Home /News /south-bengal /
Indian Railway: পূর্ব রেলের মুকুটে নয়া পালক, ব্যান্ডেল জংশন এখন পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ইলেকট্রনিক ইন্টারলকিং সিস্টেম

Indian Railway: পূর্ব রেলের মুকুটে নয়া পালক, ব্যান্ডেল জংশন এখন পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ইলেকট্রনিক ইন্টারলকিং সিস্টেম

অত্য়াধুনির প্রয়ুক্তির ব্য়বহার ব্য়ান্ডেলে

অত্য়াধুনির প্রয়ুক্তির ব্য়বহার ব্য়ান্ডেলে

Indian Railway: পৃথিবীর মধ্যে এটি রেকর্ড বলে জানাল খোদ ভারতীয় রেল। যা শুধুমাত্র ভারত নয়, গোটা বিশ্বে এটি সর্ববৃহৎ বলে দাবি করছেন তারা।

  • Share this:

#কলকাতা:  ব্যান্ডেল স্টেশনের মুকুটে যুক্ত হয়ে গেল নতুন পালক। চালু হয়ে গেল পাকাপাকি ভাবে দেশের বৃহৎ ইলেট্রনিক রুট রেল ইন্টারলকিং সিস্টেম। এই কাজের জন্যই ৭২ ঘন্টা ব্যান্ডেল স্টেশন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল রেল কর্তৃপক্ষ। এত দিন ব্যান্ডেল স্টেশনের কাজ হত ব্রিটিশ ইন্টারলকিং সিস্টেমে। এবার তার পরিবর্তে এসে গেল অত্যাধুনিক জার্মান প্রযুক্তিতে তৈরি ইলেকট্রনিক ইন্টারলকিং সিস্টেম।  এই সিস্টেমটির নির্মাতা কোম্পানি জানিয়েছে, পৃথিবীর মধ্যে সর্বপ্রথম এত বড় রুট রেল ইলেকট্রনিক ইন্টারলকিং বসানো হল হুগলির ব্যান্ডেলে। এর আগে সর্ববৃহৎ ছিল খড়গপুর স্টেশনের ইন্টারলকিং সিস্টেমটি। তার ধারণ ক্ষমতা ছিল ৮০০। ব্যান্ডেলে চালু হওয়া ইন্টারলকিং - এর ধারণ ক্ষমতা হবে এক হাজারেরও বেশি।

আরও পড়ুন: মণিপুর থেকে বাংলাদেশে হচ্ছিল পাচার, কিন্তু এ কী মিলল! বালুরঘাটে মারাত্মক কাণ্ড

পৃথিবীর মধ্যে এটি রেকর্ড বলে জানাল খোদ ভারতীয় রেল। যা শুধুমাত্র ভারত নয়, গোটা বিশ্বে এটি সর্ববৃহৎ বলে দাবি করছেন তারা। নতুন ইন্টারলকিং সিস্টেমের ফলে ট্রেনের পরিষেবা আরও দ্রুত হবে। কোনও জংশন স্টেশনে ঢোকার আগে ট্রেনকে অনেকক্ষণ বেশি দাঁড়িয়ে থাকতে হত সিগন্যাল এর জন্য, কিন্তু নতুন টেকনোলজির জন্য অনেক কম সময়ে ট্রেনগুলি পৌঁছে যাবে তার গন্তব্যস্থলে। তার সঙ্গে নতুন প্রযুক্তিতে যাত্রী সুরক্ষার দিকে বিশেষ নজর দেওয়া হয়েছে। আগে ব্রিটিশ ইন্টারলকিং এ কাজ হতো টেলিফোনের মাধ্যমে। কিন্তু নতুন ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে কম্পিউটারের মাধ্যমে সমস্ত ট্রেনের রুট সরাসরি দেখা যাবে মনিটরে। যার ফলে কাজের সুবিধা হবে রেল কর্তৃপক্ষের।

আরও পড়ুন: 'ঘটিবাটি সবই যাবে...' বিস্ফোরক দিলীপ ঘোষ! নিশানা করলেন কাকে? তীব্র আলোড়ন

নতুন ইন্টারলকিং সিস্টেমের জন্য তিন দিন সময় নিয়েছিলেন রেল কর্তৃপক্ষ। এই তিন দিনের মধ্যে জার্মান ইলেকট্রনিক ইন্টারলকিং সিস্টেমটির সমস্ত পরীক্ষা নিরীক্ষা-সহ যাবতীয় কাজ সেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল রেল কর্তৃপক্ষ। এখনও দিনে একাধিক সময় জুড়ে ইন্টারলকিংয়ের সঙ্গে যুক্ত বেশ কিছু কাজ চলছে। পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক একলব্য চক্রবর্তী জানিয়েছেন, ধাপে ধাপে প্রযুক্তির উন্নতি ঘটানো হয়েছে। যে প্রযুক্তি আনা হয়েছে তা দেশের মধ্যে শুধু নয় বিশ্বেও সমাদৃত হল।

Abir Ghosal
Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Indian Railway

পরবর্তী খবর