Rashid Khan: 'শিশু খুনের থেকে জঘন্য অপরাধ হয় না', কাকে এমন কথা বললেন রশিদ খান?

চারপাশে রক্ত, মৃত্যু দেখে হতাশ রশিদ খান।

চারপাশে রক্ত, মৃত্যু দেখে হতাশ রশিদ খান।

  • Share this:
    #গাজা: একে তো করোনায় জেরবার গোটা বিশ্ব। মহামারীর তাণ্ডবে বহু মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। অসহায় অবস্থা মানব জাতির। ভাইরাসের উত্পাতে সামাজিক ও আর্থিক পরিস্থিতি বেশ খারাপ। এই সময় মানুষ মানুষের পাশে থাকার অঙ্গীকার করেছে। তবে সব মানুষ কিন্তু মানবিক নয়। এখনও এই পরিস্থিতির মাঝে অনেকেই যুদ্ধে মেতেছে। প্যালেস্তাইনের জঙ্গি গোষ্ঠী হামাস রকেট হামলা চালিয়েছে ইজরায়েলের গাজায়। ভয়ঙ্কর রকেট হানায় এখনও পর্যন্ত ৩৫ জন প্রাণ হারিয়েছেন। সৌম্যা সন্তোষ নামের একজন ভারতীয় মহিলাও রকেট হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন। তিনি কেরলের বাসিন্দা ছিলেন। সাত বছর ধরে ইজরায়েলে থাকতেন। স্বামীর সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলার সময় তাঁর বাড়িতে রকেট এসে পড়ে। ঘটনাস্থলেই মারা যান সৌম্যা। রকেট হানায় প্রাণ হারিয়েছে বেশ কয়েকটি শিশুও।

    ইজরায়েলি বায়ুসেনার বিমান হানার প্রতিশোধ নিতে রকেট হামলা চালিয়েছে প্যালেস্তাইনের জঙ্গি গোষ্ঠী হামাস। করোনার এই দুঃসময়েও যুদ্ধে বিরতি নেই। ইজরায়েল ও হামাসের লড়াইয়ে প্রাণ হারাচ্ছেন বহু নিরীহ মানুষ। এই যুদ্ধ থামবে কবে! এমনিতেই যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে জনজীবন ছিন্নবিচ্ছিন্ন। এমন একটি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ থেকেই উঠে এসেছেন রশিদ খান। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখন তিনি প্রতিষ্ঠিত। আইপিএলের তারকা তিনি। আফগানিস্তানের মানুষের মুখে হাসি ফোটাচ্ছেন রশিদ খান, মহম্মদ নবিরা। তাঁদের দলের খেলা দেখে যুদ্ধের বিদগ্ধ স্মৃতি ভুলে থাকতে পারেন আফগানিস্তানের বহু মানুষ। কিন্তু এবার রশিদ খানও বুঝতে পারছেন না, কবে এই রক্তের খেলা শেষ হবে! কবে মানুষ যুদ্ধ ভুলে শান্তির কথা বলবে!

    রশিদ খান এদিন টুইটারে লিখেছেন, ক্রিকেটার হিসাবে সারা বিশ্বে খেলি আমি। আমি এই পৃথিবীকে যুদ্ধ, রক্তক্ষয় ছাড়া দেখতে চাই। আফগানিস্তান ও প্যালেস্তাইনে সাধারণ মানুষের মৃত্যু আমি আর দেখতে পারছি না। শিশু খুনের থেকে জঘন্য অপরাধ আর হয় না। আমি চাই, এই পৃথিবীতে শিশুরা পাখির ডাক শুনে ঘুম থেকে জেগে উঠুক, বোমের শব্দে নয়।

    Published by:Suman Majumder
    First published: