নতুন সকাল দেখছে যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তান, টেস্ট ক্রিকেটে ইতিহাস লিখল আফগানরা 

নতুন সকাল দেখছে যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তান, টেস্ট ক্রিকেটে ইতিহাস লিখল আফগানরা 

এমন রেকর্ড যা করতে ভারতীয় দল সময় নিয়েছিল ২৩ বছর।

এমন রেকর্ড যা করতে ভারতীয় দল সময় নিয়েছিল ২৩ বছর।

  • Share this:
    #কলম্বো: যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে যেন নতুন সূর্যোদয়! নতুন সকাল দেখছেন সবহারানো আফগানরা। আবার নতুন করে ব্যাট-বল আঁকড়ে স্বপ্ন দেখছেন তাঁরা। দেশবাসীর সেই স্বপ্নকে বাস্তবের রূপ দিচ্ছে আসগর আফগানের দল। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে নতুন অধ্যায় লিখল আফগানিস্তান। এমন এক অধ্যায় যা লিখতে ভারতীয় ক্রিকেট দলেরও সময় লেগেছিল ২৩ বছর। টেস্ট ক্রিকেটে আফগানিস্তান নেহাতই হামাগুড়ি দিতে শুরু করেছে। তবে ছোট বয়সে বড় কাজ তো অনেকেই করে। ধরে নিন আফগানরাও সেরকমই দুরন্ত। জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে ৫৪৫ রান করল আফগানিস্তান। তাও মাত্র চার উইকেট হারিয়ে। একটা দল পাঁচশো রানের গণ্ডি পেরোল ছনম্বর টেস্ট ম্যাচেই। হাসমাতুল্লাহ শাহিদি আফগানিস্তানের ক্রিকেট সমর্থকদের যেন রোমাঞ্চ উপহার দিলেন। ব-কলমে তিনি যেন তাঁদের বলে দিলেন, ভবিষ্যতে তাঁর কাঁধেই আফগানিস্তানের ক্রিকেটের গুরুদায়িত্ব থাকবে। আফগানিস্তানের প্রথম ক্রিকেটার হিসাবে টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করলেন তিনি। ৪৪৩ বলে ২০০ রানের ইনিংস খেললেন শাহিদি। মুখের কথা নয় কিন্তু! ক্যাপ্টেন আসগর আফগান খেললেন ১৬৪ রানের ইনিংস। আফ্রিদি অবশ্য আলাদাই উচ্চতায় রয়েছেন। পাঁচটি টেস্টে তাঁর রান ৩৪৭। জিম্বাবোয়ে প্রথম ইনিংসে ২৮৭ রানে গুটিয়ে যায়। দ্বিতীয় ইনিংসে ২৬৬/৭। আগামীকাল ম্যাচের শেষ দিন। বলাই যায়, জয়ের দিকে আফগানদের পাল্লা ভারি। এবার আসা যাক রেকর্ডের প্রসঙ্গে। ভারতীয় দল ৪৭তম টেস্টে ৫০০ রানের গণ্ডি পেরিয়েছিল। ১৯৩২ সালে ভারতীয় দল প্রথম টেস্ট খেলে। আর ১৯৫৫ সালে দিল্লিতে নিউ জিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৫০০ রান করেছিল টিম ইন্ডিয়া। সেই ম্যাচে ভারতীয় দল সাত উইকেটে ৫৩১ রান করেছিল। বিজয় মাঞ্জরেকর ১৭৭ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলেছিলেন।
    Published by:Suman Majumder
    First published: