Home /News /south-bengal /
আদৌ গড়াবে বিজেপি-র রথের চাকা ? রাজ্য নেতারা তৎপর, কতটা সাড়া দেবে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব?

আদৌ গড়াবে বিজেপি-র রথের চাকা ? রাজ্য নেতারা তৎপর, কতটা সাড়া দেবে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব?

File Photo

File Photo

  • Share this:

    #কলকাতা: চাকা গড়ানোর আগেই অনেক জায়গা ঘুরে ফেলেছে রথ। বীরভূম থেকে সরে কোচবিহার। হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ-ডিভিশন বেঞ্চ। নবান্ন ঘুরে এখন আবার লালবাজার। এ যেন রথযাত্রার আগে সিদ্ধান্তহীনতার যাত্রা আর অনুমতি যাত্রা।

    এক্কেবারে ফুলপ্রুফ প্ল্যান ছিল। রথেই বাংলা জয়ের পথ প্রশস্ত করার জন্য মুখিয়ে ছিল বিজেপি। ঠিক যেন কোনও জনপ্রিয় রিয়ালিটি শো-য়ের মেগা ফাইনাল। দেশের বাঘা বাঘা রথী মহারথীরা আসবেন। কখনও লাগাম থাকবে নরেন্দ্র মোদির হাতে। কখনও অমিত শাহের হাতে। আবার কখনও হাওয়ার আগে রথ ছোটাবেন যোগী আদিত্যনাথ।

    অনেক মাথা খাটিয়ে ঠিক করা হয়েছিল, বীরভূমের লাল মাটি থেকেই গড়াবে রথের চাকা। কিন্তু বীরভূমের অনুব্রত মন্ডল আবার পাল্টা খোল খঞ্জনি নিয়ে নাম সংকীর্তনের আওয়াজ তুলতেই বিজেপির বীরদর্পে বীরভূম জয়ের স্বপ্নে পড়ল ভাটার টান।

    আবার বৈঠক। প্রশ্ন উঠল কোত্থেকে হবে শুরুয়াত ? উত্তরেই মিলল উত্তর। সেই মতো কোচবিহার থেকে ৭ ডিসেম্বর রথযাত্রা শুরুর ঘোষণা হল সাড়ম্বরে। ঠিক হল পরের যাত্রা হবে ১০ তারিখ কাকদ্বীপ থেকে আর সবশেষে ১৪ তারিখ রথ গড়াবে বীরভূমে। সেইমতো সবাই একে একে জড়ো হচ্ছিলেন কোচবিহারের ধানজমিতে। শাসক দলের সঙ্গে তাল ঠুকে বানানো হল মঞ্চ। রাতপাহারার বন্দোবস্ত হল। কিন্তু এবার রথের টায়ার পাংচার হল হাইকোর্টে।

    ৬ ডিসেম্বর বিকেলে হাইকোর্টে বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তীর বেঞ্চ কোচবিহার থেকে রথযাত্রার অনুমোদনে সায় দিল না। কোচবিহারের পুলিশ সুপারের রিপোর্টের ভিত্তিতে জানিয়ে দিল, অশান্তির আশঙ্কায় রথযাত্রার অনুমোদন দেওয়া সম্ভব নয়। দিলীপ ঘোষ, জয়প্রকাশ মজুমদাররাও অবশ্য সহজে ছেড়ে দেওয়ার পাত্র নন। গেলেন ডিভিশন বেঞ্চে। ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়ে দিল, কবে কোথায় রথযাত্রা হবে, রাজ্যের মুখ্য সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব ও ডিজির সঙ্গে বৈঠক করুন বিজেপি নেতারা। তারপর সিদ্ধান্ত হোক। ততদিন রাজ্যের কোথাও রথযাত্রা নয়। সেইমতো রাজ্য নেতারা বৈঠকের আবেদন নিয়ে নবান্নে গেলেন। শেষে ঠিক হল, লালবাজারে হোক বৈঠক। এরই মাঝে আর এক বিপদ।

    হিন্দি বলয়ে পাঁচ রাজ্যে ভরাডুবি। এখন শ্যাম রাখি না কূল। কোথায় রথযাত্রা পিছোচ্ছে বলে সমর্থকদের মনোবল চাঙ্গা করতে নরেন্দ্র মোদিকে আনার প্ল্যান ছিল ! তা পাঁচ রাজ্যে হারের পর দিল্লি থেকে মোদির আসাও নাকচ হয়ে গেল। দিল্লি থেকে অমিত শাহ আর রাজ্যে দিলীপ ঘোষ বলে চলেছেন, রথযাত্রা তো হবেই। কিন্তু কবে হবে? আদৌ হবে তো? যত সময় গড়াচ্ছে রথের রশি টানার লোক সংখ্যা কিন্তু কমছে। রথযাত্রার বদলে রথ নিয়ে যেন যাত্রাপালা হচ্ছে।

    First published:

    Tags: BJP, Rathayatra

    পরবর্তী খবর