Home /News /south-bengal /
একসময়ের যাত্রাসম্রাজ্ঞী হাতে আজ ভিক্ষার ঝুলি, খবর সামনে আসতেই তৎপরতা, পুলিশের মানবিক মুখ

একসময়ের যাত্রাসম্রাজ্ঞী হাতে আজ ভিক্ষার ঝুলি, খবর সামনে আসতেই তৎপরতা, পুলিশের মানবিক মুখ

Photo- Representative

Photo- Representative

নিউজ18 বাংলা খবরের পরই সাহায্য এল

  • Share this:

    #পশ্চিম মেদিনীপুর: রাস্তায় আঁচল পেতে ভিক্ষে করছিলেন। একসময়ে বাংলার যাত্রার মঞ্চ শাসন করতেন। তিনি মধুমিতা চক্রবর্তী। যাত্রার দিন আর নেই। তার মধ্যে লকডাউন। নিউজ18 বাংলা খবর দেখানোর পরই সাহায্য এল। যাত্রাসম্রাজ্ঞীর পাশে দাঁড়ালেন পশ্চিম মেদিনীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজি সামসুদ্দিন আহমেদ।

    অভিমানী মন এসব বলিয়েছিল। খিদের জ্বালায়, অভাবের বোঝায় নুয়ে যেতে যেতে মৃত্যুকে ডাকছিলেন। তিনি বাংলার একদা যাত্রাসম্রাজ্ঞী মধুমিতা চক্রবর্তী।বেলদার রাস্তায় ঘুরে ঘুরে ভিক্ষে করছিলেন। নিউজ18 বাংলা সেই খবর দেখানোর  কিছুক্ষণের মধ্যেই একটা দমকা হাওয়ায় সব মন খারাপ উড়িয়ে নিয়ে গেল। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজি সামসুদ্দিন আহমেদ বেলদা থানার ওসির মাধ্যমে খাবার ও টাকা পৌঁছে দেন িশল্পীর বাড়িতে। এখন মধুমিতার আঁচল ভরেছে ভরসায়।

    রঙে-ঢঙে-মজলিশে একসময় যাত্রার মঞ্চ কাঁপাতেন। যখন চিৎপুর জমজমাট। ডাক পড়ত। বায়না আসত। যাত্রার জাত অভিনেতা মধুমিতা চক্রবর্তী। অভিনয় ছাড়া কিচ্ছু জানেন না। বয়সের ভারে এখন খোঁজ পড়ে কম। তবু চলছিল। কিন্তু লকডাউনে সব হারিয়ে বেলদার রাস্তায় নামেন। ভিক্ষে করতে জানেন না। অনভ্যাসে আঁচল পেতে একটু খেতে চাইছিেলন... সংলাপ নেই, ছিল বিলাপ.. খুঁজছিলেন মৃত্যুর রাস্তা। না, সেই রাস্তায় হাঁটতে দেয়নি নিউজ18 বাংলা।

    গ্রিনরুমের উজ্জ্বল আলো। চড়া মেকআপ। রাজারানি। গরিব কেরানি। যাত্রা শুরু। যাত্রা শুরু। মধুমিতার চোখে যাত্রার স্বপ্ন আজও েলগে। তিনি এখন পেট ভরলেই খুশি। আসলে পৃথিবী একটা রঙ্গমঞ্চ.. আর সবাই যে অভিনেতা.. বাস্তবের সেই অভিনয় করতে গিয়ে হেরে যান যাত্রাসম্রাজ্ঞীও।

    Published by:Debalina Datta
    First published:

    Tags: Actress, Police

    পরবর্তী খবর