• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • বর্ধমানের বিজেপি কার্যালয় তছনছের সময় কে ওড়ালো ড্রোন! প্রশ্ন ঘিরে সরগরম রাজ্য রাজনীতি

বর্ধমানের বিজেপি কার্যালয় তছনছের সময় কে ওড়ালো ড্রোন! প্রশ্ন ঘিরে সরগরম রাজ্য রাজনীতি

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

তবে কি আদি বিজেপি কর্মীরা এই ড্রোন উড়িয়েছিল বিজেপি জেলা অফিস ছাদ থেকে কারা ইট পাথর ছুড়ছে তা জানতে? প্রশ্ন উঠছে সব মহলে।

  • Share this:

#বর্ধমান: তখন বর্ধমানে বিজেপির জেলা কার্যালয়কে কেন্দ্র করে কার্যত ধুন্ধুমার কাণ্ড চলছে। কার্যালয়ের ছাদ থেকে ইট পাথর ছুড়ছে একদল কর্মী। অন্যদিকে জি টি রোড থেকে তার পাল্টা ইট বৃষ্টি চালাচ্ছে বিজেপির পতাকা নিয়ে থাকা অন্য এক দল। ঠিক সেই সময় আকাশ থেকে পরিস্থিতির ওপর নজর রাখতে দেখা গেল একটি ড্রোনকে। সেই অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতিতে কে ওড়ালো ড্রোন! সেই প্রশ্নের উত্তর পেতে চাইছে সব মহল।

বৃহস্পতিবার দুপুর থেকেই বর্ধমানের শহরের ঘোড়দৌড় চটি এলাকায় বিজেপির নবনির্মিত পার্টি অফিস চত্বরে উত্তেজনার পারদ চড়ছিল। দলের বর্ধমান সাংগঠনিক জেলার পর্যবেক্ষক এসেছিলেন দলীয় কার্যালয়ে। তাঁর কাছে ক্ষোভের কথা জানানোর পরিকল্পনা নিয়েছিল আদি বিজেপি কর্মী নেতারা। তাঁদের অভিযোগ ছিল, বর্তমান নেতৃত্ব তাদের যোগ্য সম্মান দিচ্ছে না। দুর্দিনে বিজেপি করে এখন তাঁরা অবহেলায় দিন কাটাচ্ছেন। পর্যবেক্ষকের কাছে সেই পরিস্থিতির কথা তুলে ধরতে অনুগামীদের নিয়ে হাজির হয়েছিলেন পুরনো দিনের সেইসব নেতাকর্মীরা। আলোচনা চলার মাঝেই আদি বিজেপি ও নব বিজেপি কর্মীদের মধ্যে ইট ছোড়াছুড়ি শুরু হয়ে যায়। তার জেরে ধুন্ধুমার কাণ্ড বাঁধে বিজেপির জেলা কার্যালয়ে। ঠিক সেই সময় জি টি রোডের ওপর একটি ড্রোনকে উড়তে দেখা যায়।

অবস্থা যখন রণক্ষেত্রে চেহারা নিয়েছে তখন কে ওড়ালো সেই ড্রোন? সেই প্রশ্নের উত্তর পেতে চাইছে পুলিশ এবং রাজনৈতিক মহল। একটা সময় পরিস্থিতি চরম হিংসাত্মক আকার নেয়। সেই সময় কোথায় কত সংখ্যক বিজেপি কর্মী জমায়েত হয়ে রয়েছে তা বুঝে উঠতেই কি ড্রোন ক্যামেরা নজরদারি চালাচ্ছিল পুলিশ? প্রথমে সবাই তেমনটাই মনে করেছিল। কিন্তু বর্ধমান থানার পুলিশ জানিয়ে দেয় তাদের পক্ষ থেকে এই ড্রোন ওড়ানো হয় নি। বর্ধমান থানার এক পুলিশ অফিসার বলেন, আমরাই বরং জানতে চাইছি ড্রোন কে উড়িয়েছিল।

তবে কি আদি বিজেপি কর্মীরা এই ড্রোন উড়িয়েছিল বিজেপি জেলা অফিস ছাদ থেকে কারা ইট পাথর ছুড়ছে তা জানতে? আদি বিজেপির নেতারা অবশ্য ড্রোন ওড়ানোর কথা উড়িয়ে দিয়েছেন। প্রশ্ন তাই বিজেপির অফিশিয়াল গোষ্ঠীর দিকে। তবে কি পরিস্থিতির হাল হকিকত রেকর্ড রাখতেই ড্রোন উড়িয়ে ছিল তারা,নাকি উৎসাহী কোন ব্যক্তি ড্রোন উড়িয়ে তুলছিল পরিস্থিতি ছবি?

সংঘর্ষের সময় যে বা যারাই ড্রোন উড়িয়ে থাকুক না কেন স্বীকার করেনি কেউই পুলিশ এখন সেই ড্রোন কোথা থেকে উড়েছিল তা খতিয়ে দেখছে। জেলা পুলিশের এক আধিকারিক জানান, ইচ্ছা করলেই যখন তখন যে কেউ ড্রোন উড়িয়ে ছবি তুলতে পারে না। তার জন্য পুলিশের কাছ থেকে আগাম অনুমতি নিতে হয়। কিন্তু তেমন কোনও আবেদন পুলিশের কাছে জমা পড়েনি। তাই অনুমতি ছাড়াই কে কী উদ্দেশ্যে এই ড্রোন উড়িয়েছিল তা জানার চেষ্টা চলছে।

Saradindu Ghosh

Published by:Shubhagata Dey
First published: