• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • পৌষমেলার মাঠ পাঁচিল ঘেরা নিয়ে তাণ্ডব-ভাঙচুর, অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ বিশ্বভারতী

পৌষমেলার মাঠ পাঁচিল ঘেরা নিয়ে তাণ্ডব-ভাঙচুর, অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ বিশ্বভারতী

পৌষমেলার মাঠের নির্মীয়মাণ পাঁচিল ভাঙছে প্রতিবাদীরা

পৌষমেলার মাঠের নির্মীয়মাণ পাঁচিল ভাঙছে প্রতিবাদীরা

ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে মেলা মাঠ বাঁচাও কমিটির বিরুদ্ধে৷ যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে মেলা মাঠ বাঁচাও কমিটি৷

  • Share this:

    #বোলপুর: বিশ্বভারতীতে পৌষমেলার মাঠে পাঁচিল নির্মাণকে ঘিরে শান্তিনিকেতনে ব্যাপক অশান্তি, ভাঙচুরের জেরে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিল বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ৷ বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রককেও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে এই সিদ্ধান্ত বলে সূত্রের খবর৷

    মেলার মাঠ পাঁচিল দিয়ে ঘেরার প্রতিবাদে সোমবার সকালে উত্তাল হয় বিশ্বভারতী৷ কয়েক হাজার বিক্ষুব্ধ জনতা ভাঙচুর চালায়৷ ভেঙে ফেলা হয়েছে মেলার মাঠের গেট ও নির্মীয়মাণ পাঁচিল৷ ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে মেলা মাঠ বাঁচাও কমিটির বিরুদ্ধে৷ যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে মেলা মাঠ বাঁচাও কমিটি৷

    এরপরেই ট্যুইটারে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়৷ একই সঙ্গে তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা হয়েছে বলেও জানান৷

    এই প্রসঙ্গে এ দিন সাংবাদিক সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'বিশ্বভারতী কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়৷ এটা কেন্দ্রের বিষয়৷ তবে আমি একটা কথাই বলব, রবীন্দ্রনাথ বিশ্ববিশ্বভারতী গড়ে তুলেছিলেন প্রাকৃতিক পরিবেশে শিক্ষাদানের জন্য। বাংলার ঐতিহ্য যাতে নষ্ট না হয়, বিশ্বভারতীর গৌরব এবং ঐতিহ্য যাতে অটুট থাকে, তা আমাদের সকলের দেখা উচিত। নির্মাণ মানেই তা সৌন্দর্য বাড়ায় এমনটা কিন্তু নয়।'

    করোনা পরিস্থিতিতে এ বছর পৌষমেলা হবে না বলে আগেই জানিয়েছে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। শনিবার থেকে শুরু হয় পৌষমেলার মাঠে পাঁচিল দেওয়ার কাজ। মেলার মাঠ ঘেরার প্রতিবাদ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা অনেকেই৷

    Published by:Arindam Gupta
    First published: