ফের বাঘের আতঙ্ক, শালবনির জঙ্গল লাগোয়া গ্রামে বন্যপ্রাণীর পায়ের দাগ, চাঞ্চল্য!

যদিও এই পায়ের ছাপ বাঘের বলে মানতে নারাজ বনদফতর। বনদফতরের কর্তাদের দাবি এটি হুড়াল জাতীয় কোন প্রাণীর পায়ের ছাপ।

যদিও এই পায়ের ছাপ বাঘের বলে মানতে নারাজ বনদফতর। বনদফতরের কর্তাদের দাবি এটি হুড়াল জাতীয় কোন প্রাণীর পায়ের ছাপ।

  • Share this:

#পশ্চিম মেদিনীপুর: বাঘের আতঙ্কে ফের ভয়ে কাঁপছেন জঙ্গলমহল এলাকার মানুষ! দু’বছরের মাথায় আবারও পশ্চিম মেদিনীপুরে ফিরে এসেছে বাঘের আতঙ্ক! বাঘঘোরা জঙ্গল লাগোয়া পায়রাচালি গ্রামের রাস্তায় ফের দেখা মিলেছে কোনও এক অজানা বন্য প্রাণীর পায়ের ছাপ। যা দেখে আতঙ্কে রাতের ঘুম উড়েছে গ্রামবাসীদের। রবিবার বিকেলে শালবনি থানার অন্তর্গত জঙ্গল লাগোয়া পায়রাচালি গ্রামের রাস্তায় হঠাৎই অজানা এক জন্তু দেখতে পান বেশ কয়েকজন গ্রামবাসী। এরপরই গ্রামের রাস্তায় দেখা যায় মেলে বেশ কিছু পায়ের ছাপ। মুহুর্তে বাঘের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়।

যদিও এই পায়ের ছাপ বাঘের বলে মানতে নারাজ বনদফতর। বনদফতরের কর্তাদের দাবি এটি হুড়াল জাতীয় কোন প্রাণীর পায়ের ছাপ। তবে গ্রামে যে আতঙ্ক রয়েছে তা মেনে নিয়েছেন পিড়াকাঠার রেঞ্জার পাপন মোহান্ত। প্রসঙ্গত, বছর দুয়েক আগে দক্ষিণ রায়ের দেখা মিলে ছিল মেদিনীপুর সদর ব্লকের বাঘঘোরার জঙ্গলে। সেসময় প্রথম দিকে পায়ের ছাপ দেখা গেলেও বাঘের উপস্থিতি যে পশ্চিম মেদিনীপুরে থাকতে পারে তা কার্যত অস্বীকার করেন বন বিভাগের কর্তারা।

তবে পরে অবশ্য দেখা মেলে বিশালাকার রয়েল বেঙ্গল টাইগার। এমনকি আদিবাসীদের শিকার উৎসবে মর্মান্তিক মৃত্যুর মুখে ঢোলে পড়ে সেই রয়েল বেঙ্গল টাইগার। তবে দক্ষিণ রায়ের দাপট কি ফের ফিরবে জঙ্গলমহলে! সেই প্রশ্নই ঘুরে বেড়াচ্ছে শালবনীর জঙ্গল অধ্যুষিত পায়রাচালির বাসিন্দাদের মধ্যে৷

Published by:Pooja Basu
First published: