• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • হাড় কাঁপানো ঠান্ডা! শাহের সফর-অনুব্রত উবাচ, চায়ের ভাঁড়ে তুফান তুলে জমছে রাজনীতির আড্ডা

হাড় কাঁপানো ঠান্ডা! শাহের সফর-অনুব্রত উবাচ, চায়ের ভাঁড়ে তুফান তুলে জমছে রাজনীতির আড্ডা

সপ্তাহের প্রথম দিনেই তাই চায়ের দোকানে বাড়ছে ভিড়। ঠান্ডার অনুভূতি ও রাজনৈতিক উত্তেজনাকে সঙ্গে নিয়েই গরম চায়ের কাপে চুমুক বীরভূমবাসীর।

সপ্তাহের প্রথম দিনেই তাই চায়ের দোকানে বাড়ছে ভিড়। ঠান্ডার অনুভূতি ও রাজনৈতিক উত্তেজনাকে সঙ্গে নিয়েই গরম চায়ের কাপে চুমুক বীরভূমবাসীর।

সপ্তাহের প্রথম দিনেই তাই চায়ের দোকানে বাড়ছে ভিড়। ঠান্ডার অনুভূতি ও রাজনৈতিক উত্তেজনাকে সঙ্গে নিয়েই গরম চায়ের কাপে চুমুক বীরভূমবাসীর।

  • Share this:

#বোলপুর: সোমবারের সকালে হাড় কাঁপানো ঠান্ডা বীরভূমে। সিউড়ির রাস্তায়   সকাল থেকেই লোক সংখ্যা হাতে গোনা। কাজ না থাকলে তেমনভাবে কেউ বাইরে বেরোননি।  আর তাও যাঁরা কাজ বাদে রাস্তায় বেরিয়েছেন, তাঁদের বেশিরভাগই ভিড় জমিয়েছেন  পাড়ার চায়ের দোকানগুলিতে।

সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। অনেকেরই মতে, এ বারের নির্বাচন হবে এক্কেবারে টানটান।  রাজ্যের শাসক দল থেকে বিরোধী দল, কেউ কাউকে এক ইঞ্চি জমি ছাড়তে নারাজ। তার ওপর বীরভূম তৃণমূলের দাপুটে নেতা অনুব্রত মণ্ডলের গড়। সেই কেষ্টোর এলাকায় রবিবার শোকই প্রদর্শন করেছে বিজেপি। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ দিনভর দাপিয়ে বেরিয়েছেন জেলায় এলাধিক এলাকা। হুডখোলা গাড়িতে, পাশে দিলীপ ঘোষকে নিয়ে রোড শো করেছেন। হাজার হাজার মানুষ গোলাপের পাপর বিছিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে অভিবাদনও জানিয়েছে। তার ওপর আজ আবার অনুব্রত পাল্টা সভা করবেন বোলেই সূত্রের খবর। এমতাবস্থায় জেলার বাসিন্দাদের চায়ের কাপে তুফান ওঠা যদিও অমূলক নয় মোটেই।

সপ্তাহের প্রথম দিনেই তাই চায়ের দোকানে বাড়ছে ভিড়। ঠান্ডার অনুভূতি ও রাজনৈতিক উত্তেজনাকে সঙ্গে নিয়েই গরম চায়ের কাপে চুমুক বীরভূমবাসীর।  এলাকাবাসীর দাবি, বিগত কয়েকদিনের তুলনায় আজ ঠান্ডা বেশি। কনকনে শীত সিউড়িতে। সকাল থেকে চায়ের দোকানগুলোতে বেড়েছে ভিড়। ঠান্ডার অনুভূতি যেমন নিচ্ছেন সাধারণ মানুষ, তেমনি চলছে জমাটি আড্ডা। এ দিকে, শীতের আমেজ শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বিভিন্ন জায়গায় পিকনিক শুরু হয়ে গিয়েছে বীরভূমে। বক্রেশ্বর, দুবরাজপুর, মামা-ভাগ্নে পাহাড়----সব জায়গাতেই বেড়েছে পর্যটকদের ভিড়।

বক্রেশ্বরের উষ্ণ প্রস্রবণের গরম জলে স্নানের মজাই এই সময় আলাদা। দুবরাজপুরের পাহাড়ের স্বরের মন্দিরে পুজো দিয়ে মামা-ভাগ্নে পাহাড় দেখতে ভীড় রয়েছে পর্যটকদের৷ শহরে দোকানপাট খুলতে বেশ বেলা গড়াচ্ছে। সিউড়ির ব্যবসায়ী অরূপ পাল বলেন, 'সকালবেলায় দোকান খোলার আগে চায়ের দোকানে এসে গরম চা বা কফিতে চুমুক না দিলে ঠান্ডা কাটছে না। তাই সকালের দিকে চায়ের দোকানগুলোতে বেশ ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে।' শুধু সিউড়ি নয় হাড় কাঁপানো ঠান্ডা রয়েছে বোলপুর, রামপুরহাট, পান্থশালা-সহ জেলার বিভিন্ন শহরে।

Supratim Das

Published by:Shubhagata Dey
First published: