• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • Joy Banerjee Leaves BJP প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখে বিজেপি ছাড়লেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়, উগরে দিলেন ক্ষোভ

Joy Banerjee Leaves BJP প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখে বিজেপি ছাড়লেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়, উগরে দিলেন ক্ষোভ

বিজেপি ছাড়লেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়৷

বিজেপি ছাড়লেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়৷

বিধানসভা নির্বাচনের আগে জয় বন্দ্যোপাধ্যায়কে সরিয়ে তৃণমূল থেকে যোগ দেওয়া রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে জাতীয় কর্মসমিতির সদস্য করে বিজেপি (Joy Banerjee Leaves BJP)৷

  • Share this:

    #কলকাতা: বিজেপি ছাড়লেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ই মেল করে দল ছাড়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন বিজেপি নেতা (Joy Banerjee Leaves BJP)৷ দলে তাঁকে অবহেলা করা হচ্ছে এবং বিজেপি জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে, এই অভিযোগ তুলেই দল ছেড়েছেন অভিনেতা রাজনীতিবিদ৷ দলের রাজ্য নেতৃত্বের বিরুদ্ধেও ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন জয়৷

    ২০১৭ সালে জয় বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Joy Banerjee) বিজেপি-র জাতীয় কর্মসমিতির সদস্য করা হয়েছিল৷ কিন্তু বিধানসভা নির্বাচনের আগে জয় বন্দ্যোপাধ্যায়কে সরিয়ে তৃণমূল থেকে যোগ দেওয়া রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে জাতীয় কর্মসমিতির সদস্য করে বিজেপি৷ কয়েকদিন আগে জয় বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিরাপত্তাও প্রত্যাহার করে নেয় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক৷ এ সব বিষয় নিয়েও প্রধানমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন বিজেপি নেতা৷

    আরও পড়ুন: দিলীপ ঘোষ 'অর্ধশিক্ষিত', দল ছাড়ার 'পরামর্শে' পাল্টা দিলেন তথাগত! অস্বস্তিতে বিজেপি

    জয় বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, 'প্রধানমন্ত্রীকে দেখেই আমি বিজেপি-তে যোগ দিয়েছিলাম৷ তাঁকে জানিয়েছি যে ২০১৪ সাল থেকে জান, প্রাণ দিয়ে বিজেপি-টা কেছিলাম৷ কিন্তু এখন দলটা জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে৷ যাঁরা বাংলার ভাল চায়, আমার মতো যে নেতারা বাংলার মানুষের আবেগকে বোঝে, এখানকার কয়েকজন নেতা তাঁদের দলে থাকতে দিচ্ছে না, কোনও পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে না৷ হারটাকে স্বীকার করেই পরবর্তী যুদ্ধের জন্য তৈরি হতে হয়৷ তা না করে অজুহাত দিলে পরবর্তী হারের পথ খুলে যায়৷ অথচ এখানে নিজেদের দোষ না দেখে বলা হচ্ছে তৃণমূল রিগিং করে জিতেছে৷ একটা কেন্দ্রে রিগিং করে দশ, কুড়ি হাজার ভোটে জেতা যায়, এক- দেড় লাখ ভোটে জেতা সম্ভব নয়৷'

    যদিও জয় বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভিযোগ মানতে চাননি বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার৷ তাঁর পাল্টা দাবি, 'উনি অসুস্থ ছিলেন৷ দলের রাজ্য দফতরেও আসেন না৷ আমি রাজ্য সভাপতি হওয়ার পর ওনার থেকে কোনও ফোন, চিঠি পাইনি৷ ক্ষোভ থাকলে তো আগে রাজ্য নেতৃত্বকে জানাতে হবে৷'

    বিজেপি-র আর এক নেতা রাহুল সিনহা অবশ্য জয় বন্দ্যোপাধ্যায়ের আংশিক অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছেন৷ তিনি বলেন, 'জয় বন্দ্যোপাধ্যায় শারীরিক, মানসিক, আর্থিক দিক দিয়ে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন৷ এ কথা ঠিক যে দল হিসেবে আমরা তাঁর পাশে থাকতে পারিনি৷ শুধু জয় বন্দ্যোপাধ্যায় নয়, অনেকের ক্ষেত্রেই দলের তরফে এই সমস্যা রয়েছে৷' বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী অবশ্য বলেন, 'জয় বন্দ্যোপাধ্যায় অসুস্থ ছিলেন৷ দল নিশ্চয়ই তাঁর পাশে থাকবে৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: