বাড়িতে পোষেন ভূত, রাত হলেই ছেড়ে দেন গ্রামে ! ধরা পড়তেই তুমুল মার

বাড়িতে পোষেন ভূত, রাত হলেই ছেড়ে দেন গ্রামে ! ধরা পড়তেই তুমুল মার

জিয়াকুর গ্রামের অধিকাংশ মানুষের অভিযোগ, ওই গ্রামে একটি পরিবারের সদস্যা বাড়িতে ভূত পোষেন। এবং সেই ভূত রাতের অন্ধকারে গ্রামবাসীদের বাড়িতে ছেড়ে দেওয়া হয়।

  • Share this:

#নদিয়া: বাড়িতে ভুত পুষে সেই ‘ভূত' গ্রামবাসীদের বাড়িতে রাতের অন্ধকারে পাঠিয়ে দেয় তাদের ক্ষতি করার জন্য ৷ এই অভিযোগ তুলে দুই মহিলা-সহ একব্যক্তিকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ ওঠে। দু'পক্ষের মারামারিতে মোট ৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার শান্তিপুর থানা এলাকার ছোট জিয়াকুর গ্রামে।

জিয়াকুর গ্রামের অধিকাংশ মানুষের অভিযোগ, ওই গ্রামে একটি পরিবারের সদস্যা বাড়িতে ভূত পোষেন। এবং সেই ভূত রাতের অন্ধকারে গ্রামবাসীদের বাড়িতে ছেড়ে দেওয়া হয়। তারপর সেই ভুতের প্রকোপে গ্রামবাসীদের ক্ষতির পাশাপাশি মৃত্যুর ঘটনাও ঘটেছে বলে অভিযোগ।

এই ঘটনা নিয়ে প্রায় দু’মাস আগে ওই মহিলার বাড়িতে গ্রামবাসীরা চড়াও হয়ে তাদের মারধর করে এবং সালিশি সভার মাধ্যমে বিষয়টি মেটানো হয়। কিন্তু তারপরও রবিবার রাতেও একই ঘটনা ঘটে বাড়িতে।

ভূত পোষার অভিযোগ তুলে ওই মহিলার বাড়িতে গ্রামবাসীরা এককাট্টা হয়ে চড়াও হয়। তাকে এবং তার পরিবারকে না পেয়ে, বৃদ্ধা মহিলার আত্মীয়র বাড়িতে গিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করেন গ্রামবাসীরা। এর ফলে দু'পক্ষের মারামারিতে ৬জন আক্রান্ত হন। তাদের মধ্যে দু’জন মহিলা। এদের মধ্যে একজন মহিলার সারা শরীরে কামড় এবং কান কেটে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে।

বর্তমানে শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি । এই ঘটনায় গ্রামে বসানো হয়েছে পুলিশ পিকেটিং। শান্তিপুর সায়েন্স ক্লাবের সদস্যের দাবি, এটি সম্পূর্ণ কুসংস্কার এবং মানসিক বিকারগ্রস্ততার কারণেই ওই গ্রামে এইরকম ঘটনা ঘটে চলেছে।

First published: 09:03:30 PM Oct 21, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर