Home /News /sports /
Bangla News: মা-বাবার সংসার চলে দিনমজুরিতে, প্যারা ন্যাশনালে গোল্ড জয় করে নজির সাকিনার!

Bangla News: মা-বাবার সংসার চলে দিনমজুরিতে, প্যারা ন্যাশনালে গোল্ড জয় করে নজির সাকিনার!

প্যারা ন্যাশনালে গোল্ড সাকিনা খাতুনের

প্যারা ন্যাশনালে গোল্ড সাকিনা খাতুনের

শুরু হয় দাঁতে দাঁত চেপে কঠোর অনুশীলন। তারপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি সাকিনাকে (Bangla News)।

  • Share this:

    #উত্তর ২৪ পরগনা: প্রতিবন্ধকতা যে কখনই সাফল্যের ক্ষেত্রে বাধা হতে পারে না, তা আরও একবার প্রমাণ করলেন বাংলার এই মেয়ে (Bangla News)। বসিরহাট মহকুমার কোড়াপাড়া গ্রামে কৃষক পরিবারের মেয়ে বছর ৩২ এর সাকিনা খাতুন (North 24 Parganas News)৷ মাত্র দেড় বছর বয়সে তিনদিনের জ্বরে পোলিও রোগে আক্রান্ত হয়েছিল। তারপর কোমর থেকে পা পর্যন্ত বিকলাঙ্গ হয়ে যায় সাকিনা৷

    আরও পড়ুন : বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কের জের! রাতের অন্ধকারে স্ত্রীর প্রেমিককে দেখামাত্র যা করে বসলেন স্বামী... হতবাক এলাকাবাসী!

    সাকিনারা এক ভাই ও তিন বোন৷ পরিবারের সেজো মেয়ে সে৷ বাবা সিরাজুল গাজী ও মা নুরজাহান বিবি। অন্যের জমিতে দিনমজুরি খেটে, মেয়েকে সুস্থ করার চেষ্টা করলেও তা বিফলে যায় তাঁদের। তবে তারপরও থেমে থাকেননি সাকিনার বাবা-মা। মেয়েকে (Bangla News) নিয়ে দু চোখে স্বপ্ন ছিল বাবা-মা র। চেয়েছিলেন, মেয়ে এমন কিছু করে দেখাক যাতে বাংলার নাম উজ্জ্বল হয়৷ বাবা-মা-র সেই সাধ পূরণ করতেই প্রতিবন্ধী সাকিনা শপথ নেন দশ জনের মাঝে, নিজেকে কিছু করে দেখাবার।

    আরও পড়ুন : তিনি 'বিহারীবাবু' নন! পাণ্ডবেশ্বরে প্রচারে নিজের 'নতুন' পরিচয় দিলেন শত্রুঘ্ন সিনহা

    শুরু হয় দাঁতে দাঁত চেপে কঠোর অনুশীলন। তারপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি সাকিনাকে (Bangla News)। ২০১৪ সালে কমনওয়েলথ গেমসে ব্রঞ্চ পদক জয় করেন সাকিনা। ২০১৮ সালে এশিয়া গেমস- এ ব্রোঞ্জ পায় সে (North 24 Parganas News)। ২০২১ সালে করোনা মহামারীর মধ্যেও থেমে থাকেনি সাকিনা। লড়াইতে নেমেছিল সে। জাপানের টোকিওতে প্যারা অলিম্পিকে পঞ্চম স্থান দখল করেন বাংলার এই মেয়ে ৷

    ২০২২ সালে চলতি মাসে প্যারা ন্যাশনাল অনুষ্ঠিত হয় সল্টলেকের সাইতে। সেখানে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ১৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যে জাতীয় স্তরে গোল্ড মেডেল পায় বসিরহাটের হতদরিদ্র পরিবারের প্রতিবন্ধী মেয়ে সাকিনা৷ সাকিনার এখন মূল লক্ষ্য ২০২৪ - এ ফ্রান্সের প্যারা অলিম্পিক্সে অংশগ্রহণ করার। এখন থেকেই প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন সে৷

    ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে তাকে একটি সরকারি ঘর ও কোড়াপাড়া গ্রামে সাকিনার নামাঙ্কিত একটি পিচের রাস্তা করে দেওয়া হয়েছে (North 24 Parganas News)। সাকিনা জানালেন, "ইচ্ছা শক্তি নিয়ে এগিয়ে আজ আমি সফল হয়েছি। আমার মত যারা পিছিয়ে রয়েছে, তারাও এগিয়ে আসুক। একদিন তারাও সফল হবে। শুধু দরকার মনের সাহস।" মেয়ের এই সাফল্যে রীতিমতো গর্বিত সাকিনার পরিবার। মেয়ের কথা বলতে গিয়ে রীতিমতো চোখ ছল ছল অবস্থা বাবা মারও। এলাকার মেয়ের এই সাফল্যে গর্বিত বসিরহাটের বাসিন্দারাও। করোনা মহামারীর কারণে কিছুটা পিছিয়ে গেলেও, লক্ষ্য পূরণে এখন রাত দিন অনুশীলন করে চলেছেন প্রতিবন্ধী সাকিনা খাতুন।

    রুদ্র নারায়ণ রায়

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published:

    Tags: Bangla News

    পরবর্তী খবর