মহিলা পাইলটরা টানছেন মালগাড়ি! রেলের ইতিহাসে নয়া ইনিংস

মহিলা পাইলটরা টানছেন মালগাড়ি! রেলের ইতিহাসে নয়া ইনিংস
বৈদ্যুতিক মালগাড়ির ইঞ্জিন চালালেন লোকো পাইলট মিস পুষ্পা ও অ্যাসিস্টান্ট লোকো পাইলট মিস বর্ষা। নিজস্ব চিত্র

প্রথমবার মালগাড়ির ইলেকট্রিক ইঞ্জিনের চালকের আসনে বসলেন এই দুই মহিলা। বুধবার সেই কর্মসূচির সূচনা করতেই বর্ধমানে উপস্থিত ছিলেন পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজার সুনীত শর্মা, হাওড়ার ডিভিশনাল রেলওয়ে ম্যানেজার ইশাক খান সহ রেলের পদস্থ আধিকারিকরা।

  • Share this:

#বর্ধমানঃ মালগাড়ি চালাচ্ছেন মহিলারা! এমনই ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী রইল বর্ধমান। সবুজ পতাকা নাড়লেন পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজার সুনীত শর্মা। সেই সংকেত পেয়ে বৈদ্যুতিক মালগাড়ির ইঞ্জিন চালালেন লোকো পাইলট মিস পুষ্পা ও অ্যাসিস্টান্ট লোকো পাইলট মিস বর্ষা। পূর্ব রেলের ইতিহাসে এই প্রথম।

প্রথমবার মালগাড়ির ইলেকট্রিক ইঞ্জিনের চালকের আসনে বসলেন এই দুই মহিলা। বুধবার সেই কর্মসূচির সূচনা করতেই বর্ধমানে উপস্থিত ছিলেন পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজার সুনীত শর্মা, হাওড়ার ডিভিশনাল রেলওয়ে ম্যানেজার ইশাক খান সহ রেলের পদস্থ আধিকারিকরা। এদিনই বর্ধমানে ইলেকট্রিক লোকো শেডের পথ চলা শুরু হল পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজারের হাত ধরে।

বর্ধমান লোকো শেডের পঞ্চাশ বছর পূর্তি চলছে। এই লোকো শেডের সাফল্যে নতুন অধ্যায়ের সূচনা হল এদিনই। ভারতীয় রেলের ইতিহাসে বর্ধমান লোকো শেডেই চালু হল বিশেষ ক্ষমতার থ্রি ফেজ ইলেকট্রিক লোকো শেড। পূর্ব রেলের জিএম সুনীত শর্মা বলেন, বর্ধমান ডিজেল শেডের বিশেষ সুনাম রয়েছে। তার সঙ্গেই এখান থেকে ইলেকট্রিক লোকোর সূচনা হল।

রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, পূর্ব রেলের মধ্যে প্রথম বর্ধমানেই থ্রি ফেজের মালগাড়ি ইঞ্জিন চলাচল ও রক্ষণাবেক্ষণ হবে। রেলের ফেসবুক পেজ ও টুইটার হ্যান্ডলেও  দিনটিকে পূর্ব রেলের ঐতিহাসিক দিন বলে ঘোষণা করা হয়েছে। সেই ঐতিহাসিক দিনের সূচনা হল মহিলা শক্তির হাত ধরে।  সেই নারীশক্তিই  এই লোকো শেডে প্রথম ইলেকট্রিক মালগাড়ির ইঞ্জিন টানলেন।

সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষে বর্ধমান লোকো শেডের আধুনিকীকরণই শুধু নয় সার্বিক পরিকাঠামো উন্নয়নেরও পরিকল্পনা রয়েছে রেলের। রয়েছে লোকো পাইলট, কর্মী, ট্রেন চালকদের বিশ্রাম ঘরের পরিকাঠামো উন্নয়নের বিষয়টিও।  পূর্ব রেলের জিএম সুনীত শর্মা সেসব ঘুরে দেখে বলেন, কর্মীদের উপযুক্ত পরিকাঠামো দেওয়া গেলেই উন্নত পরিষেবা মিলবে।

Saradindu Ghosh

First published: March 5, 2020, 5:43 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर