corona virus btn
corona virus btn
Loading

পটল, ঢ্যাঁড়শ, পেঁয়াজ ২০ টাকা কেজি ! লকডাউনে জলের দাম সবজির

পটল, ঢ্যাঁড়শ, পেঁয়াজ ২০ টাকা কেজি ! লকডাউনে জলের দাম সবজির
একইসঙ্গে বাজার থেকে আনা সবজি থেকে যাতে কোনওরকম বিপদ না ছড়ায়৷ তার জন্য সবজি উষ্ণ গরমজলে ধুয়ে নেওয়ার পরামর্শ মুখ্যমন্ত্রীর ৷ একইসঙ্গে বিপদ এড়াতে এই কয়েকদিন কাঁচা খাবার বন্ধ রেখে ভাল করে ফুটিয়ে, সেদ্ধ করে রান্না করে খাওয়া উচিত ৷ বিশেষত ডিম বেশি সেদ্ধ করে খাওয়ার পক্ষপাতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

জেনে নিন কত দাম সবজির

  • Share this:

#বর্ধমান: ক্রেতা কম। লকডাউনের জন্য বাড়ি থেকে বের হচ্ছেন না অনেকেই। তার জেরে দিন দিন সস্তা হচ্ছে সবজি। বর্ধমানের বিভিন্ন বাজারে সবজির দাম কমেছে অনেকটাই। বিক্রেতারা বলছেন, সবজির যোগান ভালোই রয়েছে। সে অনুপাতে ক্রেতা নেই। রাত পোহালে সবজি নষ্ট হয়ে যাবে। শুকনো সবজির দিকে ক্রেতারা ঘুরেও তাকাবেন না। তাই অনেক কম দামেই সবজি বিক্রি করে দিতে হচ্ছে।

এদিন বর্ধমানের বাজারগুলিতে পটলের কেজি প্রতি দাম ছিল ২০ টাকা। ঝিঙে বিক্রি হয়েছে ২৫-৩০ টাকা কেজিতে। পালং শাক ২০ টাকা কেজি। আলুর কেজি প্রতি দর ১৮ টাকা। পেঁয়াজ ২০ টাকা কেজি। কাঁচা লঙ্কা ২৫ টাকা কেজি। করোলা ২০ টাকা কেজি। ঢেঁড়শে ২০ টাকা কেজি। পাকা কুমড়ো ৩০ টাকা কেজি। বেগুন ২৫-৩০ টাকা। টোম্যাটো ১৫ টাকা কেজি । কাঁচকলা ১০ টাকায় ৪টে। পেঁপে ২০ টাকা কেজি। সজনে ডাঁটা ৪০ টাকা কেজি । এঁচোর, বিনস, বরবটি, বিট, গাজর, ক্যাপসিকাম সবেরই দাম মধ্যবিত্তের নাগালের মধ্যেই রয়েছে।

বর্ধমান শহরের বি সি রোডে এখন অনেকেই সবজি বিক্রি করছেন। অনেক এলাকাতেই এই লকডাউনের বাজারে নতুন নতুন সবজির দোকান তৈরি হয়েছে। এছাড়াও রয়েছে বর্ধমানের রেল স্টেশন বাজার, তেঁতুলতলা বাজার, নীলপুর বাজার, পুলিশ লাইন বাজার... সব বাজারেই ক্রেতা কমছে দিন দিন। বিক্রেতারা বলছেন, প্রথম কয়েকদিন বাজারে খুব হুড়োহুড়ি ছিল। এখন যত দিন যাচ্ছে, তত ফাঁকা হচ্ছে বাজার। অনেকেই এখন বাড়তি পথ পেরিয়ে বাজারে না গিয়ে ঘরের দরজা থেকেই সবজি কিনে নিচ্ছেন। অনেকে বাজারের থলি হাতে নিয়েও বাড়ির অন্যান্যদের বাঁধায় বাজার যাওয়ার পরিকল্পনা থেকে সরে আসছেন।

Saradindu Ghosh

 
Published by: Rukmini Mazumder
First published: March 31, 2020, 6:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर