Digha: দিঘায় বেড়াতে গিয়ে সমুদ্রে হাউস বোটে রাত কাটানোর সুযোগ? ভাবনা পর্যটন দফতরের

দিঘায় এবার নতুন আকর্ষণ?

করোনার দাপট কমার পর ইয়াস বিধ্বস্ত দিঘা (Digha), মন্দারমণি, তাজপুরে কী ভাবে পর্যটনে আগের মতো জোয়ার আনা যায়, তা খতিয়ে দেখতেই পরিদর্শনে গিয়েছিলেন ইন্দ্রনীল সেন৷

  • Share this:

#দিঘা: দিঘায় বেড়াতে গিয়ে কি এবার সমুদ্রের বুকে হাউসবোটে রাত কাটানোর মজা উপভোগ করতে পারবেন পর্যটকরা? সেরকমই পরিকল্পনার কথা জানালেন পর্যটন মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন৷ শুধু হাউস বোটই নয়, সমুদ্রের বুকে ভাসমান রেস্তোরাঁ তৈরির পরিকল্পনাও করেছে রাজ্য পর্যটন দফতর৷

করোনার দাপট কমার পর ইয়াস বিধ্বস্ত দিঘা, মন্দারমণি, তাজপুরে কী ভাবে পর্যটনে আগের মতো জোয়ার আনা যায়, তা খতিয়ে দেখতেই পরিদর্শনে গিয়েছিলেন ইন্দ্রনীল সেন৷ রবিবার দিঘায় পৌঁছে স্থানীয় হোটেল মালিক সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করার পাশাপাশি ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্ত সমু্দ্র তীরবর্তী পর্যটন স্থলগুলি পরিদর্শন করেন তিনি৷ সোমবার সকালে একই মন্দারমণি এবং তাজপুরেও পরিদর্শন সারেন তিনি৷

জানা গিয়েছে, দিঘার কাছে নৈকালী মন্দির সংলগ্ন সমুদ্রেই দু'টি হাউস বোট তৈরি করে রাখা যায় কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷ এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে কাশ্মীরের ডাল লেক মতোই দিঘার সমুদ্রের বুকে হাউস বোটে রাত কাটানোর সুযোগ পাবেন পর্যটকরা৷ হাউস বোটের পাশাপাশি ভাসমান রেস্তোরাঁ চালু করার পরিকল্পনাও নেওয়া হয়েছে৷ সেক্ষেত্রে দিঘার কাছে নতুন এই পর্যটন কেন্দ্রের আকর্ষণও অনেকটা বৃদ্ধি পাবে বলে আশাবাদী পর্যটন মন্ত্রী৷

এর পাশাপাশি, করোনা সংক্রমণের দাপট অনেকটা কমায় গত বারের মতো এ বছরও ধীরে ধীরে দিঘা, মন্দারমণিতে পর্যটকদের সংখ্যা বাড়বে বলেই আশাবাদী হোটেল ব্যবসায়ীরা৷ তবে ইয়াের জেরে ক্ষয়ক্ষতি এবং করোনা পর্বে আর্থিক লোকসানের ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে রাজ্য সরকারের থেকে সহযোগিতা চেয়েছেন হোটেল মালিকরা৷ পর্যটন মন্ত্রী অবশ্য হোটেল মালিকদের রাজ্যের তরফে সবরকম সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন৷ তবে পর্যটক সংখ্যা বাড়লেও হোটেলগুলি যাতে করোনা বিধি মেনে চলে, সে বিষয়েও জোর দেওয়া হয়েছে৷

ইন্দ্রনীল সেন বলেন, 'বাংলা যা আজ ভাবে, গোটা ভারত তা অনুসরণ করে৷ পর্যটন ক্ষেত্রেও তাই হবে৷ দিঘা, মন্দারমণি, তাজপুরেও পর্যটন ব্যবসা ঘুরে দাঁড়াবে৷ মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী ইয়াস ঘূর্ণিঝড়ের পর নিজে এখানে এসে প্রয়োজনীয় নির্দেশ দিয়ে গিয়েছেন৷ তাঁর নির্দেশ মতোই দ্রুত দিঘা, মন্দারমণিকে আগের মতো সাজিয়ে তোলা হবে৷'

Published by:Debamoy Ghosh
First published: