Home /News /south-bengal /
Birbhum News || বীরভূমের কৃষিকার্যে জলসরবরাহের ক্যানেলগুলিতে জল নেই,  বৃষ্টির আশায় কৃষকেরা

Birbhum News || বীরভূমের কৃষিকার্যে জলসরবরাহের ক্যানেলগুলিতে জল নেই,  বৃষ্টির আশায় কৃষকেরা

Birbhum News || হাতে গোনা কয়েকজন কৃষক পাম্প সেট দিয়ে জল জমিতে দিলেও ডিজেলের আকাশছোঁয়া দামে তাও কম চলছে। এখন বীরভূমের চাষীদের একটাই প্রার্থনা, বৃষ্টি৷

  • Share this:

    #বীরভূম: পশ্চিমবঙ্গ সরকারের নিয়ন্ত্রাধীন ঝাড়খণ্ডের ম্যাসাঞ্জোর জলাধারে এবার জলস্তর কম, ফলে জলস্তর কম ময়ূরাক্ষী নদীতে৷ আর সেই কারণেই বীরভূমের সিউড়ির তিলপাড়া জলাধারেক পর্যাপ্ত জল নেই। আর তিলপাড়া জলাধার থেকে যে সমস্ত শাখা ক্যানেল চাষের জন্য জলসরবরাহ করে, এখন সেই জল সরবরাহ বন্ধ রেখেছে বীরভূম জেলা প্রশাসন। এই নিয়ে বীরভুম জেলা পরিষদের সভাধিপতি একটি বৈঠক ডাকেন কৃষি দফতর ও ইরিগেশান দফতরকে নিয়ে।

    আরও পড়ুন: ভাসবে উত্তরবঙ্গ, দক্ষিণবঙ্গের ৫ জেলায় প্রবল বৃষ্টি! হাওয়া অফিসের বড় সতর্কতা

    গত ১০ বছরে জুলাই মাসের এই সময়ে ম্যাসাঞ্জোর জলাধারে ৩৮০ ফুট জল থাকে , কিন্তু এই বছর জল রয়েছে ৩৭০.২০ ফুট । এই জল ম্যাসাঞ্জোর জলাধার থেকে তিলপাড়া জলাধারে এসে পৌছালেও জলের স্তর বাড়বে না তিলপাড়া জলাধারে। ফলে তিলপাড়া জলাধার থেকেও ক্যানেল দিয়ে ওই জল চাষের কাজে দেওয়া সম্ভব নয়। এর জেরে বর্তমানে বীরভূমের সব ক্যানেলই প্রায় শুকিয়ে রয়েছে। অন্যদিকে বীরভূমে গত কয়েক বছরের তুলনায় ৬১ শতাংশ কম। জুনের ১১ তারিখ থেকে জুলাই এর ১১ তারিখ পর্যন্ত বৃষ্টি হওয়ার কথা ৩৪৫.২৬ মিলিমিটার, আর সেখানে বৃষ্টি হয় ১৩৫.০৭ মিলিমিটার। স্বাভাবিকভাবে বৃষ্টি হলে বীরভূমের ৩ লক্ষ হেক্টর জমিতে চাষ হয়, কিন্তু চাষ হয়েছে ৭০ থেকে ৭৫ হাজার হেক্টর জমিতে। বিভিন্ন কৃষকরা এখনও জমিতে ধান পুঁততে পারেননি জলের অভাবে, আবার যারা ধান পুঁতেছেন তাঁদের জমিতে জলের অভাব। শুধু ধান নয়, ধান ছাড়াও জমিতেই নষ্ট হতে বসেছে ঢ্যাঁড়স , শসা, কুমড়ো , বেগুন-সহ বিভিন্ন আনাজ। আর তাতেও সমস্যায় সিউড়ি এলাকার কৃষকেরা। হাতে গোনা কয়েকজন কৃষক পাম্প সেট দিয়ে জল জমিতে দিলেও ডিজেলের আকাশছোঁয়া দামে তাও কম চলছে। এখন বীরভূমের চাষীদের একটাই প্রার্থনা, বৃষ্টি৷

    আরও পড়ুন: তুষের বস্তা ঢাকা গাড়ি আটক করল পুলিশ, বীরভূমে আসলে যা মিলল ভিতরে, হার মানবে সিনেমাও!

    কৃষক শেখ রবিউল বলেন, "আকাশেও জল নেই, ক্যানেলেও জল নেই৷ কীভাবে চাষ হবে?  পাম্প সেট দিয়ে জল জমিতে জল দিলেও ডিজেলের দামের জন্য তাও কম চলছে।" বীরভূম জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায় চৌধুরী বলেন , "গত বছরের তুলনায় এই বছর বৃষ্টির হার কম। বৃষ্টি না হলে আমরা জল পাব কোথায়। এই কয়েক দিনের মধ্যে যদি বৃষ্টি হয় তবে আমরা জরুরি মিটিং করে জল ছেড়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করব।" বীরভূমের সহ কৃষি অধিকর্তা  একে এম মিনাজুর এহসান বলেন, "বৃষ্টি হবে এখনও এমনটাই আশাবাদী আমরা। যেহেতু জল অনেক কম রয়েছে তাই বৃষ্টি হলেই চাষের জন্যও ছাড়া হবে জল। "

    Supratim Das
    Published by:Rachana Majumder
    First published:

    Tags: Birbhum, Birbhum news

    পরবর্তী খবর