দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

মেজিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে লাগাতার ধর্মঘট, পুজোর মুখে বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের আশঙ্কা

মেজিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে লাগাতার ধর্মঘট, পুজোর মুখে বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের আশঙ্কা

লাগাতার এই ধর্মঘটের জেরে পুজোর মুখেই বড়সড় বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের মুখে পড়তে পারে এ রাজ্য সহ পার্শ্ববর্তী রাজ্যের বিভিন্ন সংস্থা, এমনই আশঙ্কা।

  • Share this:

#বাঁকুড়া: বন্ধ হয়ে যাওয়া বিভিন্ন আর্থিক সুযোগ সুবিধা পুনরায় চালুর দাবিতে মেজিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে লাগাতার ধর্মঘটে ৩৫০০ ঠিকা শ্রমিক। পুজোর মুখে বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের আশঙ্কা৷ বন্ধ হয়ে যাওয়া বিভিন্ন আর্থিক সুযোগ সুবিধা ও ছুটি সংক্রান্ত বিভিন্ন সুবিধা পুনরায় চালুর দাবিতে শুক্রবার থেকে লাগাতার ধর্মঘট শুরু করল বাঁকুড়ার মেজিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ঠিকা শ্রমিকরা।  শুক্রবার সকাল থেকে তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে কাজে যোগ না দিয়ে সমস্ত ঠিকা শ্রমিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের তিনটি গেটে হাজির হয়ে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেন।  লাগাতার এই ধর্মঘটের জেরে পুজোর মুখেই বড়সড় বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের মুখে পড়তে পারে এ রাজ্য সহ পার্শ্ববর্তী রাজ্যের বিভিন্ন সংস্থা, এমনই আশঙ্কা।

দামোদর ভ্যালি কর্পোরেশন পরিচালিত মেজিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র পুর্ব ভারতের বৃহত্তম তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র।  এই কেন্দ্রে কমবেশি সাড়ে তিন হাজার ঠিকা শ্রমিক কাজ করেন।  এই ঠিকা শ্রমিকরাই এই তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রধান চালিকা শক্তি। এই ঠিকা শ্রমিকরা ২০১৭ সালের আগে পর্যন্ত নির্দিষ্ট হারে হাউস রেন্ট, বোনাস, হ্যাজার্ড আলাউন্স,  নাইট আলাউন্স, ওভারটাইম, এক্সট্রা পে, হলিডে, সি এল সহ বিভিন্ন ধরণের আর্থিক ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা পেতেন। অভিযোগ,  ২০১৭ সালের মার্চ মাসের পর থেকে ঠিকা শ্রমিকদের এই সব সুযোগ সুবিধা বন্ধ করে দেয় ডিভিসি কর্তৃপক্ষ। এরপর থেকে এই সুযোগ সুবিধাগুলি পুনরায় চালুর দাবিতে বারবার আন্দোলনে নেমেছেন ঠিকা শ্রমিকরা।  কিন্তু বারবারই মিলেছে শুকনো আশ্বাস, কোনও কাজের কাজ হয়নি।

এখনও পর্যন্ত সেই সুযোগ সুবিধা পুনরায় চালু না হওয়ায় আজ অর্থাৎ শুক্রবার থেকে কাজে যোগ না দিয়ে লাগাতার ধর্মঘটের পথে হাঁটে ঠিকা শ্রমিকরা।  এদিকে ঠিকা শ্রমিকরা লাগাতার ধর্মঘটে যাওয়ায় এবার মেজিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এর ফলে ইসিএল,  রেল সহ বিভিন্ন শিল্পে বিদ্যুৎ সরবরাহে ঘাটতি দেখা দিতে পারে। মেজিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে গ্রিডের মাধ্যমে রাজ্য বিদ্যুৎ বন্টন নিগমে বিদ্যুৎ সরবরাহ হওয়ায় পুজোর আগে সমস্যা দেখা দিতে পারে রাজ্যের বিদ্যুৎ পরিষেবাতেও।

Mritunjoy Das

Published by: Pooja Basu
First published: October 16, 2020, 10:24 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर