরাউন্ডারকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত বিশ্রাম দিল বিসিবি

Shakib Al Hasan: মানসিকভাবে সুস্থ নন সাকিব, পদ্মাপারের অলরাউন্ডারকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত বিশ্রাম দিল বিসিবি

বিশ্রামে সাকিব৷

বিশ্রামে সাকিব৷

বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বেশি জলঘোলা করতে চায় না। তবে সাকিবের এই সিদ্ধান্তে যে তারা সন্তুষ্ট নয় তা পরিষ্কার (Shakib Al Hasan rested)।

  • Share this:

#ঢাকা: শারীরিক এবং মানসিকভাবে ক্রিকেট খেলার জন্য প্রস্তুত নন সাকিব আল হাসান (Shakib Al Hasan)। পদ্মাপারের অলরাউন্ডারকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত সব ধরনের খেলা থেকে বিশ্রাম দিল বাংলাদেশ (Bangladesh) ক্রিকেট বোর্ড।

দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের জন্য বিসিবি দল ঘোষণার পরে সাকিব জানিয়েছিলেন, তিনি ওই সফরে যেতে আগ্রহী নন। আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে হোম সিরিজ খেলার পর বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সাকিব জানিয়েছিলেন, "আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার জন্য আমি মানসিক ও শারীরিকভাবে প্রস্তুত নই।"

আরও পড়ুন: মাঠে কুকুর ঢুকলে এবার 'এই' কাজ করবেন আম্পায়ার! ক্রিকেটের নিয়মে বড় বদল

তার পরেই বিসিবি সাকিবকে বিশ্রাম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের এই সিদ্ধান্তের ফলে আগামী এক মাসেরও বেশি সময় সাকিব আল হাসানকে কোনও আন্তর্জাতিক সিরিজের জন্য বিবেচনা করা হবে না। বুধবার বিসিবির পক্ষ থেকে সাকিবের বিশ্রামের খবরটি জানানো হয়।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের অপারেশন্সের প্রধান জালাল ইউনুস সংবাদ সম্মেলনে বলেন, "সাকিব আল হাসান যেহেতু বলছেন তিনি শারীরিক ও মানসিকভাবে প্রস্তুত নন, তাই তাঁকে বিশ্রাম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।"

তবে আগে থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে সাকিব এসব বিষয়ে কিছু না জানালেও বিজ্ঞাপনের কাজে দুবাই যাওয়ার আগে বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের সামনে তিনি তাঁর সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছিলেন। এর পরেই প্রশ্ন উঠছে সাকিব আল হাসানের এরকম সিদ্ধান্তের কারণ নিয়ে। ক্রিকেট থেকে ছুটি নেওয়ার বিষয়টি মিডিয়ার মাধ্যমে জানতে পারেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কর্তারা।

বিসিবি ক্রিকেট অপারেশন্সের প্রধান বলেন, "সাকিব আমাদের সাথে কথা বলতে পারতো। ও প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপনকে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ খেলার ব্যাপারে সম্মতি জানিয়েছিল। কিন্তু আজ সাকিব জানিয়েছে ও মানসিকভাবে পুরোপুরি ফিট নয়।"

যদিও বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বেশি জলঘোলা করতে চায় না। তবে সাকিবের এই সিদ্ধান্তে যে তারা সন্তুষ্ট নয় তা পরিষ্কার। জালাল ইউনুস আরও জানান, "সাকিব আমাদের গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটারদের একজন। ফলে তিনি নিজেই যখন তাঁর মানসিক অবস্থার বিষয়টি বলেছে সেটাকে আমরাও গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। তবে আমরা চাই এইসব বিষয়গুলি নিয়ে সাকিব আমাদের সঙ্গে আগে কথা বলুক। মিডিয়ার সঙ্গে নয়।একজন ক্রিকেটার যখন শারীরিক ও মানসিক অসুস্থতার কথা উল্লেখ করেন, কখন তাঁকে জোর করার কোনও কারণ নেই।"

আরও পড়ুন: পুরনো সিংহাসনে ফিরলেন 'রাজা' জাদেজা, টেস্টে বিশ্বসেরা এখন জাড্ডু

তবে সাকিব আল হাসানের এই রকম সিদ্ধান্তকে যে বোর্ড ভালো চোখে দেখছে না তা স্পষ্ট করে দেন জালাল ইউনুস। তিনি বলেন, দলে আরও ক্রিকেটার আছেন, তাঁদের কাছে ভালো  বার্তা যাচ্ছে না। আমরাও চাই সিনিয়র ক্রিকেটাররা যাতে আরেকটু দায়িত্বশীল আচরণ করেন।"

প্রসঙ্গত, এর আগেও বেশ কয়েকটি সফরের আগে সাকিব ছুটি চেয়েছিলেন। ২০১৭ সালের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর, ২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ড সফর, ২০২১ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ এবং চলতি বছর নিউজিল্যান্ডে দলের সঙ্গে যাননি সাকিব আল হাসান।

জালাল ইউনুস বলেন, "সাকিব আগে ফিরুক, তার পর আমাদের সঙ্গে বসবে সাকিব। তাঁর থেকে আমরা পরিকল্পনার কথা শুনবো সেই অনুযায়ী আমরা পরের সিদ্ধান্ত নেব।" এ দিকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত সাকিবকে ছুটি দেওয়ার কারণ হিসেবে বলা হয় সামনে শ্রীলঙ্কা সিরিজ আছে। তা মাথায় রেখেই এই তারিখটি বেছে নেওয়া হয়েছে।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Bangladesh, Shakib Al Hasan

পরবর্তী খবর