Home /News /south-bengal /
Indian Railway: বিমানবন্দরের ধাঁচে আধুনিক হওয়ার কথা ছিল, বাংলার এই রেলস্টেশন এখন যেন পোড়ো বাড়ি!

Indian Railway: বিমানবন্দরের ধাঁচে আধুনিক হওয়ার কথা ছিল, বাংলার এই রেলস্টেশন এখন যেন পোড়ো বাড়ি!

সাঁতরাগাছি স্টেশনের এখন যেমন অবস্থা...

সাঁতরাগাছি স্টেশনের এখন যেমন অবস্থা...

Indian Railway: যার ফলে সাঁতরাগাছি স্টেশনের দশা হয়ে দাঁড়িয়েছে ভূতের বাড়ির। কোণা এক্সপ্রেসওয়ের ধারের সাঁতরাগাছি স্টেশন।

  • Share this:

#সাঁতরাগাছি: কথা ছিল বিমানবন্দরের ধাঁচে স্টেশন টার্মিনাল হবে। বাস্তবে এখন তা হয়ে আছে কার্যত ভূতের বাড়ি। ভর্তি আগাছা আর জঙ ধরা মেশিন নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে সাঁতরাগাছি স্টেশন। ২০১৯ সালে এই স্টেশন রিডেভলপমেন্টের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেই মোতাবেক ভারতীয় রেলের তরফে অনুমোদন করা হয় অর্থ। কিন্তু দু'বছরের মধ্যেই সেই কাজে ভাটা পড়েছে। যার ফলে সাঁতরাগাছি স্টেশনের দশা হয়ে দাঁড়িয়েছে ভূতের বাড়ির।কোণা এক্সপ্রেসওয়ের ধারের সাঁতরাগাছি স্টেশন।

দক্ষিণ পূর্ব রেলের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ স্টেশন হল সাঁতরাগাছি। রেলের পরিকল্পনায় আছে, আগামীদিনে এই স্টেশনকে হাওড়ার বিকল্প স্টেশন হিসাবে গড়ে তোলার পরিকল্পনা নিয়েছে ভারতীয় রেল। আর এই কাজের জন্যে বহুতল নির্মাণ হয়। পরিকল্পনা ছিল বিমানবন্দরের ধাঁচে যাত্রীদের নিয়ে গাড়ি এসে থামবে স্টেশনের ওপরে। যাত্রীদের নামিয়ে গাড়ি সোজাসুজি চলে যাবে কোণা এক্সপ্রেসওয়েতে। তার জন্যে রাস্তের পাশে চলছিল ব্রিজ তৈরির কাজ। যে সংস্থা কাজ শুরু করেছিল তারাও আপাতত কাজ স্থগিত রেখেছে। যে বহুতল টার্মিনাল তৈরির কাজ শুরু হয়েছিল তা থমকে আছে।

আরও পড়ুন: ফিরহাদ হাকিমের গাড়ির সামনে আহত টোটো চালক! মন্ত্রী যা করলেন, অবাক সকলে

গোটা প্রকল্প এলাকা জুড়ে যত্রতত্র মেশিন, যন্ত্রাংশ পড়ে আছে। দিনের বেলাতেও প্রকল্প এলাকায় ঢুকলে একটা অস্বস্তি কাজ করবে। এই প্রকল্পের কাজ কবে শেষ হবে তার নিশ্চয়তা নেই কোন দিক থেকেই।হাওড়া স্টেশনের বিকল্প হিসাবে যে সাঁতরাগাছি স্টেশনের কাজ শুরু হয়েছিল, তার গতি হারিয়ে যাওয়ায় একাধিক প্রশ্ন উঠছে৷ যদিও দক্ষিণ পূর্ব রেলের তরফে জানানো হয়েছে, ধীরে ধীরে কাজ শেষ করা হবে। কিন্তু কাজ শেষে এত দেরি হচ্ছে কেন?

আরও পড়ুন: ঝেঁপে আসছে বৃষ্টি, রবিবারের জন্য বিশেষ সতকর্তা! হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস যা বলছে...

দক্ষিণ পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক কে এস আনন্দ জানিয়েছেন, "কোভিড পরিস্থিতির জন্যে কাজের গতি শ্লথ হয়েছে। ধীরে ধীরে সেই কাজ করা হচ্ছে। চলতি বাজেটে এই প্রকল্পের জন্যে মঞ্জুর করা হয়েছে প্রায় ১৫০ কোটি টাকা।" রেল আশ্বাস দিচ্ছে কাজ এগোতে থাকলে অর্থের অভাব হবে না। সূত্রের খবর, কোভিড পরিস্থিতিতে রেলের ভাঁড়ার শুন্য হয়েছে। ফলে যে সব প্রকল্পের আশু প্রয়োজন নেই সেই গুলির কাজ থমকেছে। অন্যদিকে এই স্টেশন বিল্ডিংয়ের কাজ সমাপ্ত হয়ে গেলে ব্যবসায়ীদের দেওয়ার কথা ছিল। স্টেশনে রিটেল আউটলেটের জন্য। কোভিডের কারণে অনেকেই সেই আগ্রহ দেখাচ্ছেন না। ফলে অর্থের অভাবে আটকে আছে নয়া স্টেশন ভবন মানোন্নয়নের কাজ৷ কবে হবে বা আদৌ হবে কিনা তা নিয়ে নিশ্চিত উত্তর নেই কারও কাছে।

Published by:Suman Biswas
First published:

Tags: Airport, Indian Railway

পরবর্তী খবর