Hilsa Fish| শ্রাবণেও ইলিশের দেখা নেই, উঠে আসছে যে কারণ

বর্ষা হাজির পুরোদমে। দেখা নেই ইলিশের।

Hilsa Fish|জেলায় জেলায় বর্ষণের বিরাম নেই, কিন্তু দেখা নেই ইলিশেরও।

  • Share this:

#কোলাঘাট: ভরা বর্ষার মরশুমে অথচ পাতে ইলিশ পড়বে না, এমনটা যেন অতি দুঃস্বপ্নেও ভাবতে পারে না বাঙালি। কিন্তু এবার ছবিটা যেন অন্য। জেলায় জেলায় বর্ষণের বিরাম নেই, কিন্তু দেখা নেই ইলিশেরও।

মৎস্যপ্রেমীরা মোটামুটি ভাবে কোলাঘাটের ইলিশকে ভালো নম্বর দেন। কিন্তু এবার রূপনারায়ণেও খানিকটা নজিরবিহীন ভাবেই ইলিশের আকাল দেখা যাচ্ছে। বাজারে ইলিশের দেখা নেই বললেই চলে। এলেও দু'টি তিনটি করে পাচ্ছেন একেক জন মৎসজীবী। যারা প্রতিবছর নদী থেকে রূপোলি শস্য তুলে আনেন নিজের হাতে, এবার তাদের চোখেই যেন সংকটের ছায়া। স্পষ্টই তাঁরা বলছেন, মাছ নদীতে এগিয়ে আসছে না। অন্যদিকে দূর সমুদ্র পাড়ি দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। সব মিলিয়ে ইলিশ পাওয়ার আশাই ছেড়ে দিয়েছেন কেউ কেউ। বলছেন, শ্রাবণেও জালে মাছ উঠল না। এবার ইলিশ উঠবেই না।

পরিবেশবিদদের মতে রূপনারায়ণের দূষণই এই ঘটনার সবচেয়ে বড় কারন। অন্য দিকে নিয়ম ভেঙে খোকা ইলিশ ধরা কেউ দায়ী করছেন কেউ কেউ। পরিবেশকর্মী মৌসম মজুমদার বলছিলেন, কোলাঘাট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে দূষিত জল এমনকী গরম জলও নদীতে গিয়ে মেশে। ফলে জলের চরিত্র বদলে যাচ্ছে। শুধু ইলিশই কেন, অন্তত ৩৪ রকম জলজ প্রাণী এভাবেই নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

করোনার বিধিনিষেধে দীর্ঘ সময় সমুদ্রযাত্রা বন্ধ থাকার পর ১৫জুন থেকে মাছ ধরা শুরু হয়েছে এ রাজ্যে। একে একে সমুদ্রে পাড়ি দিয়েছে বহু ট্রলার। ইতিউতি ধরা পড়েছে অন্য নানা মাছ। কিন্তু কেউই ইলিশের স্বর্গরাজ্য খুঁজে পায়নি সেভাবে। বলাই বাহুল্য প্রতিদিন সংকট বাড়ছে মৎস্যজীবীদের। প্রত্যেকেই আশায় বুক বাঁধছেন, আজ না হয় কাল ভাগ্যদেবী প্রসন্ন হবেনই।

Published by:Arka Deb
First published: