corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনে গৃহপালিত পশুদের চিকিৎসা জন্য থাকছে বিশেষ ব্যবস্থা

লকডাউনে গৃহপালিত পশুদের চিকিৎসা জন্য থাকছে বিশেষ ব্যবস্থা

মন্ত্রী জানান, করোনা সংক্রমণের হাত থেকে গৃহপালিত প্রাণী, হাঁস মুরগি-সহ পথ কুকুরদের বাঁচাতে বিশেষ পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: লকডাউনে চিকিৎসা পাবে গৃহপালিত পশুরাও। পথের কুকুররাও সেই পরিষেবা পাবে। কোনও এলাকায় কোনও পথ পশু অসুস্থ হলে প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের হেল্প লাইন নম্বরে ফোন করলে সেখানে পৌঁছে যাবে মোবাইল ভ্যান। সেই ভ্যানে থাকা প্রাণীরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসা করবেন।

লক ডাউনের জেরে অসুবিধায় পড়া গৃহপালিত প্রাণী-সহ পথ কুকুরদের স্বাস্থ্য পরিষেবা দিতে রাজ্য প্রাণী সম্পদ উন্নয়ন বিভাগ বিশেষ হেল্প লাইন চিকিৎসা ব্যবস্থা চালু করল। নির্দিষ্ট নম্বরে কল করলে যে কোন অবস্থায় ভেটেনারি মোবাইল চিকিৎসা ইউনিটের ভ্যান সেই জায়গায় হাজির হয়ে যাবে। রাজ্যের প্রাণী সম্পদ উন্নয়ন বিভাগের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এই তথ্য জানিয়েছেন। মঙ্গলবার থেকে এই পরিষেবা পরীক্ষামূলক ভাবে পূর্ব বর্ধমান জেলায় চালু করা হল। খুব তাড়াতাড়ি তা সারা রাজ্যে চালু করা হবে। ভেটেনারি মোবাইল চিকিৎসা ভ্যানের মাধ্যমে এই পরিষেবা দেওয়া হবে বলে মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন। এদিন পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়ায় প্রাণী সম্পদ বিভাগের সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল জীবানু মুক্ত করার জন্য সেখানে স্যানিটাইজার স্প্রে করা হয়।

মন্ত্রী জানান, করোনা সংক্রমণের হাত থেকে গৃহপালিত প্রাণী, হাঁস মুরগি-সহ পথ কুকুরদের বাঁচাতে বিশেষ পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এবার থেকে পথ কুকুরদের চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়া হবে প্রাণী সম্পদ দফতরের চিকিৎসা কেন্দ্র থেকে। রাজ্যে প্রানী সম্পদ বিভাগের সুপার স্পেশালিটি পশু হাসপাতাল আছে ১১৪টি। ব্লক স্তরে পশু হাসপাতালের সংখ্যা ৩১৪টি। উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্র আছে ১৭৭টি এবং সরকার পরিচালিত হাঁস মুরগির খামার আছে ২৯টি। প্রত্যেকটি জায়গাকে জীবানু মুক্ত করা হবে। ইতিমধ্যেই সেই কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে।

সেই সঙ্গে পূর্ব বর্ধমান জেলায় মঙ্গলবার থেকে গৃহ পালিত প্রাণী-সহ পথ কুকুরদের স্বাস্থ্য পরিষেবা দেওয়ার জন্য মোবাইল চিকিৎসা ভ্যানের পরিষেবা চালু করা হল। হেল্প লাইন নম্বর ৭৬০৪০১০০৩৫। এই নম্বরে ফোন করলে মোবাইল ভ্যান গিয়ে চিকিৎসা করে আসবে।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: April 7, 2020, 9:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर