Home /News /south-bengal /
দিন আনি, দিন খাই মানুষগুলো আজ অভুক্ত, ‘অঞ্জলি’ পৌঁছে দিল তৃণমূল মহিলা কংগ্রেস

দিন আনি, দিন খাই মানুষগুলো আজ অভুক্ত, ‘অঞ্জলি’ পৌঁছে দিল তৃণমূল মহিলা কংগ্রেস

এদিন বর্ধমান শহরে দুই হাজার পরিবারের কাছে সবজির প্যাকেট পৌঁছে দেওয়ার কর্মসূচি নেওয়া হয়েছিল।

  • Share this:

#পূর্ব বর্ধমান: অঞ্জলি নিয়ে দরিদ্র বাসিন্দাদের ঘরে ঘরে পৌঁছলো পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল মহিলা কংগ্রেস। এমনিতেই  করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে লকডাউনে কাজ হারিয়েছেন অনেকেই। তার ওপর ফোনে আমফানে সর্বস্ব খুইয়েছেন অনেক পরিবার। প্রাকৃতিক দুর্যোগে নষ্ট হয়েছে ফসল। তার জেরে সব্জির দাম নিম্ন মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তের নাগালের বাইরে চলে গিয়েছে। সব্জির কেনার সামর্থ্য নেই অনেকেরই। সেইসব পরিবারগুলির হাতে সব্জির প্যাকেট তুলে দিলেন পূর্ব বর্ধমান জেলা মহিলা কংগ্রেসের কর্মী ও নেত্রীরা।এদিন বর্ধমান শহরে দুই হাজার পরিবারের কাছে সবজির প্যাকেট পৌঁছে দেওয়ার কর্মসূচি নেওয়া হয়েছিল।

পূর্ব বর্ধমান জেলা মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী শিখা দত্ত সেনগুপ্ত বলেন, দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় মানবিক প্রকল্প অঞ্জলি বাস্তবায়িত করতে পথে নেমেছি আমরা। শহর এলাকার অনেক পরিবারেরই এখন সব্জির কেনার সামর্থ্য নেই। সেই সব পরিবারের কাছে কয়েকদিনের সবজি পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। এদিন বর্ধমান শহরের দুই হাজার পরিবারের কাছে সবজির প্যাকেট পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে কালনা কাটোয়া মেমারি গুসকরার মত শহরগুলিতে এই কর্মসূচি পালন করা হবে। গ্রামের বাসিন্দারা তবু কিছুটা সবজি বাড়ির আশপাশে চাষ করে থাকেন।  কিন্তু শহর এলাকার অনেক পরিবারের সেই সুযোগ নেই। সে কারণেই শহর এলাকার নিম্ন মধ্যবিত্ত বা নিম্নবিত্ত পরিবারের পাশে দাঁড়াতেই এই উদ্যোগ।

সব্জির প্যাকেটের মধ্যে রয়েছে আলু পেঁয়াজ পটল ঢেঁড়স টমেটো সহ আরও অনেক কিছু। পূর্ব বর্ধমান জেলা মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী শিখা দত্ত সেনগুপ্ত বলেন, রাজ্য মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের নির্দেশেই মুখ্যমন্ত্রীর এই ভাবনাকে সফল করতে আমরা পথে নেমেছি। বাসিন্দাদের প্রয়োজনের কাছে এই সামান্য সবজি হয়তো সিন্ধুতে বিন্দু মাত্র। তবুও আমরা এই বিপদের দিনে যৎসামান্য অঞ্জলি নিয়ে তাদের পাশে দাঁড়াতে চেয়েছি। এই ভাবনা থেকেই আমাদের এই উদ্যোগ। সেইসব পরিবারগুলির বাসিন্দারা নিজেদের যাতে এই লড়াইয়ে একা না মনে করেন, তাদের সাহস যোগাতে আমরা তাদের পাশে আছি এই বার্তা নিয়ে পরিবারগুলির কাছে আমরা যাচ্ছি। যেহেতু করোনার সংক্রমণের কারণে জমায়েত করা উচিত নয় তাই তাদের একসঙ্গে না ডেকে তাদের বাড়ি বাড়ি এই সব্জির প্যাকেট পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। এর আগেও এলাকার বাসিন্দাদের কাছে চাল ডাল মাস্ক পৌঁছে দেওয়া হয়েছিল। এবার সব্জির প্যাকেট নিয়ে তাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করা হলো। এভাবেই বারে বারে তাদের পাশে দাঁড়ানোর পরিকল্পনা নিয়েছে মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস।

Saradindu Ghosh

Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: East Burdawan, TMC

পরবর্তী খবর