অটো করে ছাগল চুরি করতে এল মহিলাদের গ্যাং, ফাঁদ পেতে ধরল গ্রামবাসীরা

অটো করে ছাগল চুরি করতে এল মহিলাদের গ্যাং, ফাঁদ পেতে ধরল গ্রামবাসীরা
এই ঘটনা জানাজানি হতেই ওই গ্যাংয়েরচার মহিলাকে রাস্তায় ফেলে ব্যপক মারধর শুরু করে গ্রামবাসীরা । এলাকায় উত্তেজনা তৈরি হয় ।

এই ঘটনা জানাজানি হতেই ওই গ্যাংয়েরচার মহিলাকে রাস্তায় ফেলে ব্যপক মারধর শুরু করে গ্রামবাসীরা । এলাকায় উত্তেজনা তৈরি হয় ।

  • Share this:

    Dipak Sharma

    #কুলটি: ছাগল চোরের গ্যাং ধরা পড়ল কুলটিতে। ধৃত গ্যাং-এর চার সদস্যই মহিলা। খবর চাওড় হতেই স্থানীয় মহিলাদের গণপিটুনির শিকার হয় ধৃতরা। স্থানীয়দের অভিযোগ, অটোতে করে ওই চার মহিলা ছাগল চুরি করতে এসেছিল। চুরি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ে তারা। এরপর ওই অটো সহ চার মহিলাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। কুলটি থানার নিয়ামতপুর ফাঁড়ির পুলিশ, ধৃতদের নিয়ে গেলেও তাদের নাম পরিচয় এখনও জানতে পারেনি বলেই খবর।

    বৃহস্পতিবার ঘটনাকে কেন্দ্র করে চরম উত্তেজনা ছড়ায় কুলটি থানার ডেডি গ্রাম সংলগ্ন এলাকায়। ওই এলাকায় অনেক গৃহস্থ আছেন যাঁরা ছাগল পোষেন। সামনে মনসা পুজো ও দুর্গা পুজো বলে অনেকে পাঁঠাও পালন করছেন।


    কিন্তু ছাগলগুলি চড়তে গিয়ে ফিরে আসছিল না। প্রায়ই কারও না কারও ছাগল উধাও হয়ে যাচ্ছিল। চুরি হচ্ছে এই সন্দেহে স্থানীয়রা নজরদারি বাড়ান। বিশেষ করে গ্রামসংলগ্ন নিয়ামতপুর চিত্তরঞ্জন রোডের ওপর নজরদারি ছিল গ্রামবাসীদের। বৃহস্পতিবার তাঁরা দেখেন চারজন মহিলা চড়তে থাকা ছাগলগুলিকে হঠাৎ করেই কোলে তুলে নিয়ে ওড়না ঢাকা দিয়ে রাস্তার দিকে দ্রুত পালিয়ে যাচ্ছে। এরপরেই দেখা যায় চারজন মহিলা ছাগল নিয়ে একটি অটোতে উঠছে।

    প্রত্যক্ষদর্শীরা দ্রুত অটোসহ ওই মহিলাদের ধরে ফেলে। চুরি যাওয়া ছাগলগুলিও উদ্ধার হয়। এই ঘটনা জানজানি হতেই গ্রামের মহিলারা ধৃতদের গণপ্রহার দিতে শুরু করে। খবর পেয়ে নিয়ামতপুর ফাঁড়ির পুলিশ ওই মহিলাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। তবে উদ্ধারে বেশ বেগ পেতে হয় পুলিশকে। কার্যত উত্তেজিত জনতার সঙ্গে ধস্তাধস্তি করে গণপ্রহারের শিকার ধৃতদের কার্যত উদ্ধার করতে হয়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

    Published by:Simli Raha
    First published:

    লেটেস্ট খবর