জমি বিবাদের জেরে মৃত্যু, দাবি পুলিশ গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে খুন, দাবি পরিবারের

জমি বিবাদের জেরে মৃত্যু, দাবি পুলিশ গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে খুন, দাবি পরিবারের
Photo Collected

অভিযোগ, এলাকারই তৃণমূলের প্রাক্তন বুথ সভাপতি অজিত পন্ডিতের পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা চালানো হয়।

  • Share this:

    #পশ্চিম মেদিনীপুর: কেশপুরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত তৃণমূল কর্মী। আহত মৃতের পরিবারের আরও দুই সদস্য। জমি সংক্রান্ত বিবাদের জেরে খুন বলে প্রাথমিক অনুমান পুলিশের। মৃতের পরিবার অবশ্য দলের গোষ্ঠীকোন্দলকে দায়ী করেছে। গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরের তৃণমূল জেলা নেতৃত্ব।

    পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুরের কোনার গ্রাম। দু’পক্ষের সংঘর্ষে রবিবার রাত থেকেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। মোতায়েন করা হয় বিশাল পুলিশ বাহিনী। বিবাদের সূত্রপাত এলাকার দুই তৃণমূল পরিবারকে ঘিরে। পরে তা গড়ায় হাতাহাতিতে। অভিযোগ, এলাকারই তৃণমূলের প্রাক্তন বুথ সভাপতি অজিত পন্ডিতের পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা চালানো হয়।

    অভিযোগ, বাঁশ, হাঁসুয়া, লোহার রড নিয়ে হামলা চালায় শ্রীমন্ত ধল, রাম ধল ও তাঁদের পরিবারের সদস্যরা। হামলায় মৃত্যু হয় অজিত পন্ডিতের ভাই নন্দ পণ্ডিতের। তিনি এলাকায় তৃণমূল কর্মী হিসেবেই পরিচিত। পুলিশের দাবি, জমি বিবাদকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে জড়ান গ্রামের দুই পরিবারের সদস্যরা।


    তবে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জন্যই এই ঘটনা বলে দাবি মৃতের আত্মীয়দের। গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের তত্ত্ব উড়িয়ে দিয়েছেন পশ্চিম মেদিনীপুরের তৃণমূল জেলা সভাপতি অজিত মাইতি।রবিবার রাতের সংঘর্ষ ও মৃত্যুতে সন্ত্রস্ত এলাকা।

     
    First published: