দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

দুয়ারে দুয়ারে সরকার কর্মসূচি বন্ধ করে শাসক দলের সভা! ব্যাপক বিতর্ক কালনায়

দুয়ারে দুয়ারে সরকার কর্মসূচি বন্ধ করে শাসক দলের সভা! ব্যাপক বিতর্ক কালনায়

কালনায় দুয়ারে সরকার কর্মসূচি বন্ধ রেখে সভা করার অভিযোগ উঠল রাজ্যের শাসক দলের শিক্ষক সংগঠনের বিরুদ্ধে। গতকাল থেকে রাজ্যের অন্যান্য অংশের সঙ্গে পূর্ব বর্ধমানের কালনাতেও দুয়ারে সরকার কর্মসূচি শুরু হয়েছে।

  • Share this:

#কালনা: কালনায় দুয়ারে সরকার কর্মসূচি বন্ধ রেখে সভা করার অভিযোগ উঠল রাজ্যের শাসক দলের শিক্ষক সংগঠনের বিরুদ্ধে। গতকাল থেকে রাজ্যের অন্যান্য অংশের সঙ্গে পূর্ব বর্ধমানের কালনাতেও দুয়ারে সরকার কর্মসূচি শুরু হয়েছে। কালনা শহরের পুরশ্রী মঞ্চে ক্যাম্প করে এই কর্মসূচি চালানো হচ্ছে। বিভিন্ন স্টল করে রাজ্য সরকারের কন্যাশ্রী, যুবশ্রী, রূপশ্রী-সহ বিভিন্ন প্রকল্পের বিষয় বাসিন্দাদের অবহিত করার পাশাপাশি প্রকল্পের জন্য নাম নথিভুক্ত করা হচ্ছে। সেই কর্মসূচি মাঝপথে বন্ধ করে দিয়ে পুরশ্রী সভাকক্ষে রাজনৈতিক সভা করার অভিযোগ উঠল পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির বিরুদ্ধে।

গতকালের মতো এ দিনও সরকারি কর্মী আধিকারিকরা দুয়ারে সরকার কর্মসূচির জন্য পুরশ্রী মঞ্চে উপস্থিত হয়েছিলেন। বিভিন্ন প্রকল্পের সুবিধা পেতে হাজির হয়েছিলেন এলাকার বাসিন্দারাও। কর্মসূচি কিছুক্ষন চলার পর তা বন্ধ করে দেওয়া হয়। ওই পুরশ্রী মঞ্চেই এদিন পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভার আয়োজন করা হয়েছিল। যদিও উদ্যোক্তাদের পক্ষে তপন পোড়েল দাবি করেন, কর্মসূচি বন্ধ করা হয়নি। সরকারি কর্মীদের লাঞ্চ বিরতির সময় এই সভার আয়োজন করা হয়েছে। তাছাড়া সভায় দুয়ারে প্রশাসন কর্মসূচির বিষয়েই শিক্ষকদের প্রয়োজনীয় ভূমিকা নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়।

উদ্যোক্তারা এমন দাবি করলেও আদতে সেখানে ভোটার তালিকা সংশোধনের সময় তৃণমূল সমর্থক শিক্ষকদের ভূমিকা বোঝানো হয়। এই সভায় উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। সরকার তথা প্রশাসন যখন দুয়ারে সরকার কর্মসূচি সফল করার জন্য তৎপর তখন মন্ত্রীর উপস্থিতিতে কিভাবে সেই কর্মসূচি বন্ধ রেখে সভা করা হলো তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। যদিও তৃণমূলের জেলা সভাপতি স্বপন দেবনাথ বলেন, দুয়ারে সরকার কর্মসূচি বন্ধ রাখা হয়নি। পাশে তাদের জায়গা করে দেওয়া হয়েছে। সভা শেষ হলেই ফের পুরশ্রী কক্ষে কর্মসূচি চালু হয়ে যাবে।

কর্মসূচি বন্ধ করা হয়নি বলে দাবি করা হলেও একটি ছোট্ট ঘরে গুটিকয়েক কর্মীকে শুধুমাত্র স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের কাজ করতে দেখা গিয়েছে। কর্মীরা জানান, সভা চালায় ওখানে কাজ করতে অসুবিধা হচ্ছিল। তাই আমরা অপেক্ষাকৃত দূরের এই কাউন্টারে চলে এসেছি। বাকি সব কাউন্টার পুরশ্রী মঞ্চ রয়েছে। সভা চলাকালীন স্বাস্থ্যসাথী ছাড়া দুয়ারে সরকার কর্মসূচির বাকি সব কাউন্টার যে বন্ধ ছিল তা ওই কর্মীর কথাতেই পরিষ্কার।

Saradindu Ghosh

Published by: Shubhagata Dey
First published: December 2, 2020, 8:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर