শুভেন্দুর বাড়ি 'শান্তিকুঞ্জ'র সামনে তৃণমূলের শক্তি প্রদর্শন, নিরুত্তাপ শিশির-শুভেন্দু-দিব্যেন্দু, কৌতূহল...

শুভেন্দুর বাড়ি 'শান্তিকুঞ্জ'র সামনে তৃণমূলের শক্তি প্রদর্শন, নিরুত্তাপ শিশির-শুভেন্দু-দিব্যেন্দু, কৌতূহল...

সংগৃহীত ছবি

কাঁথিতে তৃণমূলের মিছিল ও জনসভা। যদিও সেই রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অধিকারী পরিবারের ভূমিকা কী হবে, তা নিয়েই সকাল থেকে শুরু হয় চর্চা। সব চর্চা অবশ্য বিফলে যায়। এ দিন পরিবারের কোনও রাজনৈতিক সদস্যকেই দলীয় কর্মসূচিতে দেখা যায়নি।

  • Share this:

#কাঁথি: কাঁথিতে তৃণমূলের মিছিল ও জনসভা। যদিও সেই রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অধিকারী পরিবারের ভূমিকা কী হবে, তা নিয়েই সকাল থেকে শুরু হয় চর্চা। প্রায় গোটা দিন নজরে ছিল অধিকারীরা। অধিকারী পরিবারের বয়জ্যেষ্ঠ সদস্য শিশির অধিকারী। তিনি দলের জেলা সভাপতি। যেখানে মিছিল ও সভা হবে সেখানকার সাংসদও তিনিই। তা সত্বেও গোটা পূর্ব মেদিনীপুর জেলা জুড়ে শাসকদলের যে  পোস্টার, ব্যানার, ফ্লেক্স রয়েছে, তাতে কোথাও তাঁর ছবি নেই।

বুধবার সকাল থেকে শিশির অধিকারী বাড়িতেই ছিলেন। তার ঘনিষ্ঠ মহল অবশ্য জানিয়েছে, বর্ষীয়ান এই নেতাকে নাকি আমন্ত্রণই জানানো হয়নি দলের তরফে। যদিও তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভায় সুপ্রকাশ গিরি জানিয়েছেন, 'শিশিরবাবুকে মঙ্গলবার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তিনি অসুস্থ, তাই আসার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত তাঁকেই নিতে হবে। শিশি বাবু অবশ্য মিটিংয়ে না যোগদানের ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করেননি।'

অধিকারী পরিবারের অপর রাজনৈতিক নেতা শুভেন্দু অধিকারী। যিনি রাজনীতিতে সদ্য দলবদল করেছেন। তিনি এ দিন দুপুর ১:২০ নাগাদ কলকাতা রওনা হন। বাড়ি থেকে বেরিয়ে যে পথ ধরে তিনি কলকাতা পৌঁছন, সেই রাস্তা তখন দখল নিয়েছে তাঁর সদ্য ছেড়ে আসা দলের সদস্যরা। আগামীকাল অবশ্য শুভেন্দু  এলাকায় শক্তি প্রর্দশন করবেন। ইতিমধ্যেই তা নিয়ে প্রচার শুরু করে দিয়েছেন 'দাদার অনুগামী'রা। অধিকারী পরিবারের অপর রাজনৈতিক নেতা দিব্যেন্দু অধিকারী। তমলুকের সাংসদ সারাদিন বাড়িতে থাকলেও, তাঁকেও সভার দিকে যেতে দেখা যায়নি। সভাতে যোগদানের বিষয়ে দিব্যেন্দুকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বলে তিনি ঘনিষ্ঠ মহলে জানিয়েছেন। যদিও অধিকারী পরিবারের এই দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়।

এদিনের সভায় অখিল গিরিকে পাশে নিয়ে তৃণমূলের বর্ষীয়ান নেতা সৌগত রায়  জানিয়েছেন, দল নিয়ম মেনেই সবাইকে আমন্ত্রণ করেছে। আমন্ত্রণ জানানোর কোনও ত্রুটি নেই। তবে অধিকারী পরিবার অবশ্য এই বক্তব্য উড়িয়ে দিয়েছে।কাঁথির ক্যানেল পাড় থেকে শুরু হওয়া মিছিল এ দিন গিয়েছে অধিকারী বাড়ি 'শান্তিকুঞ্জ'র সামনে দিয়ে। কোনও অশান্তি যাতে না ঘটে, তাই মোতায়েন ছিল বিশাল পুলিশ বাহিনী। এমনকি বাড়ির সামনের রাস্তা গার্ডরেল টেনে আটকানো ছিল।

ABIR GHOSHAL

Published by:Shubhagata Dey
First published: