Home /News /south-bengal /

Murder: ভর সন্ধ্যায় তৃণমূল নেতাকে গুলি করে, কুপিয়ে খুন, উত্তেজনা কান্দিতে

Murder: ভর সন্ধ্যায় তৃণমূল নেতাকে গুলি করে, কুপিয়ে খুন, উত্তেজনা কান্দিতে

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব চিত্র

Murder: খবর পেয়ে স্থানীয়রা ছুটে এলে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন নেপালকে।

  • Share this:

#দুর্গাপুর: প্রথমে গুলি, তার পর ধারালো অস্ত্র দিকে কোপ, তৃণমূল নেতা নেপাল সাহাকে ভর সন্ধ্যায় খুন করল অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতীরা। শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে কান্দিতে। শুক্রবার সন্ধ্যায় রেশন দোকান বন্ধ করে ফিরছিলেন তিনি। সেই সময়ে অতর্কিতে হামলা করে দুষ্কৃতীরা। প্রথমে গুলি করা হয়, তার পর ক্রমাগত কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে দুষ্কৃতীরা।

খবর পেয়ে স্থানীয়রা ছুটে এলে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন নেপালকে। কান্দি থানার পুলিশ মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কান্দি মহকুমা হাসপাতালে পাঠায়। ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে গোটা পরিবার-সহ এলাকাজুড়ে। পরিবারের অভিযোগ সক্রিয়তার সঙ্গে তৃণমূল দল করায় পরিকল্পিত ভাবে খুন করা হয়েছে নেপালকে।

আরও পড়ুন: লক্ষ্মীর ভান্ডার মডেল গোয়াতেও! পাঁচশোর বদলে মাসে পাঁচ হাজার, প্রতিশ্রুতি তৃণমূলের

ভাইপো রাজু সাহা বলেন, "সন্ধ্যায় দোকানে গিয়ে আমি কাকার সঙ্গে দেখা করে বাড়ি আসি। তার পরেই ফোনে জানাতে পারি কাকাকে খুন করা হয়েছে। কাকার সঙ্গে দোকানের এক কর্মীও ছিলেন। দুষ্কৃতীরা হামলা করলে তিনি ঘটনাস্থল থেকে কোনও রকমে প্রাণে বাঁচেন। আমার কাকা দুর্গাপুর এলাকায় তৃণমূল দল সক্রিয়ভাবে পরিচালনা করেন। রাজনৈতিক কারনেই পরিকল্পিতভাবে আমার কাকাকে খুন করা হয়েছে।"

আরও পড়ুন: অভিযোগ নিষ্পত্তি সেল, পাড়ায় সমাধান অ্যাপ, তৃণমূলের ইস্তেহারে একাধিক চমক

এই খুনের ঘটনা রাজনৈতিক অভিসন্ধি নাকি ব্যক্তিগত আক্রোশ তা খতিয়ে দেখতে গোটা ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে কান্দি থানার পুলিশ। এলাকায় অত্যন্ত সক্রিয় নেতা ছিলেন নেপাল সাহা। প্রাক্তন পঞ্চায়েত সদস্য তিনি। স্ত্রী যমুনা সাহা বর্তমানে দুর্গাপুর গ্রামের পঞ্চায়েতের তৃণমূল সদস্য। দুই ছেলে রয়েছে তাঁর। এই তৃণমূল নেতার খুনের ঘটনায় গোষ্ঠী কোন্দলের অভিযোগ তুলছে বিজেপি, কংগ্রেস-সহ বিরোধীরা। কান্দি টাউন বিজেপি-র সভানেত্রী বিনীতা রায় বলেন, "এই খুনের ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। কান্দিতে খুনের রাজনীতি বেড়েই চলেছে। তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারনেই নেপাল সাহাকে খুন করা হয়েছে।" গোষ্ঠী দ্বন্দ্বের অভিযোগ কংগ্রেস নেতা সফিউল আলম খানেরও। তিনি বলেন, "গোটা কান্দি মহকুমায় তৃণমূলের গোষ্ঠীর দ্বন্দ্বের কারণে অশান্ত পরিবেশের সৃষ্টি হচ্ছে। পুলিশ তদন্ত করে সঠিক দোষীকে গ্রেফতার করুক।" যদিও গোষ্ঠী কোন্দলের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেই উড়িয়ে দিয়েছে তৃণমূল নেতৃত্বরা। কান্দি টাউন তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি তরুণ সিংহ ত্রিবেদী বলেন, "নেপাল সাহা অত্যন্ত সক্রিয়তার সঙ্গে তৃণমূল দল পরিচালনা করতেন। কান্দি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। খুব দ্রুত পুলিশ মূল অভিযুক্তদের গ্রেফতার করবে।"

Pranab Kumar Banerjee

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Crime

পরবর্তী খবর