• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • 'অতি-উত্তম ল্যাংচা', ল্যাংচা মহলে মহানায়কের স্মৃতি আজও অমলিন

'অতি-উত্তম ল্যাংচা', ল্যাংচা মহলে মহানায়কের স্মৃতি আজও অমলিন

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব চিত্র

ল্যাংচা তাঁর কাছে ছিল অতি-উত্তম। টালিগঞ্জকে নাকি ল্যাংচার মাহাত্ম্যও বুঝিয়েছিলেন।

  • Share this:

    #বর্ধমান: ল্যাংচা তাঁর কাছে ছিল অতি-উত্তম। টালিগঞ্জকে নাকি ল্যাংচার মাহাত্ম্যও বুঝিয়েছিলেন। শক্তিগড়ের ল্যাংচা খেয়ে তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলে সিনেমাপাড়ার জন্য কেজি কেজি ল্যাংচা নিয়ে আসতেন। ল্যাংচা মহলে আজও বাঁধানো উত্তম কুমারের হাতের লেখা। প্রয়াণ দিবসে ল্যাংচা মহলে আজ মহানায়কের হারানো সুর।

    তিনি বাঙালির উত্তম কুমার। মহানায়ক। খেতে বড্ড ভালবাসতেন। আর শেষ পাতে মিষ্টির নামে তাঁরও জিভে জল। শক্তিগড়ের বিখ্যাত ঘিয়ে ভাজা গরম ল্যাংচায় তিনি এমন মজেছিলেন যে শুধু খেয়ে নয়,খাইয়ে তবে তৃপ্তি পেতেন। কলকাতার বাইরে শুিটংয়ে গেলে শক্তিগড়ের ল্যাংচা মহলে ঢুকতেনই। তারপর একের পর এক পেটে চালান। নিয়মে ছেদ পড়ত না। সিনেমাপাড়ার জন্য নিয়ে আসতেন হাঁড়ি হাঁড়ি ল্যাংচা।

    আরও পড়ুন: বিস্ময়ের অন্য নাম উত্তম কুমার, ফ্লপ মাস্টার থেকে হয়ে উঠেছিলেন মহানায়ক

    তখন ল্যাংচা মহলের মালিক ছিলেন কানাইলাল দত্ত। ভরপেট ল্যাংচা খেয়ে গদগদ উত্তম কুমার। ল্যাংচা মহলের প্রশংসায় কলম ডুবল আবেগে। ১৯৬২ সালের ১৩ এপ্রিলে মহানায়কের লেখা ও সই আজও জ্বলজ্বল করে। দোকানের নামেও উত্তম। প্রয়াণ দিবসে স্মৃতিরা বড্ড ভিড় করে। ঘিয়ে ভাজা যে ল্যাংচায় ভুলেছিলেন খোদ মহানায়ক, সেই মিষ্টির হাতছানি উপেক্ষার সাধ্যি কোথায়? সত্যজিৎ রায়, ঋতুপর্ণ ঘোষ, প্রসেনিজৎ, ঋতুপর্ণা, চুনী গোস্বামী, শৈলেন মান্না, পিকেও ঢুঁ মেরেছেন শক্তিগড়ের ল্যাংচার দোকানে।

    আরও পড়ুন: অতি 'উত্তম'! আজ থেকে নন্দনে মহানায়কের ছবির উত্‍‍সব, কখন?

    শোনা যায়, মুম্বইকেও লাকি শক্তিগড়ের ল্যাংচা চাখিয়েছেন তিনি। বর্ধমানে পা দিয়ে বিগ বি-ও কিন্তু এর রসে বশ হয়েছেন। বাদ যাননি অনিল কাপুর, গোবিন্দাও। ল্যাংচা খেয়ে ধন্যি ধন্যি করতেন। মহানায়কের কাছে ল্যাংচা ছিল অতি- উত্তম।

    প্রতিবদন: শরদিন্দু ঘোষ

    First published: