বিজেপির জেলা কার্যালয়ের ছাদ থেকে ইট পাথর ছুড়লো কারা! উঠছে প্রশ্ন

বিজেপির জেলা কার্যালয়ের ছাদ থেকে ইট পাথর ছুড়লো কারা! উঠছে প্রশ্ন
সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় বিজেপির নবনির্মিত এই জেলা অফিস।

সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় বিজেপির নবনির্মিত এই জেলা অফিস।

  • Share this:

#বর্ধমান: বর্ধমানে বিজেপির জেলা কার্যালয়ের ছাদ থেকে ইট পাথর ছুড়লো কারা? এই প্রশ্নই এখন ঘুরপাক খাচ্ছে রাজনৈতিক মহলে। ছাদের ওপর এত ইট পাথর এলো কোথা থেকে? তবে কি তা আগে থেকেই মজুত করে রাখা হয়েছিল? প্রশ্ন উঠছে তা নিয়েও। ওই ছাদ থেকে ইট পাথর ছোড়ার পরই পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে। এরপরই জেলা কার্যালয় লক্ষ্য করে পাল্টা ব্যাপক ইট পাথর ছোড়া হয়। তাতেই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় বিজেপির নবনির্মিত এই জেলা অফিস।

দলের পুরোনো নেতারা অনুগামীদের নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে বর্ধমানে জেলা কার্যালয়ের সামনে জমায়েত হয়ে বিক্ষোভ দেখান। দলে তাঁদের গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ তোলেন ওই বিজেপি কর্মী নেতারা। তারই জেরে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। নব বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে আদি বিজেপি কর্মীদের বচসা শুরু হয়ে যায়। তার জেরে হাতাহাতি হয়। ঠিক তখনই বিজেপির জেলা কার্যালয়ের ছাদ থেকে বাইরে জমায়েত হওয়া কর্মীদের দিকে লক্ষ্য করে বড় বড় ইট পাথর ছোড়া শুরু হয়। এরপরই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে বাইরে জমায়েত কর্মীরা। তারা রাস্তা থেকে ইট পাথর তুলে জেলা কার্যালয়ের দিকে ছোড়া শুরু করে। দীর্ঘক্ষন ধরে দু'পক্ষের মধ্যে ইট বৃষ্টি চলে। তার ফলেই ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয় বিজেপির জেলা কার্যালয়।


জেলা কার্যালয়ের ছাদ থেকে ইট পাথর ছুড়লো কারা তা নিয়ে দলের কর্মী নেতাদের মধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এতো ইট-পাথর সেখানে এলো কি করে তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। বিক্ষোভ দেখাতে আসা আদি বিজেপি কর্মীরা বলছেন, জেলা কার্যালয়ের ছাদে আগে থেকেই ইট-পাথর মজুত করা ছিল। সে সবই ছুড়েছে বর্তমান অফিশিয়াল গোষ্ঠীর নেতাদের অনুগামীরা।

আবার বিজেপি নেতা প্রবাল রায় বলেন, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা পরিকল্পিতভাবে এই হামলা চালিয়েছে। তারা পার্টি অফিসের ভেতরে ঢুকে পরে। ছাদে উঠে পড়ে তারা। তারাই এসব ইট-পাথর ছুড়েছে। যদিও ঘটনায় তাদের জড়িত থাকার কথা একেবারেই ভিত্তিহীন বলে জানিয়ে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। তৃণমূল কংগ্রেসের পূর্ব বর্ধমান জেলার সভাপতি স্বপন দেবনাথ বলেন, পুরোপুরি বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জন্যই এই ঘটনা ঘটেছে। নিজেরা মারপিট করে পার্টি অফিস ভাঙচুর করে এখন তৃণমূলের ঘাড়ে দায় চাপাতে চাইছে তারা।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: