দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাস্তায় তুলে রাখা হয়েছিল যুবকের ছবি, তাতেই চুরির ঘটনার কিনারা !

রাস্তায় তুলে রাখা হয়েছিল যুবকের ছবি, তাতেই চুরির ঘটনার কিনারা !

দুই সিভিক ভলেন্টিয়ারের উপস্থিত বুদ্ধি ধরিয়ে দিল সোনার দোকানে চুরির ঘটনায় অভিযুক্ত দুষ্কৃতীদের।

  • Share this:

#বর্ধমান: দুই সিভিক ভলেন্টিয়ারের উপস্থিত বুদ্ধি ধরিয়ে দিল সোনার দোকানে চুরির ঘটনায় অভিযুক্ত দুষ্কৃতীদের। মধ্য রাতে এক যুবককে উদ্দেশ্যবিহীন ভাবেই ঘোরাঘুরি করতে দেখে তাকে আটক করেছিল দুই সিভিক ভলেন্টিয়ার। তার দেহে তল্লাশি চালিয়ে কিছু পাওয়া না গেলেও মোবাইল ফোনে তার ছবি তুলে রেখেছিল তারা। সেই ছবির সূত্র ধরেই সোনার দোকানে চুরির ঘটনার কিনারা করল পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ।

শনিবার রাতে পূর্ব বর্ধমানের জামালপুরের মনিরামবাটি কালী তলায় একটি সোনার দোকানে চুরির ঘটনা ঘটে। গোপাল হালদার নামে এক সোনা ব্যবসায়ীর দোকানে ওই চুরি হয়। মধ্য রাতে দোকানের শাটার ভেঙে দোকানে ঢুকে দুষ্কৃতীরা। এরপর তারা দোকানে থাকা দেড় কেজি রুপোর গয়না,কুড়ি পঁচিশ গ্রাম সোনার গয়না, নগদ টাকা নিয়ে চম্পট দেয় বলে ওই ব্যক্তি জামালপুর থানায় লিখিত অভিযোগ জানান।

সেই সময় কিছু দূরে টহল দিচ্ছিল দুই সিভিক ভলেন্টিয়ার। তারা এক যুবককে উদ্দেশ্যবিহীন ভাবে ঘোরাঘুরি করতে দেখে তাকে দাঁড় করায়। সন্দেহ হওয়ায়  তারা তার দেহে তল্লাশি চালায়। তল্লাশিতে কিছুই মেলেনি। তবুও তারা সেই যুবককে ছেড়ে দেওয়ার আগে মোবাইল ফোনে তার ছবি তুলে রাখে। এর পরদিন চুরির বিষয়টি সামনে এলে ওই দুই সিভিক  ভলেন্টিয়ার এক যুবককে ঘুরতে দেখা ও তার ছবি তুলে রাখার কথা জানান পুলিশ অফিসারদের। ছবিতে থাকা সেই যুবককে খুঁজে বের করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে জামালপুর থানার পুলিশ। দীর্ঘ জেরায় সে চুরির ঘটনায় যুক্ত থাকার কথা স্বীকার করে। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে আরও একজনকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়।

সোমবার জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় বলেন, জামালপুরে চুরির ঘটনায় দু'জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে বেশির ভাগ রূপোর গয়না উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। দুই সিভিক ভলেন্টিয়ারের উপস্থিত বুদ্ধির কারণেই চুরির কিনারা এত তাড়াতাড়ি করা সম্ভব হল। তল্লাশির পর কিছু না পেয়েও তারা ছবি তুলে রেখেছিল। সেই কাজ প্রশংসনীয়। ওই দুই সিভিক ভলেন্টিয়ারকে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশের তরফে পুরস্কৃত করা হবে।

শরদিন্দু ঘোষ

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: May 4, 2020, 4:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर