• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • দেহরক্ষী প্রত্যাহার, ডাকা হচ্ছে না দলীয় কর্মসূচিতে! দলের কোপে শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ জেলার নেতারা

দেহরক্ষী প্রত্যাহার, ডাকা হচ্ছে না দলীয় কর্মসূচিতে! দলের কোপে শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ জেলার নেতারা

কেন কর্মসূচিতে বদল? রাজনৈতিক মহলে জোর গুঞ্জন, মেদিনীপুর কলেজ মাঠের এই সভা থেকেই বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন শুভেন্দু অধিকারী ৷ অমিত শাহের হাত থেকে পদ্ম পতাকা হাতে তুলে নেবেন শুভেন্দু ৷ ঘনিষ্ঠ মহলে শুভেন্দু জানিয়েছেন, মেদিনীপুরের মানুষকে সাক্ষী রেখেই নতুন দলে যাত্রা শুরু করতে চান তিনি।

কেন কর্মসূচিতে বদল? রাজনৈতিক মহলে জোর গুঞ্জন, মেদিনীপুর কলেজ মাঠের এই সভা থেকেই বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন শুভেন্দু অধিকারী ৷ অমিত শাহের হাত থেকে পদ্ম পতাকা হাতে তুলে নেবেন শুভেন্দু ৷ ঘনিষ্ঠ মহলে শুভেন্দু জানিয়েছেন, মেদিনীপুরের মানুষকে সাক্ষী রেখেই নতুন দলে যাত্রা শুরু করতে চান তিনি।

এর আগে শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ আরও এক নেতা প্রণব বসুকে মেদিনীপুর পুরসভার প্রশাসক পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল৷

  • Share this:

    #মেদিনীপুর: শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে দলের দূরত্বের জের৷ এবার পশ্চিম মেদিনীপুরের শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ এক নেতার ব্যক্তিগত দেহরক্ষী প্রত্যাহার করে নেওয়া হল৷ অমূল্য মাইতি পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদের খাদ্য কর্মাধ্যক্ষ পদে রয়েছেন৷ শুভেন্দুর সঙ্গে দলের সম্পর্ক খারাপ হওয়ার পর থেকেই পশ্চিম মেদিনীপুর জেলাতেও নন্দীগ্রামের বিধায়কের ঘনিষ্ঠ একাধিক নেতার উপরে কোপ পড়ছে৷ সেই তালিকায় নতুন সংযোজন অমূল্য মাইতির দেহরক্ষী প্রত্যাহার৷

    অমূল্য মাইতি সবংয়ের দীর্ঘদিনের তৃণমূল নেতা৷ দলের জন্মলগ্ন থেকেই তৃণমূলে রয়েছেন তিনি৷ শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ এই নেতা আবার সাংসদ মানস ভুঁইয়ার বিরোধী গোষ্ঠীর বলে পরিচিত৷ অমূল্য মাইতি জানিয়েছেন, তাঁর দেহরক্ষীকে যে প্রত্যাহার করা হতে পারে, কয়েকদিন ধরেই সেই আঁচ পেয়েছিলেন তিনি৷

    কয়েকদিন আগেই সবং-এর প্রাক্তন ব্লক সভাপতি প্রভাত মাইতির স্ত্রীর মৃত্যুর পর তাঁর বাড়িতে গিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী৷ ব্যক্তিগত নিরাপত্তা রক্ষী ছেড়ে দেওয়ায় সেদিন পটাশপুর থেকে তেমাথানি পর্যন্ত শুভেন্দুকে এসকর্ট করে নিয়ে আসেন তাঁর অনুগামীরা৷ এর পরই শুভেন্দু অনুগামীদের বাড়িতে হামলার অভিযোগ ওঠে৷ মানস ভুঁইয়ার ঘনিষ্ঠ এক নেতার বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ তোলেন অমূল্য মাইতি৷ তার পরেই তাঁর দেহরক্ষী প্রত্যাহার করা হল৷

    এর আগে শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ আরও এক নেতা প্রণব বসুকে মেদিনীপুর পুরসভার প্রশাসক পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল৷ এর পর জেলা পরিষদের সদস্যের পদ থেকে নিজেই ইস্তফা দেন তিনি৷ প্রাক্তন পরিবহণমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ মেদিনীপুরের জেলা পরিষদের কৃষি কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরিকেও দলের কোনও কর্মসূচিতে ডাকা হচ্ছে না৷

    শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ নেতাদের অভিযোগ, জেলার দলীয় কর্মসূচিতেও তাঁদের ডাকা হচ্ছে না৷ ফলে শুভেন্দুর সঙ্গে দূরত্ব বাড়তেই তাঁর ঘনিষ্ঠ নেতাদেরও কোণঠাসা করার চেষ্টা করা শুরু হয়ে গিয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে৷ নিরাপত্তারক্ষী সরিয়ে নেওয়ার জন্য সাংসদ মানস ভুঁইয়াকে দায়ী করে তাঁকে বিঁধেছেন তৃণমূল নেতা অমূল্য মাইতি৷

    বৃহস্পতিবারই ক্ষুদিরাম বসুর জন্মদিন উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতায় যান শুভেন্দু অধিকারী৷ সেখানে ইঙ্গিতপূর্ণভাবে তিনি বলেন, 'আদর্শের জন্য লড়াই করছি বলে ফ্ল্যাটবাড়ির কারও কারও অসুবিধে হচ্ছে৷'

    Shankar Rai

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: