ভোটের আগে হিংসা অব্যাহত, রেজ্জাক-পুত্রের মিছিলে ‘হামলা’

ভোটের আগে হিংসা অব্যাহত, রেজ্জাক-পুত্রের মিছিলে ‘হামলা’
Representative Image

ভোট কবে। তা নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকলেও জেলায় জেলায় রাজনৈতিক সংঘর্ষে বিরাম নেই। কোথাও শাসক দল মার খেয়েছে, কোথাও তারাই হামলায় অভিযুক্ত।

  • Share this:

    #দেগঙ্গা: ভোট কবে। তা নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকলেও জেলায় জেলায় রাজনৈতিক সংঘর্ষে বিরাম নেই। কোথাও শাসক দল মার খেয়েছে, কোথাও তারাই হামলায় অভিযুক্ত।

    ভাঙড়ে প্রচারে বেরিয়েও আক্রান্ত মন্ত্রী রেজ্জাক মোল্লার ছেলে মোস্তাক আহমেদ। জেলা পরিষদের প্রার্থী মোস্তাক মিছিল নিয়ে এগোচ্ছিলেন। পাকাপোলের কাছে মোস্তাকের এক অনুগামীর গাড়ি ভাঙচুর হয়। এই ঘটনায় দলের অন্য গোষ্ঠীর দিকে আঙুল উঠেছে। পরে অবশ্য সব গোষ্ঠীর লোকেরাই হাতিশালায় একযোগে জনসভা করে।

    দেগঙ্গার সোহাই শ্বেতপুরে ভোটের আগে হিংসা। বোমাবাজিতে ঝরল রক্ত। আহত হন এক মহিলা। নির্দল প্রার্থীর বাড়িতে হামলায় নাম জড়িয়েছে তৃণমূলের। প্রার্থী মমতাজ বিবির বাড়ি ও এলাকার আটটি বাড়ি ভাঙচুর হয়। রাতে পুলিশ ঢোকার পর থেকে পুরুষশূন্য গ্রাম। মহিলাদের আশঙ্কা এই পরিস্থিতিতে রাতে হামলা হতে পারে।


    উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জে আক্রান্ত শাসক। তৃণমূল ব্লক সভাপতি বিজয় মিশ্রের বাড়িতে হামলা। তৃণমূল নেতার বাড়ির পাঁচ সদস্য আহত হয়েছেন। আক্রান্ত নেতার দাবি বিরোধীরা একযোগে হামলা চালিয়েছে।

    মালদহের ইংরেজবাজারে বিজেপির প্রচারে হামলার অভিযোগ ৷ কয়েকজন কর্মী, সমর্থক মার খান। টোটো ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

    কোচবিহারের গাড়োপাড়ায় মার খেলেন বিজেপি প্রার্থী। তাঁর বাড়ি ভাঙচুর হয়। প্রচারে বেরোনোর সময় মার খান বিজেপির কয়েকজন। তৃণমূলের দিকে অভিযোগ উঠলেও তা মানতে চায়নি শাসক দল।

    First published: