corona virus btn
corona virus btn
Loading

আজ রানাঘাট গণধর্ষণ মামলার রায়, অভিযুক্তদের যাবজ্জীবন সাজা হওয়ারই সম্ভাবনা

আজ রানাঘাট গণধর্ষণ মামলার রায়, অভিযুক্তদের যাবজ্জীবন সাজা হওয়ারই সম্ভাবনা
নিজস্ব চিত্র

অবশেষে রাণাঘাটে সন্ন্যাসিনী গণধর্ষণ মামলার আজ রায়। নগর দায়রা আদালতে বিচারক রায় দেবেন।

  • Share this:

#রাণাঘাট: অবশেষে রাণাঘাটে সন্ন্যাসিনী গণধর্ষণ মামলার আজ রায়। নগর দায়রা আদালতে বিচারক রায় দেবেন। গণধর্ষণ, ডাকাতি-সহ একাধিক ধারায় অভিযুক্ত ৬ জন। যাদের বিরুদ্ধে দোষ প্রমাণিত হয়েছে। যাবতীয় তথ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে আইন অনুসারে এদের যাবজ্জীবন সাজা হওয়ারই সম্ভাবনা।

২০১৫ সালের ১৪ মার্চ। শিউরে উঠেছিল গোটা রাজ্য। রানাঘাটে একটি চার্চ ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ডাকাতি করতে ঢুকে সত্তোরোর্ধ্ব এক সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণ করে ৭ দুস্কৃতী। সিআইডি তদন্তে একে একে উঠে আসে চাঞ্চল্যকর সব তথ্য। একে একে গ্রেফতার হয় ৬ দুস্কৃতী। একজন এখনও ফেরার। এই ঘটনাতেই মঙ্গলবার রায় দেবে রাণাঘাট নগর দায়রা আদালত।

ধর্ষণে অভিযুক্তরা

নজরুল ইসলাম ওরফে নজু খালেদুর রহমান মিলন কুমার সরকার ওহিদুল ইসলাম ওরফে বাবু গোপাল সরকার মহম্মদ সেলিম শেখ

এর মধ্যে একমাত্র সেলিম শেখ ছাড়া আর সবাই বাংলাদেশি নাগরিক। প্রবীণ সন্ন্যাসীনিকে ধর্ষণের আগে ৬ লক্ষ টাকা ও সোনার গহনা লুঠ করা হয় ঘটনার সময় নিরাপত্তাকর্মী ও অন্যান্যদের দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখে দুস্কৃতীরা

২০১৫ সালের ১৭ জুন শিয়ালদহ স্টেশনের কাছে গ্রেফতার হয় ধর্ষণ ও ডাকাতিতে মূল অভিযুক্ত নজরুল ইসলাম ৷ মে মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে ধরা পড়ে মিলন সরকার ও ওহিদুল ইসলাম মূল ও অতিরিক্ত চার্জশিটে ৯৭ জন সাক্ষীর বয়ান পেশ করা হয় ৷

সাক্ষীদের বয়ান, অভিযুক্তদের জবানবন্দী ছাড়াও সিআইডির তরফে পেশ করা হয় বেশ কিছু তথ্যপ্রমাণ।

৬টি ক্যামেরার সিসিটিভি ফুটেজ আলমারি ও সিগারেটে থেকে মেলা আঙুলের ছাপ জামাকাপড়ে লেগে থাকা রক্ত ও বীর্যের নমুনা

তদন্তে নেমে বিশে জুন প্রথম চার্জশিট দেয় সিআইডি। ওই বছরই ১১ সেপ্টেম্বর জমা পড়ে অতিরিক্ত চার্জশিট।

অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণিত। শুনানিতে একে বিরলতম অপরাধ বলে দাবি করেছেন সরকারি আইনজীবী। আইনের যুক্তিতে অভিযুক্তদের যাবজ্জীবন কারাদন্ডের সাজা হওয়ারই সম্ভাবনা।

First published: November 7, 2017, 9:23 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर