দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

হিংস্র হায়না, নেকড়ে, কুমিরে সেজে উঠছে বর্ধমানের রমনাবাগান !

হিংস্র হায়না, নেকড়ে, কুমিরে সেজে উঠছে বর্ধমানের রমনাবাগান !
photo source collected

সেজে উঠছে বর্ধমানের রমনাবাগান অভয়ারণ্য। আকর্ষণ বাড়াতে সেখানে নিয়ে আসা হচ্ছে নেকড়ে হায়নার মত হিংস্র বন্য জন্তু, তৈরি হচ্ছে পার্ক, ফুড কোর্ট।

  • Share this:

#বর্ধমান: সেজে উঠছে বর্ধমানের রমনাবাগান অভয়ারণ্য। আকর্ষণ বাড়াতে সেখানে নিয়ে আসা হচ্ছে নেকড়ে হায়নার মত হিংস্র বন্য জন্তু তৈরি হচ্ছে পার্ক, ফুড কোর্ট। ইতিমধ্যেই চালু হয়ে গিয়েছে প্রকৃতিবীক্ষণ কেন্দ্র। সবমিলিয়ে আরো আকর্ষণীয় করে গড়ে তোলা হচ্ছে' এই মিনি জু।

বর্ধমান রমনাবাগান অভয়ারণ্য এমনিতেই চিতা বাঘ ভাল্লুক কুমির রয়েছে এরপর এখানে আনা হতে চলেছে নেকড়ে হায়েনা সহ আরো বেশ কিছু বন্যপ্রাণী জলে কুমিরের সংখ্যা আলাদা আরো বাড়ানো হবে সেইসঙ্গে তৈরি হবে বিশাল আকার একটি পাখিরালয় ইতিমধ্যেই এ ব্যাপারে যু যু অথরিটি সঙ্গে বৈঠক হয়েছে রাজ্য সরকারের বনদপ্তর এর সেখানে এসব চিড়িয়াখানার আকর্ষণ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়েছে।

রমনাবাগান মিনি জু ইতিমধ্যেই চালু হয়েছে প্রকৃতি বীক্ষণ কেন্দ্র। এখানে ছবি ও লেখায় বিভিন্ন বন্যপ্রাণ তাদের জীবন শৈলী বনদফতরের অধীনে থাকা বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়েছে এছাড়াও রমনাবাগান এক একর জায়গা জুড়ে তৈরি করা হবে পার্ক থাকবে পাখিরালয় পাখি বন্য পশু দেখার পর বিশ্রাম নেওয়া যাবে বিনোদন পার্কে ফুড কোর্টে মিলবে সব ধরনের খাবার।

জঙ্গল ও পশুপক্ষীদের সম্পর্কে নানান তথ্য জানতে উৎসুক অনেকেই। স্কুলপড়ুয়া থেকে পশু প্রেমী সকলের কাছে সেসব তথ্য তুলে ধরা হয়েছে এই প্রকৃতিবীক্ষণ কেন্দ্রে। রয়েছে, হাতি সম্পর্কে নানান অজানা তথ্য। মাঝে মাঝেই লোকালয়ে হাতিরা ঢুকে পড়ে। তা নিয়ে উত্তেজনাও সৃষ্টি হয়। কোন কোন কারণে লোকালয়ে ঢুকে পড়ে হাতি, সে সময় তাদের সঙ্গে কি ধরনের আচরণ করা উচিত সে সম্পর্কে রয়েছে নানান তথ্য।

বর্ধমানের পূর্বস্থলীর চুপি চড়ে বিশাল এলাকা জুড়ে পাখিরালয় রয়েছে। রমনাবাগানে এলে চুপি চরের পাখিদের ব্যাপারে নানান তথ্য মিলবে।থাকছে সাপ নিয়ে নানান তথ্য। সাপে কামড়ালে কি করা উচিত – সেই সম্পর্কেও তথ্য রয়েছে এই বীক্ষণ কেন্দ্রে। এরই পাশাপাশি জঙ্গলমহল এলাকায় যাঁরা বসবাস করেন, যে সমস্ত বনরক্ষা কমিটি রয়েছে- তাঁরা কিভাবে থাকেন, কি কাজ করেন তা নিয়েও থাকছে আলাদা প্যাভিলিয়ন।

এছাড়াও বনদফতরের অধীনে পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান জেলা জুড়ে যে সমস্ত ট্যুরিজম স্পট রয়েছে সে সম্পর্কেও রয়েছে বিস্তারিত তথ্য। প্রতিটি প্যাভিলিয়নেই ইংরেজি ও বাংলায় সব বিবরণ ও তথ্য রয়েছে। বর্ধমানের রমনাবাগান গড়ে ওঠার ইতিহাসও আছে। সব মিলিয়ে শুধু পশুপাখি দেখা নয়, জানার জন্য নানান তথ্য, অবসর যাপনের পার্ক, রসনা তৃপ্তির ফুড কোর্ট নিয়ে আরও অনেক আকর্ষণীয় হয়ে উঠছে রমনাবাগান।

SARADINDU GHOSH 

Published by: Piya Banerjee
First published: October 16, 2020, 12:35 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर