ধরাছোঁয়ার বাইরে বিরাট, কেন বললেন ওয়ার্নার ?

বিরাটের সঙ্গে লড়াই করা অসম্ভব বলছেন ওয়ার্নার

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এই মুহূর্তে বিরাটের শতরানের সংখ্যা ৭০। বর্তমান প্রজন্মের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন এই অজি ওপেনার। ওয়ার্নারের ঝুলিতে রয়েছে ৪৩টি শতরান

  • Share this:

    #সিডনি: সবার ওপরে বিরাট সত্য, তাহার ওপর নাই। এটাই বক্তব্যের মূল বিষয়বস্তু। অনেকেই বলবেন আইপিএল খেলে ভারতে অর্থ রোজগার করতে আসেন বলেই হয়তো এমন কথা বলছেন ডেভিড ওয়ার্নার। সেটা অবশ্য তর্কসাপেক্ষ। অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার বিখ্যাত তাঁর আক্রমনাত্মক ব্যাটিংয়ের জন্য। এবারের আইপিএলে সময়টা ভাল যায়নি। অধিনায়কত্ব থেকে সরানো হয়েছে, এমনকি ম্যাচেও বাদ পড়তে হয়েছিল। সেসব নিয়ে অবশ্য ভাবিত নন তিনি। আর মুখের ওপর বরাবর সত্যি কথা বলতে পছন্দ করেন। বাইশ গজের যুদ্ধে একে অন্যের প্রতিপক্ষ। তবে ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলির প্রতি যে তাঁর অগাধ সম্মান সেটা ফের একবার বুঝিয়ে দিলেন ডেভিড ওয়ার্নার।

    সেটা তাঁর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে চোখ রাখলেই বোঝা যায়। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এই মুহূর্তে বিরাটের শতরানের সংখ্যা ৭০। বর্তমান প্রজন্মের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন এই অজি ওপেনার। ওয়ার্নারের ঝুলিতে রয়েছে ৪৩টি শতরান। আর তাই এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান মনে করেন বিরাট সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গিয়েছেন। বর্তমান প্রজন্মের ব্যাটসম্যানদের এই তালিকায় বিরাট এবং ওয়ার্নারের পরে আছেন ক্রিস গেল, রোহিত শর্মা, রস টেলর, স্টিভ স্মিথ, কেন উইলিয়ামসন, জো রুট, শিখর ধওয়ন ও ফ্যাফ ডু’প্লেসি।

    যদিও বাকিরা ভারত অধিনায়কের থেকে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছেন। তাই ওয়ার্নার তাঁর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে লিখেছেন, ‘সত্যটা মেনে নেওয়া উচিত। বিরাটকে ধরা আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়’। তবে ক্রিকেট দুনিয়ার অন্য ব্যাটসম্যানদের থেকে বিরাট অনেকটা এগিয়ে থাকলেও, গত দেড় বছর তাঁর ব্যাট থেকে তিন অঙ্কের রান আসেনি। ২০১৯ সালের ১৪ অগস্ট ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে একদিনের ম্যাচে ১১৪ রানে অপরাজিত ছিলেন বিরাট।

    সেই বছর ২২ নভেম্বর বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ইডেনে আয়োজিত টেস্টে ১৩৬ রান করেছিলেন তিনি। এরপর থেকে টেস্ট ও একদিনের (১৩ ও ১৫) ক্রিকেটে মোট ২৮ ম্যাচে শতরানের মুখ দেখেননি ‘কিং কোহলি '। একদিন আগেই পাকিস্তানের প্রাক্তন ওপেনার সালমান বাট বলেছিলেন শতরান না পাওয়া নিয়ে বিরাট খুব একটা ভাবিত নন। হয়তো খুব তাড়াতাড়ি শতরান পাবেন।

    বেশ কয়েকবার এই প্রশ্ন শুনতে হয়েছে ভারত অধিনায়ককে। কিন্তু মেজাজ না হারিয়ে জবাব দিয়েছিলেন বুদ্ধি করে। টেস্ট ক্রিকেটে দেশের মাটিতে সাফল্যের বিচারে অতিক্রম করে গিয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনির রেকর্ড। নতুন নতুন মাইলস্টোন তৈরি করছেন। সময় কোথায় নিজের শতরান নিয়ে ভাবার ? যাঁকে সার্টিফিকেট দেন স্বয়ং ডেভিড ওয়ার্নার, তাঁর কী নিয়ে বিব্রত হওয়ার প্রয়োজন রয়েছে ?

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: