PSBB school sexual harassment case: 'আমিও দুই মেয়ের বাবা', স্কুল শিক্ষকের দুষ্কর্মের বিরুদ্ধে লিখলেন অশ্বিন

ওই স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র ভারতীয় দলের স্পিনার।

ওই স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র ভারতীয় দলের স্পিনার।

  • Share this:

    #চেন্নাই:

    তিনিও দুই মেয়ের বাবা। তাই এমন দুষ্কর্মের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন তিনি। সম্প্রতি চেন্নাইয়ের একটি স্কুলের শিক্ষকের দুষ্কর্মের ঘটনা দেশজুড়ে সাড়া ফেলে দিয়েছে। ওই স্কুলের অভিভাবকরা সেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। তাঁরা সবাই একজোট হয়ে সেই শিক্ষকের উপযুক্ত শাস্তির দাবি করেছেন। চেন্নাইয়ের পদ্ম শেষাদ্রি বালা ভবন স্কুলের একজন শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের যৌন হেনস্থা করার অভিযোগ উঠেছিল। প্রমাণ, সাক্ষীর ভিত্তিতে শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর পরই ধৃত শিক্ষকের বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা দায়ের হয়েছে। আপাতত বিচারবিভাগীয় হেফাজতে রয়েছেন তিনি। সেই স্কুলশিক্ষকের এমন নিন্দনীয় কাণ্ড শুনে শুধু অবাক হননি, রবিচন্দ্রন অশ্বিনের রাতের ঘুম উড়ে গিয়েছে।

    ঘটনাক্রমে পিএসবিবি স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র ভারতীয় দলের স্পিনার রবীচন্দ্রন অশ্বিন। নিজের স্কুলের শিক্ষকের এমন কদর্য কাণ্ডের কথা শুনে লজ্জায় মুখ ঢেকেছেন তিনি। অশ্বিন এদিন টুইটারে লিখেছেন, ''এমন একটা ঘটনা শোনার পর আমার রাতের ঘুম উড়ে গিয়েছে। আমি ওই স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র বলেই শুধু নয়, আমিও দুই মেয়ের বাবা। এমন ঘটনা লজ্জাজনক। রাজাগোপালন নামের শিক্ষকের কথা ঘটনাযর পর উঠে এসেছে। কিন্তু কত ঘটনা তো জানাই যায় না। ভবিষ্যতে এমন ঘটনা যাতে আর না ঘটে, তার জন্য আমাদেরকেই দায়িত্ব নিতে হবে। আমাদেরকেই সিস্টেম বদলানোর কাজটা করতে হবে। হয়তো এই শিক্ষককে শাস্তি দিতে আইন ব্যবস্থা আরও সময় নেবে। কিন্তু আমরাই পারি এই সিস্টেমকে সম্পূর্ণ বদলে দিতে। আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্য আমরা সোশ্যাল মিডিয়া ছাড়া আর কোনও বিকল্প রেখে যেতে পারছি না। এটা আমাদের কাছে যন্ত্রণার, দূর্ভাগ্যের।''

    চেন্নাইয়ের ওই স্কুলে সেই শিক্ষক কুড়ি বছরের বেশি সময় ধরে শিক্ষকতা করছেন। ওই শিক্ষক সেখানে দ্বাদশ শ্রেণীর কমার্সের ক্লাস নেন। মূলত হিসাবশাস্ত্র পড়াতেন তিনি। বহুদিন ধরেই তিনি স্কুলের ছাত্রীদের অশ্লীল প্রস্তাব দিচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছিল। এরপরই অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আপাতত ওই শিক্ষকের শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছেন ছাত্রীদের অভিভাবকরা। তবে স্কুল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কোনও ছাত্রী কখনও লিখিতভাবে কোনও অভিযোগ করেনি।

    Published by:Suman Majumder
    First published: