দেওয়ালে দেওয়ালে শাসক-বিরোধী ‘ছড়া যুদ্ধ’ নজর কাড়ছে মালদহে

দেওয়ালে দেওয়ালে শাসক-বিরোধী ‘ছড়া যুদ্ধ’ নজর কাড়ছে মালদহে

two liners by tmc and BJP under focus rules Maldah WB Election 2021

এগিয়ে আসছে বিধানসভা নির্বাচন। মিছিল-মিটিংয়ের পাশাপাশি লড়াই জমে উঠেছে পাড়ায়, পাড়ায় দেওয়ালে দেওয়ালে। একে অন্যকে বিঁধতে মালদহে রীতিমতো ছড়ায় ছড়ায় দেওয়াল রাঙাচ্ছে শাসক ও বিরোধীরা।

  • Share this:

#মালদহ: ক্রমেই এগিয়ে আসছে বিধানসভা নির্বাচন। মিছিল-মিটিংয়ের পাশাপাশি লড়াই জমে উঠেছে পাড়ায়, পাড়ায় দেওয়ালে দেওয়ালে। একে অন্যকে বিঁধতে মালদহে রীতিমতো ছড়ায় ছড়ায় দেওয়াল রাঙাচ্ছে শাসক ও বিরোধীরা। বিজেপির দেওয়াল লিখনে উঠে এসেছে শাসকদলের উদ্দেশ্যে নানান তীর্যক কটাক্ষ। অন্যদিকে শাসকদলের ছড়ায় হাতিয়ার উন্নয়ন।

মালদা শহরের বিভিন্ন এলাকায় দেওয়ালে দেওয়ালে ধরা পড়ছে ছড়া যুদ্ধের ছবি। নিজেদের মতো করে ছোট ছোট ছড়া তৈরি করে দেওয়াল লিখনে ফুটিয়ে তুলছেন শাসক আর বিরোধীরা। ইংরেজবাজার পুরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের জামতলি, পুড়াটুলি, সদরঘাট প্রভৃতি এলাকায় দেওয়ালে দেওয়ালে রীতিমতো টক্কর শুরু হয়ে গিয়েছে। বিজেপির দেওয়াল লিখনে কোথাও বলা হয়েছে, "কাঁদছে মা, কাঁদছে মাটি। বিদায় করো, হাওয়াই চটি"৷ আবার কোথাও বলা হয়েছে, "পুঁতে ছিলেন ঘাস, হয়ে গেছে বাঁশ। আর করো না ভুল, তারাও তৃণমূল।" এমনকী এও বলা হয়েছে, "দিদি যবে বিদায় নেবে, সেদিন আসল খেলা হবে।"

কর্মসংস্থানের সমস্যা তুলে ধরতে ছড়া কেটে দেওয়াল লিখে বলা হয়েছে:-  "দরকার ছিল শিল্প, পিসি বললো লন্ডনের গল্প, যুবকরা চাইল কাজ, দিদি বলল চপ ভাজ।" রাজ্যে পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়ে দেওয়াল লিখনে বলা হয়েছে, "এই মাটিতেই হিসাব হবে, গেরুয়া আবীরে খেলা হবে৷" ইংরেজবাজারে বিজেপি প্রার্থীর নাম এখনA ঘোষণা হয়নি। এই অবস্থায় প্রার্থীর নাম ফাঁকা রেখে, প্রতীক আর ছড়া দিয়ে চলছে দেওয়াল লিখন। তবে,  রাজনৈতিক ইস্যু ছাড়িয়ে কিছু ক্ষেত্রে দেওয়াল লিখনে উঠে এসেছে ব্যক্তিগত আক্রমণও।বিজেপি জেলা সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মণ্ডল বলেছেন, সাধারণ মানুষের অনেকেই ছড়া পছন্দ করেন। তাই ভোটারদের একাংশকে আকৃষ্ট করতেই এভাবে দেওয়াল লিখন হয়েছে। সাধারণ মানুষের মধ্যে এতে সাড়াও মিলছে।

দেওয়াল লিখনে পিছিয়ে নেই তৃণমূলও। রাজ্যে শাসকদলের উন্নয়নকেই হাতিয়ার করে পাল্টা ছড়া যুদ্ধে নেমেছে তৃণমূলও। ইংরেজ বাজারের  দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে দেওয়াল লিখনে কোথাও বলা হয়েছে,- "সাদা শাড়ি, নীল পাড়। ঘরের মেয়ে, বারবার।" আবার কোথাও বলা হয়েছে, ‘এই রাজ্যে দিদির রাজ, পিঁপড়ের ডিম অতীত আজ।’ মাওবাদীরা ছাড়খাড়, মমতাদি আরেকবার।" উন্নয়নের অস্ত্রে শান দিয়ে লেখা হয়েছে, ‘গরিব মায়েদের মুখে হাসি। বিনামূল্যে রেশন আর কন্যাশ্রী"। ভোট প্রচারে দেওয়ালে লেখা ছড়া, সাধারণ ভোটারদের মন ছুঁয়ে যাচ্ছে বলে দাবি করেছেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের জেলা সভাপতি প্রসেনজিৎ দাস। রাজ্যে সপ্তম এবং অষ্টম দফায় মালদহ জেলার ১২টি বিধানসভা আসনের ভোট গ্রহণ। তার আগে দেওয়ালে দেওয়ালে লেখা ছড়া নিয়ে এখন জোর চর্চা সাধারণের মধ্যে।

(সেবক দেবশর্মা)

Published by:Subhapam Saha
First published: